জামালপুর ইজেডে ৭০০ কোটি টাকার বিনিয়োগ পরিকল্পনা

চাল ও ভোজ্যতেলে বড় বিনিয়োগে আকিজ গ্রুপ

০৯ মে ২১ । ০০:০০

মিরাজ শামস

চাল ও ভোজ্যতেল উৎপাদনের ব্যবসায় বড় বিনিয়োগ নিয়ে আসছে আকিজ গ্রুপ। জামালপুর অর্থনৈতিক অঞ্চলে (ইজেডে) এজন্য ৭০০ কোটি টাকা বিনিয়োগের পরিকল্পনা করছে দেশের শীর্ষস্থানীয় এই ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। পরিকল্পনা অনুযায়ী, সব ধরনের চালের পাশাপাশি রাইসব্রান, সরিষা ও সূর্যমূখী তেল উৎপাদন করে বাজারজাত করবে আকিজ গ্রুপ।

বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) কাছে গত বৃহস্পতিবার কৃষি প্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্প স্থাপনের জন্য প্রস্তাব জমা দিয়েছেন দেশের শীর্ষস্থানীয় এ গ্রুপের পরিচালক জামিল উদ্দিন। প্রস্তাবে প্রধান খাদ্যপণ্য চাল ও ভোজ্যতেল উৎপাদনসহ বিভিন্ন পণ্য উৎপাদনে বিনিয়োগের কথা বলা হয়েছে। এতে কৃষি প্রক্রিয়াজাত শিল্প সম্পর্কিত কারখানা স্থাপনের পরিকল্পনার কথা জানানো হয়েছে।

আকিজ গ্রুপের প্রতিষ্ঠান আকিজ টেক্সটাইল মিলের অধীনে আকিজ ইনসাফ লিগ্যাসি লিমিটেড নামের প্রতিষ্ঠান এসব কারখানা স্থাপন করবে। প্রাথমিকভাবে ৭০০ কোটি টাকা বিনিয়োগে স্থাপন করা শিল্পে প্রথম বছরে এক হাজার ২০০ লোকের কর্মসংস্থান হবে। প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে দুই হাজার লোকের কর্মসংস্থান তৈরি করবে।

আকিজ গ্রুপের কোম্পানি সেক্রেটারি আশরাফুল আলম সমকালকে বলেন, চালের ব্যবসায় বড় বিনিয়োগ হবে। পাশাপাশি অন্যান্য মিল কারখানা করার পরিকল্পনা রয়েছে। প্রাথমিকভাবে ৪০ একর জমি নিয়ে সেখানে রাইস মিল, রাইসব্রান অয়েল মিল, সরিষার তেলের মিল, সূর্যমূখী তেল, পোলট্রি ও ফিশ ফিড মিল ও সিলিকা এক্সট্রাকশন প্লান্ট হবে। রাইস মিলে সব ধরনের চাল প্রস্তুত করা হবে। চালের কুঁড়া থেকে তেল উৎপাদন হবে। কুঁড়ার ছাই থেকে সিলিকা প্লান্টে সিলিকা উৎপাদন করা হবে। পরিবেশবান্ধব কমপ্লায়েন্স শিল্প গড়তে সিলিকা প্লান্ট করা হবে। এছাড়া সরিষার তেল ও সূর্যমুখী তেলের আরও বড় দুটি কারখানা করা হবে।

আগামী তিন মাসের মধ্যে জমি পেলে পরবর্তী দেড় বছরে শিল্পের উৎপাদন শুরু করতে চায় আকিজ। আশরাফুল আলম বলেন, কারখানাগুলো স্থাপনের পরে এই ব্যবসা আরও সম্প্রসারণ করা হবে। ওই এলাকার কৃষিপণ্য উৎপাদন ঘিরে সম্ভাব্যতা যাচাই করে অন্যান্য শিল্পে কারখানা স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে তাদের।

জানা যায়, বর্তমানে আকিজ গ্রুপ সানশাইন ব্র্যান্ডের চিনিগুঁড়া চাল প্রক্রিয়াজাত করে বাজারজাত করছে। এই বিনিয়োগে বাস্তবায়ন হলে সব ধরনের চাল বাজারে আনবে আকিজ। করোনা মাহামারি সংকটের এই সময়ে চাল ও ভোজ্যতেলের বাজারে চরম অস্থিরতা তৈরি হয়েছে। এ কারণে এই দুই পণ্য উৎপাদনে বড় বিনিয়োগে আসছে আকিজ গ্রুপ। যাতে করে চাল ও ভোজ্যতেল পর্যাপ্ত পরিমাণে দেশের বাজারে সরবরাহ করা যায়।

এ বিষয়ে আশরাফুল আলম বলেন, আকিজ গ্রুপের নানা পণ্যের ব্যবসা রয়েছে। দেশের বাজারে প্রধান খাদ্য চাল ও ভোজ্যতেলের পর্যাপ্ত সরবরাহ নিশ্চিত করতে চান তারা। এজন্য এই দুই পণ্য দেশের বিভিন্ন জেলার কৃষকদের মাধ্যমে উৎপাদন করতে সব ধরনের সহযোগিতা দেওয়া হবে। কৃষকদের উৎপাদিত পণ্য ন্যায্যমূল্যে সংগ্রহ করা হবে। এরপর প্রক্রিয়াজাত করে বাজারে ছাড়া হবে। সমন্বিত কৃষি প্রক্রিয়াজাতকরণ শিল্প গড়বে আকিজ।

দেশের পিছিয়ে পড়া জেলা জামালপুরে একটি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলছে সরকার। এ জেলায় এখনও বড় কোনো শিল্প-কারখানা গড়ে ওঠেনি।

২০১৬ সালের এপ্রিলে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় জামালপুর অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপনে ৩০২ কোটি টাকার প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়। ২০১৮ সালে এর ব্যয় বাড়িয়ে ৩৩০ কোটি টাকার সংশোধিত প্রকল্প অনুমোদন করা হয়। জামালপুর সদর উপজেলায় দিগপাইত ও তিতপল্লা ইউনিয়নে ৪৩৭ একর জায়গার ওপর তৈরি হচ্ছে অর্থনৈতিক অঞ্চলটি। অর্থনৈতিক অঞ্চলকে ঘিরে এখন চলছে বিশাল কর্মযজ্ঞ।

এ প্রকল্পটি বাস্তবায়নও করছে বেজা। ইতোমধ্যে এই ইজেডের ভূমি উন্নয়নসহ নানা অবকাঠামো উন্নয়ন করা হয়েছে। প্রথম ধাপে বেশ কিছু প্লট কারখানা করার উপযোগী করা হয়েছে। দুটি কোম্পানি কারখানার অবকাঠামো নির্মাণের কাজ শুরু করছে।

বেজা বলছে, জামালপুর অর্থনৈতিক অঞ্চলে অন্তত ৫০ হাজার মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। এই ইজেডে বিসিককে ৫০ একর ও বিটাককে পাঁচ একর জমি দেওয়া হয়েছে। রিলায়েন্স সলিউশনসহ এখন পর্যন্ত ১২টি শিল্প প্লট বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী সমকালকে বলেন, পিছিয়ে পড়া এ জেলার উন্নয়নের পরিকল্পনা থেকেই বেজা অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ছে। এই অর্থনৈতিক অঞ্চলে বেশ ভালো সাড়া দিয়েছেন উদ্যোক্তারা। আকিজ গ্রুপের মতো বড় কিছু কোম্পানির কাছ থেকে ৭০০ থেকে ৮০০ কোটি টাকার বেশ কয়েকটি প্রস্তাব এসেছে। এই ইজেডের প্রথম ধাপের উন্নয়ন হয়েছে। ইতোমধ্যে অনেক বিনিয়োগকারীকে জমি বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। বিনিয়োগকারীদের চাহিদা থাকায় দ্বিতীয় ধাপে এই ইজেডে আরও উন্নয়ন কাজ করা হবে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com