মিরপুরের পুরনো খবর ছড়িয়ে উসকানি দিচ্ছে চক্র

প্রকাশ: ১৯ অক্টোবর ২১ । ২২:০৬ | আপডেট: ১৯ অক্টোবর ২১ । ২২:০৬

সমকাল প্রতিবেদক

প্রতীকী ছবি

রাজধানীর মিরপুরের একটি মন্দিরে এক ব্যক্তির ভাঙচুরের পুরোনো খবর ছড়িয়ে
উসকানি দিচ্ছে স্বার্থান্বেষী চক্র। কুমিল্লায় একটি মন্দিরে সাম্প্রতিক
ঘটনার পর দুই বছর আগের ঘটনা ফেসবুকে ছড়ানো হচ্ছে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তারা বলছেন, বিভ্রান্তি ছড়াতে যারা পুরোনো খবর
ছড়িয়েছে, তাদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় নিয়ে আসার কাজ চলছে। গুজব ছড়িয়ে
কেউ পার পাবে না।

গত ১৩ অক্টোবর কুমিল্লায় মন্দিরে ঘটনার জেরে গুজব ছড়িয়ে চাঁদপুর,
নোয়াখালী, ফেনী এবং সর্বশেষ রংপুরে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা সৃষ্টি করা হয়।
এসব ঘটনার অনেকটিতে দুর্বৃত্তরা শিশু ধর্ষণ এবং মৃত্যুর গুজবও ছড়াচ্ছে।

এ অবস্থাতেই গত দুইদিন ধরে একাধিক ফেসবুক গ্রুপে ও পেজে মিরপুরের মন্দিরে
ভাঙচুরেরখবর ছাড়াচ্ছে। গত ১৭ অক্টোবর রাতে 'গীতা পাঠ' নামের একটি ফেসবুক
গ্রুপ ওই ধরনের পোস্ট দেওয়া হয়। ওই পাবলিক গ্রুপটিতে দেখা যায়, সেখানে ৬৫
হাজারেরও বেশি সদস্য রয়েছে। সেখানে 'খুশি' নামে আইডি থেকে দেওয়া পোস্টে
দাবি করা হয়, 'রাজধানীর মিরপুরের একটি মন্দিরে মিঠুন চক্রবর্তী নামে পরিচয়
দিয়ে ভেতরে ঢুকে প্রতিমা ভাঙচুর চালিয়েছে রাশেদুল হাসান নামে এক ব্যক্তি।
পরে ওই যুবককে ধরে পুলিশে দেওয়া হয়।'ৱ

১৭ অক্টোবর রাত সাড়ে ৮টার দিকে 'আমরা হিন্দু সনাতনী' নামে ৭৫ হাজার সদস্যের অপর একটি পাবলিক গ্রুপেও এমন একটি পোস্ট দেখা যায়।

অবশ্য খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, পোস্ট করা ওই ঘটনাটি ২০১৯ সালের ২৮
ফেব্রুয়ারির। তখন ওই ঘটনা নিয়ে গণমাধ্যমেও খবর প্রচারিত হয়। আগের সেই
ঘটনাকেই সাম্প্রতিক ঘটনাগুলোর সঙ্গে ছড়িয়ে দিয়ে উসকানি ছড়াচ্ছে
স্বার্থান্বেষী গোষ্ঠী।

মিরপুর মডেল থানার ওসি মোস্তাজিজুর রহমান বলেন, ঘটনাটি ২০১৯ সালের। এতোদিন
আগের ঘটনা কোনো স্বার্থান্বেষী মহল ফেসবুকে নতুনভাবে গুজব আকারে ছড়াচ্ছে।
তবে জড়িতদের চিহ্নিত করতে কাজ করছে সাইবার পুলিশ।




© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com