খুলনায় বাম জোটের সমাবেশ

দাম বাড়িয়ে জনগণের পকেট কাটছে সরকার

প্রকাশ: ০৮ নভেম্বর ২১ । ২০:০৫ | আপডেট: ০৮ নভেম্বর ২১ । ২০:০৫

খুলনা ব্যুরো

গত কয়েক মাস ধরে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম লাগামহীন বৃদ্ধি পেলেও সরকার ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারেনি। উপরন্তু ডিজেল ও কেরোসিনের দাম অযৌক্তিকভাবে বাড়িয়ে তারা একদিকে জনগণের পকেট কাটছে অন্যদিকে মুনাফালোভী ব্যবসায়ীদের লুটপাটের সুযোগ করে দিচ্ছে। সরকার সুবিধাবঞ্চিত, নিম্নমধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্তদের স্বার্থের কথা কখনো ভাবেনি।

সোমবার নগরীর পিকচার প্যালেস মোড়ে বাম গণতান্ত্রিক জোটের মানববন্ধন ও সমাবেশে বক্তারা এসব কথা বলেন। জ্বালানি তেল, সিলিন্ডার গ্যাস, নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য ও টিসিবি পণ্যের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে এ সমাবেশ হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন বাম জোট খুলনা জেলা সমন্বয়ক ও সিপিবি নেতা মিজানুর রহমান বাবু।

বক্তব্য দেন সিপিবির কেন্দ্রীয় সদস্য এস এ রশীদ, গণসংহতি আন্দোলন জেলা সমন্বয়ক মুনীর চৌধুরী সোহেল, বাসদের জেলা সমন্বয়ক জনার্দন দত্ত নান্টু, ওয়ার্কার্স পার্টির (মার্কসবাদী) খুলনা জেলা সভাপতি মোজাম্মেল হক খান, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগ খুলনা জেলা সম্পাদকমন্ডলীর সদস্য মোস্তফা খালিদ খসরু।

বক্তারা বলেন, ২০১৩ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানী তেলের মূল্য কম থাকলেও সরকার মূল্য সমন্বয় করে তেলের দাম কমায়নি। বিগত সাত বছরে বাপেপ ৪০ হাজার কোটি টাকা মুনাফা করেছে। বর্তমানে সরকার প্রতি লিটারে ডিজেলের দাম এক লাফে ১৫ টাকা বাড়িয়েছে, যা সম্পর্ণ অযৌক্তিক ও অমানবিক। করোনা মহামারীকালে সব পণ্যের দাম বৃদ্ধি জনগণের ওপর মড়ার ওপর খাড়ার ঘায়ে পরিণত হয়েছে। বক্তারা অবিলম্বে জ্বালানী তেল-নিত্যপণ্যের দাম কমানো এবং রেশনিং ব্যবস্থা চালুর জোর দাবি জানান।


© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com