আপন দর্পণ

আমার নেপথ্যচারী স্বভাব

প্রকাশ: ২৫ জুন ২১ । ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ভূঁইয়া ইকবাল

ভূঁইয়া ইকবাল

- ব্যক্তিগত জীবনে কোন বিশেষ ঘটনা প্রভাবিত করেছে?

-- কৈশোর থেকেই অনেক গুণী ব্যক্তির সান্নিধ্যে আসার সৌভাগ্য হয়েছে। স্কুলে থাকতে মুহম্মদ মনসুরউদ্দীন পুরোনো দুষ্প্রাপ্য বইপত্র সংগ্রহে উৎসাহ দিয়েছেন। মুহম্মদ শহীদুল্লাহ, জসীমউদ্‌দীন, বিচারপতি মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান, শামসুর রাহমান, আনিসুজ্জামান, মুহাম্মদ ইউনূস ও মুহাম্মদ ইব্রাহীমের সঙ্গে কাজ আমাকে প্রভাবিত করেছে।

কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে চার বছর গবেষণাকালে 'দেশ' পত্রিকার সম্পাদক সাগরময় ঘোষ, গৌরকিশোর ঘোষ, সুবীর রায় চৌধুরী, গোলাম কুদ্দুস, নিরঞ্জন হালদার প্রমুখের স্নেহ লাভ করেছি। 'দেশ'-এ সাহিত্য সংখ্যায় রবীন্দ্রনাথের একগুচ্ছপত্র প্রকাশ করে উৎসাহ দেন সাগরময় ঘোষ। শান্তিনিকেতনে বিশ্বভারতীর রবীন্দ্রভবন মহাফেজখানা থেকে বেশকিছু অপ্রকাশিত রবীন্দ্রপত্র উদ্ধার করি। একজন পত্রপ্রাপক ফিরদৌস করিম চিঠি লিখে জানান যে, তাঁকে লেখা রবীন্দ্রনাথের হারিয়ে যাওয়া চিঠি আমি খুঁজে পেয়েছি জেনে আবেগে তাঁর মৃদু হার্ট অ্যাটাক হয়ে এক মাস হাসপাতালে ছিলেন।

সাংবাদিক জীবনে (১৯৬৮-৭৩) বঙ্গবন্ধুকে কাছে থেকে দেখার সুযোগ পেয়েছি। রাষ্ট্রপতি আবু সাঈদ চৌধুরীসহ সমাজের নানা পেশার জ্ঞানী-গুণীদের সংস্পর্শে এসেছি।

- আত্মপ্রকাশ লগ্নে প্রতিবন্ধকতা-

-- আমার নেপথ্যচারী স্বভাব। কখনও কনুই দিয়ে ঠেলে কাউকে পেছনে সরিয়ে সামনের সারিতে ফটোসেশনে ছবি তুলিনি। কিছু কিছু ভালো কাজের সঙ্গে যুক্ত থাকলেও প্রচার চাইনি। পদের জন্য পদলেহী দলকানা হতে চাইনি।

- কোন বই বারবার পড়েন? কেন?

-- রবীন্দ্রনাথের ছিন্নপত্র ও গল্পগুচ্ছের কিছু গল্প। তাঁর নব্য নাটিকা 'বিদায় অভিশাপ' এবং বুদ্ধদেব বসুর আত্মজৈবনিক রচনা। সাহিত্যের রস উপভোগ করি।

- এখন কী নিয়ে ব্যস্ত?

-- প্রায় বিস্তৃত মনীষী সাহিত্যতাত্ত্বিক শিশির কুমার দাশের জীবনতথ্য পঞ্জি তৈরির চেষ্টা করছি আর আবু সয়ীদ আইয়ুবের ও আনিসুজ্জামানের অগ্রন্থিত লেখা সংকলনের উদ্যোগ নিয়েছি।

- ব্যক্তিজীবনের কোনো সীমাবদ্ধতা কষ্ট দেয়?

-- ঠিক সময়মতো কোনো কাজ করতে পারি না। আলসেমির কারণে দীর্ঘকালের পরিকল্পিত বেশকিছু কাজ বাস্তবায়ন সম্ভব হচ্ছে না।

- আপনার চরিত্রের শক্তিশালী দিক কোনটি বলে মনে করেন?

-- পূর্বসূরিদের অবদানের প্রতি গভীর শুদ্ধাবোধ; নানা বিষয়ে আগ্রহ এবং গবেষণার উপকরণ সংগ্রহে অদম্য প্রয়াস। কারও প্রতি ঈর্ষাপরায়ণ নই।

- নিজের সম্পর্কে অভিযোগ?

-- অলসতা ও পরিকল্পনাহীনতা।

- প্রিয়জনদের কাছ থেকে শোনা প্রশংসাবাক্য?

-- শুনিনি। কিছু কানে এলেও উল্লেখ করার মতো নয়।

- কী হতে চেয়েছিলেন, কী হলেন?

-- গ্রেগরি পেক ও অড্রে হেপবার্ন অভিনীত রোমান হলিডে দেখার পর প্রথম যৌবনে সাংবাদিকতা পেশার প্রতি আকৃষ্ট হই। দৈনিক পাকিস্তানের বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার ও দৈনিক বাংলায় রিপোর্টারের কাজ উপভোগ করি। তবে সাংবাদিকতা পেশায় বেশিদিন থাকা হয়নি। গবেষক ও শিক্ষক হই পরবর্তী জীবনে।

- প্রিয় উদ্ধৃতি?

-- কচের প্রতি দেবযানীর অভিশাপবাক্য :

তোমা- 'পরে

এই মোর অভিশাপ- যে বিদ্যার তরে

মোরে করো অবহেলা সে বিদ্যা তোমার

সম্পূর্ণ হবে না বশ; তুমি শুধু তার

ভারবাহী হয়ে রবে, করিবে না ভোগ;

শিখাইবে, পারিবে না করিতে প্রয়োগ।

- জীবনকে কেমন মনে হয়?

-- যোগ্যতার তুলনায় বেশি সমাদর পেয়েছি। জীবনকে উপভোগ করেছি। নাতনিকে নিয়ে সুখী অবসর জীবন। া

গ্রন্থনা ::গোলাম কিবরিয়া

© সমকাল ২০০৫ - ২০২১

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com