সানমুন টাওয়ার নিয়ে তদন্ত চায় সংসদীয় কমিটি

প্রকাশ: ২৪ জুন ২১ । ২১:০০

সমকাল প্রতিবেদক

রাজধানীর দিলকুশায় অবস্থিত বহুল আলোচিত সানমুন টাওয়ার। ছবি: সংগৃহীত

রাজধানীর দিলকুশায় অবস্থিত বহুল আলোচিত সানমুন টাওয়ার নিয়ে তদন্ত করতে বলেছে সংসদীয় কমিটি। বাংলাদেশ জুট মিলস করপোরেশনের (বিজেএমসি) জায়গায় গড়ে ওঠা এই ভবনের আর্থিক দেনা-পাওনার বিষয়টি তদন্ত করে পরবর্তী বৈঠকে উপস্থাপন করতে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়কে বলেছে কমিটি। বৃহস্পতিবার সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ নিয়ে আলোচনা হয়। বৈঠকে বিজেএমসি ও এম আর ট্রেডিং কোম্পানির স্বত্বাধিকারীর উপস্থিতিতে সানমুন টাওয়ারের ভাড়ার দেনা-পাওনা সংক্রান্ত বিষয়ে আলোচনা হয়।

কমিটির সভাপতি মির্জা আজমের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, মোয়াজ্জেম হোসেন রতন, নজরুল ইসলাম চৌধুরী, শাহীন আক্তার, আব্দুল মমিন মণ্ডল, খাদিজাতুল আনোয়ার এবং তামান্না নুসরাত (বুবলী) অংশ নেন।

বৈঠকে বিজেএমসি এবং এম আর ট্রেডিং কোম্পানির মধ্যকার আর্থিক দেনা-পাওনার বিষয়ে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সচিবকে তদন্ত সাপেক্ষে একটি প্রতিবেদন পরবর্তী সভায় উপস্থাপনের সুপারিশ করা হয়। বৈঠক শেষে কমিটির সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন রতন জানান, কমিটির বৈঠকে সানমুন ভবন নিয়ে আলোচনা হয়েছে। মন্ত্রণালয়কে এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। ওই প্রতিবেদন পেলে বিস্তারিত আলোচনার পরে কমিটি সুপারিশ করবে।

সানমুন টাওয়ার নির্মাণে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের সর্বশেষ মেয়র বিএনপি নেতা মরহুম সাদেক হোসেন খোকা, এম আর ট্রেডিংয়ের মালিক মিজানুর রহমানসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে ২০১২ সালে মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। ওই মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রের ৮২৭ কোটি টাকা ক্ষতির অভিযোগ আনা হয়।

ভবনের জমিটি ছিল জুট মিলস করপোরেশনের। বিএনপি সরকারের আমলে সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, জমিটি বিজেএমসি সিটি করপোরেশনের কাছে হস্তান্তর করে। ভবনটি নির্মাণে ঢাকা সিটি করপোরেশন ও রাজউকের অনুমোদন নেওয়া হয়নি। বঙ্গভবনের খুবই কাছে হওয়ায় সুউচ্চ ভবন নির্মাণে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের ছাড়পত্র নেওয়ার কথা থাকলেও তা নেওয়া হয়নি। ভবনটি নির্মাণ নিয়ে নানা ধরনের দুর্নীতি হয়েছে- এমন তথ্য স্থানীয় সরকার বিভাগের এক তদন্তেও উঠে আসে।

এদিকে বৈঠকে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির প্রত্যেক সদস্যের নিজ নিজ এলাকায় স্বউদ্যোগে এক একর করে জমি দান করে একটি করে ভোকেশনাল টেপটাইল ইনস্টিটিউট স্থাপনের প্রকল্প গ্রহণের জন্য সুপারিশ করা হয়।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২১

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com