হাকালুকিতে গাছ নিধন, ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

২৪ জুন ২১ । ০০:০০

বড়লেখা (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি

বড়লেখার হাকালুকি হাওরের মালাম বিল এলাকা থেকে হিজল, করচ, বরুণসহ নানা প্রজাতির প্রায় ২০ হাজার জলজ গাছ কাটার ঘটনায় মামলা হয়েছে। পরিবেশ সংরক্ষণ আইন এবং প্রতিবেশগত সংকটাপন্ন এলাকা ব্যবস্থাপনা বিধিমালায় এ মামলা করা হয়। গত মঙ্গলবার\হরাতে পরিবেশ অধিদপ্তর মৌলভীবাজার কার্যালয়ের পরিদর্শক নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে বড়লেখা থানায় সাতজনের নাম উল্লেখ করে মামলাটি করেছেন।\হমামলার আসামিরা হচ্ছেন- বড়লেখার বর্ণি ইউনিয়নের মনাদি গ্রামের জয়নাল উদ্দিন, কাজীরবন্দের গ্রামের মক্তদির আলী, মশাঈদ\হআলী, রিয়াজ আলী, জয়নাল উদ্দিন, কালা মিয়া ও সুরুজ আলী। মামলায় ১৫ থেকে ২০ জন অজ্ঞাত আসামি রাখা হয়েছে।

সম্প্রতি হাকালুকি হাওরের মালাম বিলের দক্ষিণ-পূর্ব পাশের খাসজমির প্রায় ১২ বিঘা জমিতে পরিবেশ অধিদপ্তর সৃজিত বিভিন্ন প্রজাতির বৃক্ষ এবং প্রাকৃতিকভাবে জন্মানো গাছ কেটে ফেলা হয়েছে। মালাম বিলের বাঁধ ও চাষের জমি তৈরির জন্য গাছ কেটে প্রতিবেশগত সংকটাপন্ন এলাকার ক্ষতিসাধন করা হয়েছে। এ ঘটনায় হাকালুকি জাগরণী ইসিএ ব্যবস্থাপনা বহুমুখী সমবায় সমিতি লিমিটেডের সদস্য ও মালাম\হবিল বনায়ন এলাকার পাহারাদার আবদুল মনাফ গাছ কাটার ঘটনায় গত রোববার পরিবেশ অধিদপ্তরে একটি অভিযোগ দেন। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন\হকরে গাছ কাটার প্রমাণ পেলে এ মামলা করা হয়।

পরিবেশ অধিদপ্তর মৌলভীবাজার কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক বদরুল হুদা বলেন, পরিবেশ সংরক্ষণ আইন এবং প্রতিবেশগত সংকটাপন্ন এলাকা ব্যবস্থাপনা বিধিমালায় এ মামলা করা হয়েছে।

এদিকে গাছ কাটার ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবিতে মঙ্গলবার এক অনলাইন আলোচনা সভা করেছে পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলন (পবা)। সভায় বক্তারা ইসিএ হিসেবে ঘোষিত হাকালুকি হাওরের প্রাণবৈচিত্র্য ও পরিবেশ রক্ষায় সব ইজারা বাতিল করা, হাওরের জলাভূমি ও প্রাণবৈচিত্র্য ব্যবস্থাপনায় হাওরবাসী জনগোষ্ঠীকে যুক্ত করাসহ বিভিন্ন দাবি জানান।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২১

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com