ড. ইনামুল হককে শ্রদ্ধা ভালোবাসায় শেষ বিদায়

প্রকাশ: ১২ অক্টোবর ২১ । ২২:০৫ | আপডেট: ১২ অক্টোবর ২১ । ২২:০৫

সমকাল প্রতিবেদক

ড. ইনামুল হককে শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় শেষ বিদায় জানালেন তার সহকর্মী, শিক্ষার্থী ও ভক্তরা। ছবি: সমকাল

একুশে পদকপ্রাপ্ত নাট্যাভিনেতা অধ্যাপক ড. ইনামুল হককে শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় শেষ বিদায় জানালেন তার সহকর্মী, শিক্ষার্থী ও ভক্তরা। 

সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য মঙ্গলবার সকালে গুণী এ শিল্পীর মরদেহ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নেওয়া হয়। পরে তার দীর্ঘদিনের কর্মস্থল বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) জানাজা শেষে বেলা আড়াইটার দিকে বনানী কবরস্থানে শেষশয্যায় শায়িত করা হয় তাকে।

এদিন সকাল সোয়া ১১টার দিকে ড. ইনামুল হকের মরদেহ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নেওয়া হয়। এর আগে থেকেই সেখানে উপস্থিত হন বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। তারা ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান প্রিয় এ ব্যক্তিত্বকে। এ সময় অনেকেই কান্নায় ভেঙে পড়েন। মরদেহে ফুল দিতে গিয়ে কান্না আটকে রাখতে পারেননি ইনামুল হকের বন্ধু প্রখ্যাত অভিনেতা আবুল হায়াত। এ সময় ইনামুল হকের দুই মেয়ে হূদি হক ও পৈত্রি হক, জামাতা অভিনেতা লিটু আনাম ও সাজু খাদেম শহীদ মিনারে উপস্থিত ছিলেন।

শ্রদ্ধা জানানো শেষে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, শিক্ষাবিদ, অভিনেতা, পরিচালক ও প্রযোজক ড. ইনামুল হক অত্যন্ত সজ্জন মানুষ ছিলেন। তিনি দীর্ঘ ৪৩ বছর বুয়েটে শিক্ষকতা করেছেন। শিক্ষকতার পাশাপাশি তিনি আমাদের সাংস্কৃতিক অঙ্গনকে সমৃদ্ধ করে গেছেন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, এই শূন্যতা আসলে পূরণ হবে না। তিনি মানুষের হৃদয়ে বেঁচে থাকবেন। তরুণ প্রজন্মের কাছে তিনি আদর্শ হয়ে থাকবেন।

বরেণ্য এ নাট্যকাররকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে এসেছিলেন নৌপরিবহন পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা যে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার চেষ্টা করছি, সেই জায়গায় ইনামুল হক পুরোধা ব্যক্তি ছিলেন।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ইনামুল হক মানুষকে সব সময় আনন্দ দিতেন। আমি অন্তর থেকে তাকে শ্রদ্ধা জানাচ্ছি।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান বলেন, একজন অভিনেতা হিসেবে, নাট্যনির্দেশক হিসেবে, এমনকি স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রে মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা উজ্জীবনে তিনি অসাধারণ ভূমিকা রেখেছেন।

আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানান কেন্দ্রীয় কমিটির সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, মহিলাবিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকি এবং ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী। এ সময় আরও শ্রদ্ধা জানান নাট্যব্যক্তিত্ব নাসির উদ্দীন ইউসুফ বাচ্চু, সাংবাদিক ও কলামিস্ট আবেদ খান, অভিনেত্রী শাহনাজ খুশি, তানজিকা আমিন, নাতাশা হায়াত, মোমেনা চৌধুরী, নাট্যকার বৃন্দাবন দাস, অভিনেতা মীর সাব্বির, ফারুক আহমেদ, নির্মাতা অরণ্য আনোয়ার, পিকলু চৌধুরী, মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট, বাংলাদেশ বেতার-টেলিভিশন শিল্পী সংস্থা, বাঙালি সাংস্কৃতিক বন্ধন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সংস্কৃতিবিষয়ক উপ-কমিটি, বাংলাদেশ মহিলা সমিতি, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, বাংলাদেশ শিশু একাডেমি, টেলিভিশন নাট্যকার সংঘ, ফেডারেশন অব টেলিভিশন প্রফেশনালস অর্গানাইজেশন, ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।

বর্ষীয়ান এ অভিনেতা গত সোমবার দুপুরে নিজ বাসায় অসুস্থ হয়ে পড়েন। এর পর বেলা আড়াইটার দিকে কাকরাইলে ইসলামী ব্যাংক সেন্ট্রাল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে তাকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২১

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মুস্তাফিজ শফি । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com