অভিযোগের ২ বছর ২ মাস পর তদন্তের চিঠি

প্রকাশ: ০২ নভেম্বর ২১ । ১৫:৫৯ | আপডেট: ০২ নভেম্বর ২১ । ১৬:০৫

ভৈরব ( কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি

খাদ্যমন্ত্রীর কাছে অভিযোগ করার দুই বছর দুই মাস পর তদন্তের একটি অফিসিয়াল চিঠি পেয়েছে অভিযোগকারী। মঙ্গলবার চিঠিটি পান তিনি। 

জানা যায়, ভৈরব খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও পরিদর্শক খোরশেদ আলমের বিরুদ্ধে দুর্নীতি, ঘুষ ও অফিসিয়াল অব্যবস্থাপনা নিয়ে ২০১৯ সালে বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদ প্রকাশের পর ২০১৯ সালের ১০ জুলাই এ বিষয়ে ওই খাদ্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে  খাদ্যমন্ত্রীর কাছে বিচার চেয়ে ডাকযোগে একটি  অভিযোগ দাখিল করেন ভৈরবে কর্মরত জাতীয় একটি দৈনিকের জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক আসাদুজ্জামান ফারুক।

অভিযোগটির তদন্ত কাজে সাক্ষ্য দিতে দীর্ঘ দুই বছর দুই মাস দুই দিন পর মঙ্গলবার একটি অফিসিয়াল চিঠি পান তিনি। তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় ব্রাক্ষণবাড়িয়ার জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক সুবীর নাথ চৌধুরীকে। 

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, আগামী ৭ নভেম্বর ভৈরব খাদ্য গুদামে অভিযোগকারীকে উপস্থিত থেকে বক্তব্য ও সাক্ষ্য প্রমাণ দিতে হবে।

এই ব্যাপারে সুবীর নাথ চৌধুরী বলেন, ‘মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তে আমাকে তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তদন্ত কমিটি করতে কেন দুই বছর সময় লেগেছে তা মন্ত্রণালয়ই ভালো বলতে পারবে।’

এদিকে আসাদুজ্জামান ফারুক বলেন, ‘চিঠিটি পেয়ে আমি কিছুটা হতবাক হলাম। এতদিন পর খাদ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা অভিযোগটি তদন্ত করতে নির্দেশ দিলো? এদেশের অফিসগুলি এভাবেই চলে তা জানা ছিল না। তারপরও আমি খুশী, অভিযোগটি শেষ পর্যন্ত তদন্ত হচ্ছে।’



© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৭১৪০৮০৩৭৮ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com