জবিতে নিয়োগ অনিয়ম ও অর্থ লোপাটের অভিযোগ খতিয়ে দেখবে ইউজিসি

প্রকাশ: ১০ মে ২১ । ১৫:০৭ | আপডেট: ১০ মে ২১ । ১৫:১৯

জবি প্রতিবেদক

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে (জবি) নিয়োগে অনিয়ম, স্বজনপ্রীতি ও অর্থ লোপাটের অভিযোগ খতিয়ে দেখবে ইউজিসি। বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে দুর্নীতির অভিযোগ পর্যালোচনায় আছে বলে জানান বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) সচিব ফেরদৌস জামান।

তিনি বলেন, যে কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে দুর্নীতি হলে আমরা সেটা খতিয়ে দেখি, এরপর তদন্ত করে ব্যবস্থা নেই। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়োগে অনিয়ম, স্বজনপ্রীতি ও অর্থ লোপাটের অভিযোগ সংবাদ মাধ্যমে জেনেছি। আমরা নিশ্চয়ই এটা তদন্ত করবো।

অর্থ লোপাটের অভিযোগ বিষয়ে তিনি বলেন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থের হিসাব পর্যালোচনা করার সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিট টিম আপত্তি তুলেছিল।

তিনি বলেন, বর্তমান পরিস্থিতির জন্য আমাদের কাজ কিছুটা ব্যাহত হচ্ছে। তবে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অনিয়ম-দুর্নীতি বিষয়ে আমরা খুব শিগগিরই তদন্তে যাব। আমরা গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদগুলো পর্যালোচনা করেছি। ঈদ পরবর্তী কার্যক্রম স্বাভাবিক হলে এই অভিযোগগুলো খতিয়ে দেখা হবে।

তদন্ত চায় ছাত্র ইউনিয়নঃ

বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারিসহ সকল নিয়োগে স্বচ্ছতা নিশ্চিতের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সংসদ। একইসাথে সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত দুর্নীতির অভিযোগ্যের তদন্ত ও প্রয়োজনীয় নেওয়ার দাবিও জানিয়েছে সংগঠনটি।

সোমবার বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সভাপতি কেএম মুত্তাকী ও সাধারণ সম্পাদক খায়রুল হাসান এক যুক্ত বিবৃতিতে এ দাবি জানান।

নেতারা বলেন, সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়োগ নীতিমালা অমান্য করে কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগের সংবাদ বিভিন্ন গণমাধ্যমে এসেছে। এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে নিয়োগে দুর্নীতি, স্বজনপ্রীতি, আঞ্চলিকতা ও রাজনৈতিক বিবেচনার অভিযোগ এসেছে। আমরা দেখেছি, একই নিয়োগ বোর্ড বছরের পর বছর বিভিন্ন নিয়োগ দিয়ে আসছে। এতে করে শিক্ষক নিয়োগে অস্বচ্ছতা ও সিন্ডিকেট তৈরি হয়েছে৷ আমরা অবিলম্বে এ সমস্ত ঘটনার তদন্ত ও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ দাবি করছি।

তারা আরও বলেন, আমরা প্রত্যাশা করবো দ্রুততম সময়ের মধ্যে তদন্ত কমিটি গঠন করে অস্বচ্ছ ও ত্রুটিপূর্ণ নিয়োগ বাতিল করা হবে। একই সাথে অবৈধ নিয়োগের সাথে জড়িতদের শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। এসময় তারা সকল প্রকার দুর্নীতি ও অনিয়মের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ সকল অংশীজনকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৭১৪০৮০৩৭৮ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com