বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির আলোচনায় বক্তারা

সরকার গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক কাঠামো ভেঙে দিয়েছে

প্রকাশ: ১৮ জুন ২১ । ২২:৪৫

সমকাল প্রতিবেদক

ক্ষমতা দীর্ঘস্থায়ী করতে সরকার দেশের ন্যূনতম গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক কাঠামোকে ভেঙে দিয়েছে। বিরোধী রাজনীতিকে শোকেসে তুলে রাখার ব্যবস্থা করেছে। দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার দাবিতে রাজপথে গণতান্ত্রিক-প্রগতিশীল শক্তির বৃহত্তর ঐক্য গড়ে তুলতে হবে।

শুক্রবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় সংহতি মিলনায়তনে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির এক আলোচনা সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হকের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য দেন বাসদের কেন্দ্রীয় নেতা রাজেকুজ্জামান রতন, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের কেন্দ্রীয় নেতা অধ্যাপক আব্দুস সাত্তার, বাসদের (মার্কসবাদী) কেন্দ্রীয় নেতা মানস নন্দী প্রমুখ।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, রাষ্ট্র-রাজনীতিতে দুর্বৃত্ত মাফিয়াদের প্রভাব যত বাড়ছে রাষ্ট্র্র ততই সহিংস ও গণবিচ্ছিন্ন হয়ে উঠছে। গণতান্ত্রিক ধারার জবাবদিহিমূলক রাজনীতিকে বিদায় দেওয়া হচ্ছে। সরকারি দল ও জোটের প্রকৃত রাজনীতিকদের প্রায় বেকার করে রাখা হয়েছে। রাষ্ট্র ও সরকার পরিচালনায় আমলাতন্ত্রই মূল নিয়ামক শক্তি হয়ে উঠেছে।

তারা আরও বলেন, ভোটের মাধ্যমে নিয়মতান্ত্রিক পথে সরকার পরিবর্তনের সুযোগ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। করোনা দুর্যোগে সরকার পরিচালনায় কর্তৃত্ববাদী শাসনকে আরও পাকাপোক্ত করে চলেছে। এই পরিস্থিতি রাজনৈতিক সংকটকে গভীর থেকে গভীরতর করে দেশের গণতান্ত্রিক ভবিষ্যৎকে এক গভীর অনিশ্চয়তার খাদে নিক্ষেপ করছে। নেতারা এই পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসতে গণতান্ত্রিক ও প্রগতিশীল শক্তির বৃহত্তর আন্দোলনের ঐক্য গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২১

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com