মাতারবাড়ী জেটিতে প্রথম নোঙর করল পণ্যবাহী জাহাজ

৩০ ডিসেম্বর ২০ । ০০:০০

কক্সবাজার অফিস ও মহেশখালী প্রতিনিধি

কক্সবাজারের মহেশখালী দ্বীপে নির্মাণাধীন মাতারবাড়ী সমুদ্রবন্দর জেটিতে প্রথম নোঙর করেছে পণ্যবাহী একটি জাহাজ। কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রের জন্য নির্মাণ সরঞ্জাম নিয়ে 'ভেনাস ট্রাইয়াম্প' নামে পানামার পতাকাবাহী জাহাজটি মঙ্গলবার সকাল সোয়া ১০টায় জেটিতে নোঙর করে।

সংশ্নিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, মাতারবাড়ীতে দেশের প্রথম গভীর সমুদ্রবন্দর নির্মাণ কাজ ২০২৫ সালে সম্পন্ন হওয়ার কথা। কিন্তু তার চার বছর আগেই পণ্যবাহী জাহাজ নোঙর করল এই জেটিতে। জাহাজটি ইন্দোনেশিয়া থেকে নিয়ে এসেছে স্ট্রিম জেনারেটরের যন্ত্রাংশ, মেশিনারিজ ও বিদ্যুৎকেন্দ্রের নির্মাণ সরঞ্জাম।

'ভেনাস ট্রাইয়াম্প' নামক এই জাহাজের সহকারী ক্যাপ্টেন আতাউল হক ছিদ্দিকী সাংবাদিকদের বলেন, 'বিশ্বের সঙ্গে মাতারবাড়ী সংযুক্ত হলো। আমরা এটাকে মাইলফলক হিসেবে দেখছি।' তিনি বলেন, এখন থেকে কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রের জন্য সরঞ্জাম ও বিভিন্ন মালপত্র নিয়ে নিয়মিত পণ্যবাহী জাহাজ মাতারবাড়ী জেটিতে ভিড়বে। বন্দর নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হলে বড় আকারে বাণিজ্যিক জাহাজও এখানে নোঙর করতে পারবে।

তিনি বলেন, মাতারবাড়ী জেটিতে জাহাজ ভেড়ার সুবিধার্থে ২৫০ মিটার চওড়া ও ১৮ মিটার গভীর করে চ্যানেল খনন করা হয়েছে। এই চ্যানেল দিয়ে চট্টগ্রাম বন্দরের চেয়ে দ্বিগুণ গভীরতায় চলাচল করতে পারে- এমন জাহাজ প্রবেশ করতে পারবে। দেশের প্রধান সমুদ্রবন্দর মাতারবাড়ীতে বর্তমানে সর্বোচ্চ সাড়ে ৯ মিটার গভীর ও ১৯০ মিটার দীর্ঘ জাহাজ প্রবেশ করতে পারবে।

মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পের পরিচালক আবুল কালাম আজাদ বলেন, মাতারবাড়ী কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের জন্য দুটি জেটি ইতোমধ্যে নির্মিত হয়েছে। এর অন্য পাশে নির্মিত হবে দেশের প্রথম গভীর সমুদ্রবন্দর। তিনি বলেন, এই বন্দর নির্মাণকাজ শেষ হওয়ার আগেই প্রথম একটি জাহাজ নিরাপদে জেটিতে নোঙর করায় সফলতার এক ধাপ এগিয়ে গেল।

মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনের সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার বাংলাদেশকে একটি উন্নত দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে বিভিন্ন পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। মাতারবাড়ী সমুদ্রবন্দর এই মহা পরিকল্পনার একটি। তিনি বলেন, মাতারবাড়ী সমুদ্রবন্দর নির্মাণকাজ ২০২৫ সালে শেষ করার কথা। কিন্তু কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের যন্ত্রাংশ ও মেশিনারিজ আমদানির জন্য ইতোমধ্যে সাগরে ক্যাপিটাল ড্রেজিং করে চ্যানেল নির্মাণ করা হয়েছে। নির্মাণ করা হয়েছে দুটি জেটি। কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পের জন্য আমদানি করা মেশিনারিজ নিয়ে এই প্রথম একটি জাহাজ ভিড়ল জেটিতে। তিনি বলেন, কোনো প্রকল্পের নির্ধারিত সময়সীমার আগেই এটির ব্যবহার শুরু করতে পারা নিঃসন্দেহে বড় অগ্রগতি।

মাতারবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাস্টার মোহাম্মদ উল্লাহ বলেন, মাতারবাড়ী কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে পণ্য ওঠানামার জন্য নির্মিত হয়েছে ১৮০ মিটার দীর্ঘ দুটি অস্থায়ী জেটি। এর একটিতে ভিড়েছে প্রথম পণ্যবাহী জাহাজ।





© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com