৮০ শতাংশ শেয়ার দর বেড়ে কেনাবেচা হচ্ছে

প্রকাশ: ২২ আগস্ট ২১ । ১২:৪৬

সমকাল প্রতিবেদক

প্রতীকী ছবি

দেশের শেয়ারবাজার লেনদেনে বেশ চাঙ্গা ভাব দেখা যাচ্ছে। রোববার দুপুর ১২টা পর্যন্ত লেনদেনে আসা প্রায় ৮০ শতাংশ শেয়ার দর বেড়ে কেনাবেচা হচ্ছে। এতে মূল্য সূচকেও বড় ধরনের উত্থান দেখা যাচ্ছে।

প্রধান শেয়ারবাজার ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৭৮.৯২ পয়েন্ট বেড়ে ৬৮৩৯.৫৪ পয়েন্ট ছাড়িয়েছে। সূচক বৃদ্ধির হার ১.১৬ শতাংশ। সূচকের এ বৃদ্ধিতে ব্যাংক খাতেরই অবদান ছিল সবচেয়ে বেশি।

ব্যাংক খাতের ৩২ কোম্পানির মধ্যে ৩১টিরই শেয়ার দর বেড়ে কেনাবেচা হতে দেখা যাচ্ছে। গড়ে এ খাতের দর বেড়েছিল ২.০৯ শতাংশ।

গত সপ্তাহে শেয়ারবাজার লেনদেনে বেশ অস্থিরতা দেখা গিয়েছিল। প্রায় প্রতিদিনই লেনদেনের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত দরপতনের একটা ধারা এবং তা ঠেকাতে নানামুখী তৎপরতা দেখা গিয়েছিল।

আজ সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসের লেনদেনে কোনো অস্থিরতার লক্ষণ নেই। দুপুর ১২টার লেনদেন পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, শুধু বীমা ছাড়া অন্য সব খাতের সিংহভাগ শেয়ার দর বেড়ে কেনাবেচা হচ্ছিল।

সার্বিক হিসেবে এ সময় ২৯৭ কোম্পানির শেয়ার দর বেড়ে কেনাবেচা হচ্ছিল। বিপরীতে দর হারিয়ে কেনাবেচা হচ্ছিল ৫৮টি এবং দর অপরিবর্তিত অবস্থায় ছিল ২০টি।

বীমা খাতের লেনদেনে আসা ৫০ শেয়ারের মধ্যে ২৫টি দর হারিয়ে কেনাবেচার বিপরীতে ২৩টিকে দর বেড়ে কেনাবেচা হতে দেখা গেছে। বাকি ২ শেয়ারের দর এ সময় অপরিবর্তিত অবস্থায় ছিল।

প্রকৌশল খাতের ৪২ কোম্পানির মধ্যে ৩৭টি দর বেড়ে কেনাবেচা হচ্ছিল। বস্ত্র খাতের ৫৮ শেয়ারের মধ্যে ৫১টি, ওষুধ ও রসায়ন খাতের লেনদেনে আসা ৩০ শেয়ারের মধ্যে ২৬টি,  আর্থিক প্রতিষ্ঠান খাতের ২২ শেয়ারের মধ্যে ২১টি দর বেড়ে কেনাবেচা হতে দেখা গেছে।

অন্য সব খাতেও একই ধরনের ঊর্ধ্বমুখী ধারা দেখা গেছে। তবে দরবৃদ্ধির শীর্ষে থাকার বেশিরভাগ শেয়ার ছিল রুগ্ন কোম্পানি। সর্বাধিক ১০ শতাংশ দর বেড়ে আজিজ পাইপস কেনাবেচা হচ্ছিল ১৩০.৯০ টাকায়। এ শেয়ারটি ছিল দরবৃদ্ধির শীর্ষে।

৯ থেকে প্রায় ১০ শতাংশ পর্যন্ত দর বেড়ে এর পরের অবস্থানে ছিল ফার্স্ট সিকিউরিটি ব্যাংক, জনতা ইন্স্যুরেন্স, রিং শাইন টেক্সটাইল, মেঘনা পেট ইন্ডাস্ট্রিজ, সাউথবাংলা ব্যাংক, মেঘনা কনডেন্ডস মিল্ক এবং মেট্রো স্পিনিং।

দুপুর ১২টায় ডিএসইতে ১ হাজার ২৯৫ কোটি ৯৫ লাখ টাকার শেয়ার কেনাবেচা হয়েছিল।

সর্বাধিক ৬৬.২৫ কোটি টাকার লেনদেন নিয়ে এ সময় পর্যন্ত একক কোম্পানি হিসেবে লেনদেনের শীর্ষে ছিল লাফার্জ-হোলসিম সিমেন্ট। লেনদেনের এর পরের অবস্থানে ছিল বেক্সিমকো লিমিটেড, ফার্স্ট সিকিউরিটি ব্যাংক, আইএফআইসি ব্যাংক, রিং শাইন।

দুপুর ১২টা পর্যন্ত একক খাত হিসেবে লেনদেনের শীর্ষে ছিল বস্ত্র খাত। এ সময় পর্যন্ত এ খাতের ২৩৪ কোটি টাকার শেয়ার কেনাবেচা হয়েছিল, যা ছিল মোট লেনদেনের ১৮.৩৯ শতাংশ।

২০২.৬৪ কোটি টাকার লেনদেন নিয়ে এর পরের অবস্থানে ছিল ব্যাংক খাত। এ খাতের লেনদেনের পরিমাণ ছিল মোটের ১৫.৯১ শতাংশ।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২১

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com