মেয়েকে 'দেহ ব্যবসায়' বাধ্য করায় নারী গ্রেপ্তার

প্রকাশ: ০২ মার্চ ২১ । ২২:৪৮

নোয়াখালী প্রতিনিধি

প্রতীকী ছবি

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে নিজের মাদ্রাসা পড়ূয়া মেয়েকে দেহ ব্যবসায় বাধ্য করার অভিযোগে এক নারীকে মঙ্গলবার গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় ওই নারী ও স্থানীয় আলাইয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনিসুর রহমানসহ পাঁচজনকে আসামি করে বেগমগঞ্জ মডেল থানায় মামলা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, মেয়েকে ধর্ষণ ও ভিডিওচিত্র ধারণের অভিযোগ এনে ওই ছাত্রীর মা গত বৃহস্পতিবার রাতে চারজনের বিরুদ্ধে বেগমগঞ্জ মডেল থানায় পৃথক দুটি মামলা করেন। মামলার সূত্র ধরে অভিযান চালিয়ে পুলিশ আসামি ফয়সাল, সাইফুল ইসলাম ইমন ও জোবায়েরকে গ্রেপ্তার করে। গত শনিবার সন্ধ্যায় ঢাকার সাভারের নবীনগর এলাকার একটি বাসা থেকে ছাত্রীটিকে উদ্ধার করে পুলিশ। পরদিন ছাত্রীটি অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি আদালত-৩-এ স্বেচ্ছায় ২২ ধারায় জবানবন্দি দেয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বেগমগঞ্জ মডেল থানার পরিদর্শক রুহুল আমিন জানান, ছাত্রীটির ২২ ধারায় জবানবন্দি ও মামলার তদন্ত করতে গিয়ে জানা গেছে, বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে টাকা নিয়ে ওই নারী নিজের মেয়েকে কখনও নিজ বাড়িতে, কখনও ঢাকা বা চট্টগ্রামে অনৈতিক কাজের জন্য পাঠাত। এ নিয়ে প্রতিবাদ করলে কয়েকবার মেয়েটিকে মারধর করে ওই নারী। মেয়েটি আদালতকে জানিয়েছে, মোটা অঙ্কের টাকা নিয়ে আলাইয়াপুর ইউপি চেয়ারম্যানের হাতে তাকে তুলে দেয় তার মা। পরে চেয়ারম্যান ও আলম নামে তার এক সহযোগী তাকে একটি প্রাইভেটকারে চট্টগ্রাম নিয়ে ধর্ষণ করে।

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) শাহ এমরান বলেন, ছাত্রীটির ২২ ধারায় জবানবন্দির পর পুলিশ বাদী হয়ে একটি মামলা করেছে। ওই মামলাটির তদন্ত শুরু হয়েছে। তিনি নিজেও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২১

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com