'লুকাস ব্যাটারির কাছে ৫৫০ কোটি টাকা চাঁদা দাবির খবর বানোয়াট'

প্রকাশ: ০৮ অক্টোবর ২০ । ১৫:৫৬ | আপডেট: ০৮ অক্টোবর ২০ । ২০:২৪

সমকাল প্রতিবেদক

লুকাস ব্যাটারি কর্তৃপক্ষের কাছে ৫৫০ কোটি টাকা চাঁদাবাজির কোনো ঘটনা ঘটেনি বলে দাবি করেছে প্রতিষ্ঠানটি। বৃহস্পতিবার রাজধানীর পল্টনে ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরামে (ইআরএফ) এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি করেন লুকাস ব্যাটারির জেনারেল ম্যানেজার (মানবসম্পদ ও প্রশাসন) মেজর (অব.) এ কে এম নিয়ামুল হক।

নিয়ামুল হক বলেন, সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ার একটি অনুষ্ঠানে মেজর (অব.) দেলোয়ার হোসেন যে অভিযোগ করেছেন তা 'সম্পূর্ণরূপে মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত'।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে লুকাস ব্যাটারির জেনারেল ম্যানেজার আরও বলেন, 'গত ২ অক্টোবর সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি টকশোর ভিডিও আমাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। টকশোতে ড. কনক সারোয়ার, মেজর  (অব.) দেলোয়ার হোসেন এবং ইলিয়াস হোসেন ছিলেন। ওই অনুষ্ঠানে মেজর (অব.) দেলোয়ার হোসেন তার বক্তব্যে বলেন যে, লুকাস ব্যাটারির কাছ থেকে ৫৫০ কোটি টাকা চাঁদাবাজির চেষ্টা করা হয়েছে। সবার অবগতির জন্য জানাচ্ছি যে, তার এ দাবি সম্পূর্ণরূপে মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। প্রকৃতপক্ষে আমাদের কাছে কেউ কোনো প্রকার চাঁদা দাবি করে নাই।' 

তিনি আরও বলেন, 'মেজর  (অব.) দেলোয়ার হোসেনের এ বক্তব্যের কারণে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাসহ আমাদের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়েছে, যা খুবই অনাকাঙ্ক্ষিত। অনলাইন সংবাদ মাধ্যম ও ইউটিউবে এমন মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বক্তব্যের প্রচার বন্ধের পাশাপাশি ভবিষ্যতে এ ধরনের অপপ্রচার রোধে প্রচারকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কাছে অনুরোধ করছি।'

একই সঙ্গে এমন 'মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত' সংবাদ/বক্তব্য এড়িয়ে যাওয়ার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানান এ কে এম নিয়ামুল হক।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৭১৪০৮০৩৭৮ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com