কালের খেয়া কুইজ ১১

ভিক্টোরিয়া ওকাম্পো ও আর্জেন্টিনার 'সুর' পত্রিকা

৩০ এপ্রিল ২১ । ০০:০০ | আপডেট: ২৯ এপ্রিল ২১ । ২৩:৩৮

ভিক্টোরিয়া ওকাম্পো [৭ এপ্রিল, ১৮৯০-২৭ জানুয়ারি ১৯৭৯]

গত শতাব্দীর চল্লিশের দশকে আত্মপ্রকাশ করা আর্জেন্টিনার একটি বিখ্যাত সাহিত্য পত্রিকার নাম সুর (Sur)। লাতিন শিল্প-সাহিত্যের প্রখ্যাত মানুষের সংশ্নিষ্টতা ছাড়াও এ পত্রিকাটিকে বিশেষভাবে স্মরণ করা হয় এর প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ভিক্টোরিয়া ওকাম্পোর কারণে। 'সুর'-এ বিভিন্ন সময় বুদ্ধিবৃত্তিক সংশ্নেষ ঘটেছে বিখ্যাত স্প্যানিশ দার্শনিক হোসে ওর্তেগার। এ ছাড়া পত্রিকাটিতে লেখালেখির পাশাপাশি এর সম্পাদনা বিভাগে যুক্ত ছিলেন হোর্হে লুই বোর্হেস, এইচ এ মুরেনাসহ আর্জেন্টিনার স্বনামধন্য কবি ও কথাশিল্পীরা।

১৯৩১ থেকে ১৯৭০ সাল- এই চার দশকের নিয়মিত প্রকাশনার পরও ভিক্টোরিয়া ওকাম্পোর মৃত্যুর (১৯৭৮) পূর্ব পর্যন্ত কিছু বছর এটি অনিয়মিতভাবে প্রকাশিত হয়েছিল। অনেকের মতে, 'সুর' ছিল বিংশ শতাব্দীতে আর্জেন্টিনা, এমনকি লাতিন আমেরিকার সবচেয়ে দীর্ঘকাল ধরে প্রকাশিত এবং সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ সাহিত্য-সাংস্কৃতিক পত্রিকাগুলোর মধ্যে অন্যতম। প্রথম দিকে এটি সাহিত্য পত্রিকা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করলেও পরে এর বিষয়-পরিধি শুধু সাহিত্যে থেমে থাকেনি।

লাতিন আমেরিকার তৎকালীন গুরুত্বপূর্ণ সাহিত্যব্যক্তিত্ব এবং বুদ্ধিজীবীদের হাত ধরে এতে স্থান পেয়েছে কবিতা, কথাসাহিত্যের নানামাত্রিক ফিউশন, শিল্পকলা, দর্শন, সংস্কৃতি ও বিবিধ সামাজিক বয়ান। সাহিত্য ও সামাজিক ক্ষেত্রে একটা উদারনৈতিক সমন্বয়ের লক্ষ্যে ভিক্টোরিয়া ওকাম্পো আর্জেন্টিনা এবং সমগ্র লাতিন আমেরিকাসহ ইউরোপ ও উত্তর আমেরিকার সংস্কৃতির সঙ্গে একটা সেতুবন্ধন হিসেবে সুর পত্রিকাটিকে ব্যবহার করতেন। বুয়েন্স আয়ার্স থেকে প্রকাশিত এ পত্রিকা নিয়মিত আর্জেন্টিনা তথা লাতিন আমেরিকার যেসব সাহিত্যিকের লেখা প্রকাশ করত, তাদের অধিকাংশই পরে বিশ্বসাহিত্যে গুরুত্ব অর্জন করে। এতে প্রকাশিত হতো হোর্হে লুই বোর্হেস, এডলফ বিজয় ক্যাসারেস, সিলভিনা ওকাম্পো এবং হোসে বিয়ানকোর ছোটগল্প; আলবার্তো গিরির কবিতা; অ্যাডোয়ার্ডো মালেয়া, জুলিও কোর্তাসার এবং এইচ এ মুরেনার গদ্য; ভিক্টোরিয়া ওকাম্পোর সাহিত্য সমালোচনাসহ বিংশ শতাব্দীর সাহিত্য-সমাজ-রাজনীতির নানা প্রভাবসঞ্চারি বিষয়, যা পত্রিকাটিকে বিশ্বসাহিত্যের অনন্য গুরুত্বপূর্ণ প্রকাশনা হিসেবে প্রতিষ্ঠা দিয়েছে। ভিক্টোরিয়া ওকাম্পো ছিলেন আর্জেন্টিনার স্বনামধন্য বুদ্ধিজীবী লেখিকা এবং সাহিত্য সমালোচক। তিনি লাতিন আমেরিকার নারীবাদী আন্দোলনের অন্যতম নেত্রী। বোর্হসের মতে, ভিক্টোরিয়া ওকাম্পো নিছক নারী থেকে একজন 'ব্যক্তিত্বে' পরিণত হয়েছিলেন।

তার জন্ম হয়েছিল বুয়েন্স আয়ার্সে এবং তৎকালীন অভিজাত পরিবারের রীতি অনুযায়ী তার শিক্ষালাভ হয়েছিল স্বগৃহে একজন অভিজ্ঞ পরিচারিকার কাছে। প্রথমেই তিনি ফরাসি ভাষা শিক্ষা করেছিলেন। কার্যত কোনোরূপ প্রাতিষ্ঠানিক ডিগ্রি তার হয়নি। দান্তের 'দ্য ডিভাইন কমেডি'র ওপর লেখা একটি আলোচনামূলক গ্রন্থ দিয়ে সাহিত্যিক পরিম লে তার অভিষেক হয়েছিল। ১৯৩১ খ্রিষ্টাব্দে তিনি সুর সাহিত্যপত্রটি প্রকাশ করতে শুরু করেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর প্যারিসে ইউনেস্কো প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে তিনি সক্রিয় অবদান রেখেছিলেন। ১৯৪৬-এ তিনি নুরেমবুর্গ ট্রায়ালে অংশ নিয়েছিলেন। আর্জেন্টিনার শাসক পেরনের প্রকাশ্য বিরোধিতার জন্য ১৯৫৩ খ্রিষ্টাব্দে কিছুদিন কারাবাস করতে হয়েছিল ওকাম্পোকে। তৎকালীন ভারতবর্ষ এবং বাঙালিদের সঙ্গে তার একটি সম্পর্কসূত্র তৈরি হয় কবিগুরুর হাত ধরে। ১৯১৩ খ্রিষ্টাব্দে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পাওয়ার পর ১৯১৪ খ্রিষ্টাব্দে গীতাঞ্জলি ফরাসি ভাষায় অনূদিত হয় এবং সেই অনুবাদ পড়েই ভিক্টোরিয়া ওকাম্পো রবীন্দ্রনাথের অনুরাগী হয়ে পড়েন। ১৯২৪ খ্রিষ্টাব্দে পেরু ও মেক্সিকো ভ্রমণের পথে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, তখন আর্জেন্টিনায় যাত্রাবিরতি করেন এবং সান ইসিদ্রোতে ভিক্টোরিয়া ওকাম্পোর আতিথ্যে বিশ্রাম গ্রহণ করেছিলেন। ওকাম্পোর এই বাড়িতে বেশ কিছুদিন ছিলেন রবীন্দ্রনাথ এবং সে সময়ে তিনি ৩০টি কবিতা রচনা করেন।

প্রশ্ন
১. রবীন্দ্রনাথ ওকাম্পোকে কী নামে সম্বোধন করতেন?
২. রবীন্দ্রনাথ তার কোন কাব্যগ্রন্থটি ওকাম্পোকে উৎসর্গ করেন?
৩. ওকাম্পোর বাড়িতে কত দিন ছিলেন রবীন্দ্রনাথ?

কুইজ ১০-এর উত্তর

১. সুরেশ সিং রচিত 'বীরসা মুন্ডা অ্যান্ড হিজ মুভমেন্ট ১৮৭৪-১৯০১'
২. সুগানা মুন্ডা, করমি মুন্ডানি
৩. ১৮৭৫ সাল

কুইজ-১০ এর জয়ী

অর্চনা মণ্ডল
স্বামীবাগ লেন, ঢাকা।

মিজান মনির
মহেশখালী, কক্সবাজার।

মিতুসী
নলছিটি, ঝালকাঠি

নিয়ম

পাঠক কুইজে অংশ নিতে আপনার উত্তর পাঠিয়ে দিন ৪ মে মঙ্গলবারের মধ্যে কালের খেয়ার ঠিকানায়। পরবর্তী কুইজে প্রথম তিন বিজয়ীর নাম প্রকাশ করা হবে। বিজয়ীর ঠিকানায় পৌঁছে যাবে পুরস্কার।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২১

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com