অভিনয় নিয়ে কখনও ফাঁকিবাজি করিনি

৩০ ডিসেম্বর ২০ । ০০:০০

অপর্ণা ঘোষ। তারকা অভিনেত্রী। চ্যানেল আইয়ে আজ বিকেলে প্রচার হবে তার অভিনীত টেলিছবি 'প্রবাসীর বউ'। এই টেলিছবি ও অন্যান্য প্রসঙ্গে কথা

হয় তার সঙ্গে-

'প্রবাসীর বউ' টেলিছবির গল্পের সঙ্গে বাস্তব জীবনের কতটা মিল খুঁজে পেয়েছিলেন?

আমি যখন 'প্রবাসীর বউ' টেলিছবির গল্প পড়েছিলাম, তখনই মনে হয়েছে, এই গল্প অনেকের বাস্তব অভিজ্ঞতার কথা মনে করিয়ে দেবে। দালালের ফাঁদে পড়ে অনেকে বিদেশে যায়। গিয়ে নানা বিপদের মুখোমুখি হয়। তেমনই এক ঘটনা নিয়ে এই টেলিছবির গল্প।

গল্প, চরিত্র বাছাই করে টিভি নাটক ও টেলিছবিতে অভিনয়ের সুযোগ কতটা পাওয়া যায়?

সুযোগ বেশি পাওয়া যায় না। তারপরও আমি চেষ্টা করি, যে ধরনের গল্পে আগে কাজ করা হয়নি, তেমন গল্প ও চরিত্রে অভিনয় করতে। এটা ঠিক যে, সিনেমায় কাজের বিষয়ে যতটা স্বাধীনতা পেয়েছি, ছোটপর্দার কাজে ততটা পাওয়া যায় না। তাই অনেক সময়ে সমঝোতা করেই কাজ করে যেতে হয়।

টিভি নাটকে কাজের স্বাধীনতা কম থাকার কারণ কী?

আমাদের বেশির ভাগ নাটক, টেলিছবির বাজেট খুবই কম। যেজন্য নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করতে হয়। চাইলেও বাড়তি সময় নির্মাতা বা শিল্পীরা তাদের গল্প উপস্থাপন কিংবা চরিত্র ভেঙে একটু আলাদাভাবে তুলে ধরার সুযোগ পান না। কাজের কারণে পার্শ্বচরিত্রও বাড়ানো সম্ভব হয় না নির্মাতাদের। এ জন্যই বেশির ভাগ নাটকে অভিনেতা-অভিনেত্রীর সংখ্যা থাকে হাতেগোনা। এসব মেনে নিয়েই আমাদের কাজ করতে হচ্ছে।

টিভি নাটকে সুযোগ কম বলেই কি সিনেমায় অভিনয়ে একটু বেশি বাছবিচার করেন?

যতটা পেরেছি, নিজের ভালো গল্পগুলোয় কাজ করে যাওয়ার চেষ্টা করেছি। সবসময় নিজেই চরিত্র নির্বাচন করে কাজ করেছি, বিষয়টা এমনও নয়। 'সুতপার ঠিকানা', 'মৃত্তিকা মায়া', 'মেঘমল্লার' থেকে শুরু করে 'গণ্ডি' পর্যন্ত যত ছবিতে অভিনয় করেছি, তার প্রতিটি চরিত্রের জন্যই নির্মাতা আমাকে নির্বাচন করেছেন। হয়তো তাদের কাছে মনে হয়েছে অভিনীত চরিত্রগুলোয় আমাকে মানাবে। তবে এটাও ঠিক যে, প্রতিটি ছবির চরিত্র নিজের ভালো লেগেছে বলেই কাজ করেছি। নির্মাতা ও নিজের মতের মিল ছিল বলেই হয়তো এত ছবিতে অভিনয় করার সুযোগ হয়েছে।

এবার ভিন্ন প্রসঙ্গে আসি। সবে দ্বিতীয় জীবন শুরু করেছেন। অথচ এখনই আবার অভিনয় নিয়ে ব্যস্ত হয়ে উঠলেন?

ও [সত্রাজিৎ] অল্প সময়ের জন্য দেশে এসেছিল। তাই জাপানে ফিরে যেতে হয়েছে। আমিও তাই হাতের কাজগুলো শেষ করার চেষ্টা করছি। তারচেয়ে বড় বিষয় হলো, অভিনয় নিয়ে আমি কখনও ফাঁকিবাজি করিনি। যে সময়ে কাজ শুরু করার কথা বলেছি, সে সময়েই কাজ করে যাওয়ার চেষ্টা করে গেছি। এখন বিশ্ব পরিস্থিতি খারাপ বলেই ঘরোয়া আয়োজনে বিয়ের কাজ শেষ করা হয়েছে। আনুষ্ঠানিকতার জন্য পরে অনেক সময় পাব। তাই এ মুহূর্তে যে যার কাজ করে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com