শ্রমিক দলের গ্রুপিং দূর করতে বললেন নজরুল

প্রকাশ: ২৮ অক্টোবর ২১ । ১৫:১৫ | আপডেট: ২৮ অক্টোবর ২১ । ১৫:১৫

সমকাল প্রতিবেদক

মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য দেন নজরুল ইসলাম খান - সমকাল

সরকারবিরোধী ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তুলতে শ্রমিক দলের মধ্যকার গ্রুপিং দূর করতে বললেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দল আয়োজিত এক মানববন্ধন কর্মসূচিতে তিনি একথা বলেন।

'চাল, ডাল, তেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূলের লাগামহীন ঊর্ধ্বগতি ও শ্রমজীবী মানুষের ভোগান্তির প্রতিবাদে' এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

শ্রমিক দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে নজরুল ইসলাম খান বলেন, 'নিজেদের সংগঠনকে শক্তিশালী করুন। মনে রাখবেন, ছাত্র এবং শ্রমিক- এই দুই শক্তির সম্মেলন এবং সংঘবদ্ধ অংশগ্রহণ ছাড়া গণআন্দোলন ও গণঅভ্যুত্থান হয় না। আর আগামী দিনে আমাদেরকে জনগণের আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। অন্য কোনো পথ নেই। আন্দোলন, গণতান্ত্রিক আন্দোলন। সেজন্য আমাদের প্রয়োজন ঐক্যবদ্ধ হওয়া। নিজেদের মধ্যে কোনো ভুল বোঝাবুঝি, কোনো দুর্বলতা এবং কোনো গ্রুপিং থাকা যাবে না।'

তিনি আরও বলেন, 'নেতা হওয়ার জন্য কোনো প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার প্রয়োজন নেই। আপনি ভালো কাজ করলে আপনাকে সবাই মিলে এমনি নেতা বানাবে। আমার বাড়ি জামালপুর। জামালপুরে কয়টা শ্রমিক আছে? কিন্তু আমি এতো বছর শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতি ছিলাম। আমাকে তো কখনো প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হয় নাই। আমার সাথে কেউ প্রতিদ্বন্দ্বিতাও করেননি। আপনারাও ভালো করে কাজ করেন। দেখবেন, কেউ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে না। সবাই মিলে বলবে, আপনি নেতা হবেন। সেভাবে চলুন। ইনশাআল্লাহ আগামী দিনে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন হবে। বিএনপির নেতৃত্বেই হবে ইনশাআল্লাহ। কারণ অতীতেও তাই হয়েছে।'

দেশে গণতান্ত্রিক আন্দোলনগুলোর প্রেক্ষাপট তুলে ধরে বিএনপির এই নেতা বলেন, সেই পথ ধরেই বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে এবারও বাংলাদেশে জনগণের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করবে বিএনপি।

বর্তমান সরকার যদি দায়িত্বে থাকে তাহলে দ্রব্যমূল্য কমার কোনো সম্ভাবনা নেই- এমন মন্তব্য করে নজরুল ইসলাম বলেন, 'এই সরকার ক্ষমতায় থাকলে দ্রব্যমূল্য আরো বাড়বে। কারণ এই সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত সরকার না। সে কারণে জনগণের কাছে তারা দায়বদ্ধ না। জনগণকে জবাবদিহি করতে বাধ্য না। তাই আমাদের এমন সরকার দরকার, যে সরকারকে আমরা নির্বাচিত করবো। তারা আমাদের কাছে দায়বদ্ধ থাকবে। আমাদেরকে জবাবহিদি করতে বাধ্য থাকবে। সেই সরকার করতে হলে গণতান্ত্রিক আন্দোলনের বিকল্প নাই। কারণ আমরা গণতান্ত্রিক দল হিসেবে গণতান্ত্রিক আন্দোলন ছাড়া কিছু বুঝি না। আমরা ষড়যন্ত্র ও সন্ত্রাসের রাজনীতি করি না।'

বুধবার পত্রিকায় প্রকাশিত এক সংবাদের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, 'গতকাল পত্রিকায় দেখলাম, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের একজন সদস্য ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়ে রাইফেল দিয়ে গুলি করে নিজেই আত্মহত্যা করেছেন। তিনি লিখেছেন যে, তার যে উপার্জন সেই উপার্জন দিয়ে তার মা এবং অসুস্থ ছোট ভাইয়ের চিকিৎসা করাতে পারছেন না। তার দৈনন্দিন প্রয়োজন তিনি মেটাতে পারছেন না। এই আক্ষেপ ও কষ্টে তিনি বিয়েও করতে পারছেন না। তিনি আত্মহত্যা করেছেন। পাশে একজন পুলিশের ছবি। তিনি বিষণ্ণ অবস্থায় বসে আছেন।'

দেশে প্রতিনিয়তই জিনিসের দাম বেড়ে চলেছে- একথা উল্লেখ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, গত ৮ মাসে ৭ বার সয়াবিন তেলের দাম বাড়ানো হয়েছে। আর জানুয়ারি পরে অক্টোবর মাসে সয়াবিন তেলের প্রতি লিটারে ৪৫ টাকা বেড়েছে!

শ্রমিক দলের সভাপতি আনোয়ার হোসাইনের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, সহ শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হুমায়ুন কবির, শ্রমিক দলের যুগ্ম সম্পাদক আবুল খায়ের খাজা, মোস্তাফিজুল কবির মজুমদার প্রমুখ বক্তব্য দেন। 

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com