লকডাউন এক মর্মান্তিক তামাশা: মির্জা ফখরুল

প্রকাশ: ১৮ জুলাই ২১ । ২০:০৩

সমকাল প্রতিবেদক

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সরকারের কর্মকাণ্ডের সমালোচনা করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, লকডাউনের নামে জনগণের সঙ্গে ‘তামাশা’ করা হচ্ছে।

বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সভার সিদ্ধান্ত জানাতে গিয়ে রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন ফখরুল।

তিনি বলেন, ‘করোনাভাইরাসের ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের জন্য সরকারের লকডাউন লকডাউন খেলা এক মর্মান্তিক তামাশা। প্রথমে লকডাউন, তারপরে কঠোর লকডাউন, পরে শিথিল লকডাউন ঈদের একদিন পর থেকে আরো কঠোর লকডাউন আর শিল্প কলকারখানা বন্ধ ঘোষণা থেকে মনে হয়, সরকারি সিদ্ধান্তগুলো সবই পাবনার হেমায়েতপুর থেকে আসছে।’

তিনি এসময় বলেন, দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতি সরকারের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে। 

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘স্থায়ী কমিটির সভা মনে করে যে, বর্তমান বৈশ্বিক মহামারী করোনা পরিস্থিতি সরকারের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে। করোনা টিকা নিয়ে সরকার দুর্নীতির আশ্রয় নিয়ে গোটা পরিস্থিতিকে লেজে গোবরে করে ফেলেছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞাপনে দেড় কোটি ডোজ টিকা সংগ্রহের কথা বলায় প্রমাণিত হয়েছে সরকার করোনার শুরু থেকেই জনগণের সাথে প্রতারণা করছে, টিকা মূল্য নিয়েও মিথ্যাচার করছে।’

দেশের জেলা হাসপাতালগুলোতে জরুরি ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় বেড,অক্সিজেন, আইসিইউ বেড বৃদ্ধির দাবি জানিয়ে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আক্রান্ত রোগী ও স্বজনদের আহজারিতে বাতাস ভারী হয়ে উঠছে। গাছের তলা, অ্যাম্বুলেন্সে অথবা ভ্যানের ওপর রোগীর চিকিৎসার দৃশ্য কি মধ্যম আয়ের বাংলাদেশ বা উন্নয়নের মডেল বাংলাদেশের ছবি দেখায়?’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার জন্য স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ঊধর্বতন কর্মকর্তাদের ‘অপসারণ করা উচিত’ বলে তাদের দলের স্থায়ী কমিটি মনে করে।

এ অবস্থায় অবিলম্বে টিকা সংগ্রহ ও বিতরণের সুনির্দিষ্ট রোডম্যাপ প্রকাশের দাবি জানান বিএনপি মহাসচিব।

ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে সরকারের ‘অপরিকল্পিত পদক্ষেপের’ কারণে দেশের খেটে খাওয়া মানুষ সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন বলে মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘বিএনপির বার বার এসব মানুষের জন্য এককালীন ১৫ হাজার টাকা করে অনুদান প্রদানের আহ্বান জানিয়েছিল। কিন্তু সরকার তাতে কর্ণপাত করেনি। বিএনপি আবারো দাবি জানাচ্ছে এসব মানুষদের জন্য ১৫ হাজার টাকা অনুদান প্রদান করা হোক, ছোট ব্যবসায়ীদের পুঁজির ব্যবস্থা করা হোক এবং দিনে আনে দিনে খায় মানুষের জন্য পর্যাপ্ত খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হোক।’


© সমকাল ২০০৫ - ২০২১

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : এ কে আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com