ত্রাণ দিতে গিয়ে অসতর্কতা হতেই পারে: কাদের মির্জা

প্রকাশ: ১৭ জুলাই ২১ । ১৬:১৪

নোয়াখালী প্রতিনিধি

ত্রাণ বিতরণের সময় এক বৃদ্ধকে ঘুষি মেরে সমালোচিত নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বলেছেন, ‘ত্রাণ বিতরণের সময় অসর্তকতা হতেই পারে’।

ঈদুল আযহা উপলক্ষে গত শুক্রবার বসুরহাট পৌরসভায় দরিদ্রদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণের সময় বৃদ্ধকে ঘুষি মারেন কাদের মির্জা। সে ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে সমালোচনার ঝড় উঠে। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতারাও তার কঠোর সমালোচনা করেন।

শুক্রবার রাতে কাদের মির্জা নিজের ফেইসবুক অ্যাকাউন্টের স্ট্যাটাস আপডেটে নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা করেন।

কাদের মির্জা জানান, শুক্রবার সকালে বসুরহাট পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডে এক হাজারেরও বেশি মানুষের মধ্যে শাড়ি, কাপড়, লুঙ্গি, ৫ শতাধিক লোককে নগদ অর্থ এবং ২ হাজার লোকের মধ্যে চাল বিতরণ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘যাদের মাঝে কাপড় বিতরণ করা হয়েছে, তাদের দ্রুত চলে যাওয়ার জন্য নিদের্শ প্রদান করা সত্ত্বেও এক ব্যক্তি কাপড় পাওয়ার পরেও সামনে দাঁড়িয়ে ছিল। তিনি মাস্ক না পড়ার কারণে তাকে হাত দিয়ে সরিয়ে দেওয়া হচ্ছিল। এখানে তাকে আঘাত করা হয়নি। এছাড়া যাকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে সে ব্যক্তিও কোনো আক্ষেপ কিংবা অভিযোগ করেনি।’

কাদের মির্জা বলেন, ‘হাজার হাজার মানুষের মধ্যে একযোগে এতগুলো ত্রাণ বিতরণ করার সময় মনের অজান্তে কিছু অসাবধানতা হতে পারে। এক্ষেত্রে ইচ্ছাকৃত কোনো কিছু করা হয়নি’

দরিদ্র ও অসহায়দের সেবার প্রত্যয় ব্যক্ত করে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র বলেন, ‘আমি সব সময় অসহায় ও গরিব মানুষের পাশে আছি। আমার সামর্থ্য অনুযায়ী আমি যত দিন বেঁচে থাকবো ততদিন অসহায় গরিব মানুষের সেবা করে যাবো। সকলের কাছে প্রত্যাশা রাখবো অন্যের সমালোচনা না করে যে যার সামর্থ অনুযায়ী অসহায় গরিব মানুষদের সহযোগিতায় হাত বাড়িয়ে দিন।’


© সমকাল ২০০৫ - ২০২১

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com