'আপনিও একদিনে রাজনীতিবিদ হয়ে যাননি' বিজেপি নেতাকে পায়েল

প্রকাশ: ০৬ মে ২১ । ১২:৫১

অনলাইন ডেস্ক

পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির পরাজিত প্রার্থী পায়েল-তনুশ্রীদের 'নগরের নটী' বলে উল্লেখ করে রাজ্যের আরেক বিজেপি নেতা তথাগত রায় বিতর্কের মুখে পড়েছেন। মঙ্গলবার বিজেপির বর্ষীয়ান এই নেতা টুইটে দলের তিন তারকা প্রার্থী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়, পায়েল সরকার ও তনুশ্রী চক্রবর্তীকে নির্বাচনে প্রার্থী করা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। অনেকই তার বক্তব্য নিয়ে ব্যাপক সমালোচনায় মেতে উঠেছেন। যদিও এ ব্যাপারে সাথে সাথেই মুখ খোলেননি অভিনেত্রীদের কেউই। শেষ পর্যন্ত অবশ্য বিজেপির নেতার টুইটে পাল্টা টুইট করে জবাব দিয়েছেন পায়েল সরকার।  খবর আনন্দবাজারের

বিজেপি নেতা তথাগত রায়কে উদ্দেশ্য করে বীনিত কিন্ত স্পষ্ট ভাষায় তিনি লেখেন, একদিনে কেউ রাজনীতিবিদ হয়ে যান না। তথাগত রায়ও হননি।

পায়েল আরো লেখেন, এর আগে কোনও দিন তিনি প্রত্যক্ষভাবে রাজনীতির আঙিনায় পা রাখেননি। অভিনয় পেশা হলেও রাজনীতি তার নেশা বলে পায়েল উল্লেখ করেন। এ কারণে বিজেপির হাত ধরে তিনি রাজনীতিতে এসেছেন বলে জানান। পায়েলের মতে, বিজেপির শীর্ষ নেতারা সেটা বুঝেছিলেন বলেই তার প্রতি ভরসা রেখেছিলেন। জেতার জন্য তিনিও মরিয়া ছিলেন। যদিও শেষ পর্যন্ত তিনি জিততে পারেননি।

এর আগে মঙ্গলবার তথাগত টুইটে লিখেন, ‘পায়েল শ্রাবন্তী পার্নো ইত্যাদি ‘নগরীর নটীরা’ নির্বাচনের টাকা নিয়ে কেলি করে বেড়িয়েছেন। আর মদন মিত্রর সঙ্গে নৌকাবিলাসে গিয়ে সেলফি তুলেছেন (এবং হেরে ভূত হয়েছেন)। তাদেরকে টিকিট দিয়েছিল কে? কেনই বা দিয়েছিল? দিলীপ-কৈলাশ-শিবপ্রকাশ-অরবিন্দ প্রভুরা একটু আলোকপাত করবেন কি?'

এরপর তিনি আরেক টুইটে আগের বক্তব্যে একটু সংশোধন করেন। সেখানে তিনি বলেন, 'পার্নো নয়, ওই নামটি তনুশ্রী চক্রবর্তী হবে।' প্রথমে ভুল করে লিখে ফেলেছিলেন বলে উল্লেখ করেন তথাগত।

রাজনীতিতে পোড় খাওয়া তথাগত রায়ের বেহিসেবি মন্তব্য নিয়ে আগেও বিতর্ক কম হয়নি। বিরোধীদের নিয়ে মন্তব্য করে আগেও বহুবার সমালোচিত হন তিনি। তবে তার এবারের মন্তব্যে রীতিমতো অস্বস্তিতে দল। প্রকাশ্যে কোনও মন্তব্য না করলেও বিজেপি নেতাদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এটা তথাগতর নিজের বক্তব্য। দলের মন্তব্য নয়।

অন্যদিকে তথাগতের মন্তব্য নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন টলিউডের একাধিক অভিনেতা। এর মধ্যে ধারাবাহিক কৃষ্ণকলির নিখিল নীল ভট্টাচার্যের প্রশ্ন, তথাগত রায় কি এটাই বোঝাতে চাইছেন, রাজনীতিতে পা রাখলে সমস্ত সৌজন্য, শিষ্টাচার, সভ্যতা, মানবিকতা ভুলতে হবে?

© সমকাল ২০০৫ - ২০২১

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com