সোনারগাঁয় সড়ক: প্রশস্ত করার নামে ২০০ গাছ কর্তন

প্রকাশ: ০৩ আগস্ট ২১ । ২১:৫৭

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

সড়ক প্রশস্ত করার নামে গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে শ্রমিকরা। ছবি: সমকাল

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ পৌর এলাকার আদমপুর থেকে প্রেমের বাজার পর্যন্ত সড়ক প্রশস্ত করার নামে দু'পাশের প্রায় ২০০ ফলদ ও বনজ গাছ নির্বিচারে কেটে ফেলা হয়েছে। গত দু'দিন ধরে এসব কাছ কাটা হচ্ছে। 

এ ঘটনায় আন্দোলনে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন পরিবেশবাদী সংগঠনের নেতারা।

উপজেলা বন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) দুলালপুর-সনমান্দি সড়ক প্রশস্ত করার জন্য ঢাকা বিভাগীয় বন কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে ওই সড়কের দু'পাশের ফলদ ও বনজ গাছ কাটার জন্য দরপত্র আহ্বান করা হয়। স্থানীয় আবুল হোসেন নামে এক ব্যক্তি দরপত্রের কার্যাদেশ পান। ঠিকাদারের শ্রমিকরা সড়কের দু'পাশের ফলদ ও বনজ গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে।

স্থানীয়রা জানান, গাছগুলো না কেটেও সড়কটি প্রশস্ত করা যেত। দু'পাশের গাছ নির্বিচারে কেটে সাবাড় করার কারণে সড়কের সৌন্দর্য নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। গাছ কাটার প্রতিবাদে সবাইকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন করা হবে।

মঙ্গলবার সকালে সরেজমিন দুলালপুর থেকে সনমান্দি সড়কের ফতেকান্দি এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, ৫০-৬০ জন শ্রমিক সড়কের দু'পাশের গাছ কেটে ট্রাকযোগে নিয়ে যাচ্ছে।

ফতেকান্দি গ্রামের বাসিন্দা শফিকুল ইসলাম জানান, গাছগুলো আমরা যত্ন করে বড় করেছি। এখন এসব গাছ কেটে নেওয়া হচ্ছে। বন বিভাগের এ সিদ্ধান্ত আমরা মেনে নিতে পারছি না। পরিবেশ রক্ষা ও উন্নয়ন সোসাইটির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হোসাইন জানান, সড়কের দু'পাশ থেকে নির্বিচারে গাছ কাটার প্রতিবাদে আগামী দু-একদিনের মধ্যে আমরা আন্দোলনে যাব।

সোনারগাঁ উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) প্রকৌশলী আরজুরুল হক জানান, নির্বিচারে সব গাছ কাটার পক্ষে আমরা মত দিইনি। শুধু যেসব গাছ সড়কের ওপর ছিল, সেসব গাছ কাটার জন্য আমরা বন বিভাগকে অনুরোধ করেছি।

সোনারগাঁ উপজেলা বন কর্মকর্তা মামুন মিয়া জানান, সামাজিক বনায়নের মাধ্যমে এ গাছগুলো লাগানো হয়েছিল। নীতিমালা অনুযায়ী এ গাছগুলোর বয়স ১২ বছর হলে দরপত্রের মাধ্যমে তা কেটে ফেলার কথা। সময় পার হয়ে যাওয়ায় গাছগুলো কেটে ফেলা হয়েছে। সুবিধাভোগীদের প্রাপ্য টাকাও দিয়ে দেওয়া হয়েছে। বাইরের গাছ রেখে শুধু সড়কের ওপরের গাছ কেটে সড়কটি প্রশস্ত করা যেত কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সামাজিক বনায়নের গাছ হওয়ায় তা রেখে দরপত্র আহ্বানের সুযোগ নেই।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com