আজকের শিল্পী

'এখন শিল্পী বেশি শ্রোতা কম'

২৪ জানুয়ারি ২১ । ০০:০০ | আপডেট: ২৪ জানুয়ারি ২১ । ০৯:০৫

ফাহমিদা নবী।

ফাহমিদা নবী। নন্দিত কণ্ঠশিল্পী, সুরকার ও উপস্থাপক। সম্প্রতি প্রকাশ হয়েছে তার নতুন গান 'কেউ থাকে না'। এ ছাড়া এখন তিনি ব্যস্ত বেশ কয়েকটি একক গানের কাজ নিয়ে। পাশাপাশি ব্যস্ত টিভি আয়োজন নিয়ে। এ সময়ের ব্যস্ততা ও অন্যান্য প্রসঙ্গে কথা হয় তার সঙ্গে-

আপনার নতুন গান 'কেউ থাকে না' নিয়ে কেমন সাড়া পাচ্ছেন?

সম্প্রতি প্রকাশ করা হয়েছে গানটি। তাই এখনই বলা যাচ্ছে না, এটি শ্রোতাদের কাছে কতটা ভালো বা মন্দ লেগেছে। এর মধ্যে যারা গানটি শুনেছেন, তাদের অনেকে ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। গীতিকার, সুরকার আর শিল্পী সব মিলিয়ে ছিল একটা টিমওয়ার্ক। ভালো গান তৈরির জন্য সবারই চেষ্টা ছিল। আর একটি কথা না বললেই নয়। আমি কিন্তু রেসের ঘোড়া নই। আমি চাই, শ্রোতারা আমার গান ধীরে ধীরে শুনুক।

গানের ভিডিও কেমন সাদামাটা হয়ে গেল না?

এ সময়ের অন্যান্য মিউজিক ভিডিওর সঙ্গে তুলনা করলে 'কেউ থাকে না'র ভিডিও সাদামাটা মনে হওয়া স্বাভাবিক। কিন্তু আজকাল মিউজিক ভিডিওতে যেভাবে নানা ধরনের গল্প তুলে ধরা হচ্ছে, তাতে গানের প্রকৃত নির্যাস হারিয়ে যাচ্ছে বলে আমি মনে করি। এ জন্যই চাইনি নাটকীয় ঘটনা দিয়ে ভিডিও নির্মাণ। গান শোনার বিষয়, প্রিয় গানের সঙ্গে শ্রোতার মনের পর্দায় আপনাআপনি কিছু দৃশ্য তৈরি হয়। শ্রোতারা শিল্পীর গানের মধ্য দিয়ে কল্পনার সেই ছবি দেখতে চান। গান শুনতে শুনতে যদি সেই চিত্রকল্পে শ্রোতাকে নিয়ে যেতে না পারি, তাহলে গান গাওয়ার কোনো মানে নেই। সে কারণেই আমার নতুন মিউজিক ভিডিওটি একেবারে সাদামাটা করেছি।

শুনলাম, একটি বিয়ের গান করছেন?

হ্যাঁ। 'বিয়ের বাজনা বাজে, মেহেদি রাঙা হাতে' শিরোনামে গানটি লিখেছেন রঞ্জু রেজা এবং সুর করেছেন পঞ্চম। প্রথমবার এ ধরনের গানের সুর করেছে পঞ্চম। এর ভিডিও নির্মাণ করেছেন চন্দন রায় চৌধুরী। আমাদের দেশে বিয়ে নিয়ে সেভাবে গান হয় না। বিয়ের অনুষ্ঠানে তাই বিদেশি গান বেশি বাজানো হয়। সেই সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে বিয়ের গানটি করেছি। মেহেদি থেকে শুরু করে বিয়ে, বিদায় পর্যন্ত রয়েছে গানের কথায়। আমি মনে করি, আমার নতুন এ বিয়ের গানটি প্রকাশ হওয়ার পর সমাদৃত হবে এবং বিয়েবাড়িতে নিয়মিত বাজবে। গানটি একটু সফট মেলোডিয়াস। শিগগিরই শোভন মেকওভারের ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ হবে এটি।

কারিগরি অ্যালবাম দুই-এর কাজ কতদূর ?

অনেক এগিয়েছে। সব গানের সুর শেষ। এখানে আমার লেখা ও সুরে ৯টি গান থাকবে। শিক্ষার্থীরা ৮টি ও আমি একটি গানে কণ্ঠ দেব। সিডি আকারে এটি প্রকাশ হবে।

সংগীতে এই সময়টা আপনি কীভাবে দেখছেন?

মিউজিক ইন্ডাস্ট্রিতে এক ধরনের অস্থিরতা চলছে। সবাই গান করছে। এখন শিল্পী বেশি, শ্রোতা কম। এটিই সাংস্কৃতিক অবনতির চিত্র। ইদানীং অধিকাংশ শিল্পী ফোক গাওয়ার চেষ্টা করছেন। ফোক গাওয়া কি এত সহজ? চিল্লাচিল্লি করলাম, আর গান হয়ে গেল। শুধু ফোক নয়, কোনো গানই গাওয়া এত সহজ নয়। বুঝেশুনে গান করতে হয়।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২১

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com