প্রকৌশলীর গলা চেপে ধরলেন নির্বাহী প্রকৌশলী

প্রকাশ: ২৪ নভেম্বর ২১ । ২৩:৪৫ | আপডেট: ২৫ নভেম্বর ২১ । ০০:১০

রাজবাড়ী প্রতিনিধি

ছবি: সিসি ক্যামেরার ভিডিও থেকে নেওয়া

নিজের অধস্তন এক প্রকৌশলীকে চেয়ারসহ মেঝেতে ফেলে গলা চেপে ধরলেন রাজবাড়ী পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবদুল আহাদ। এসময় অপর এক কর্মকর্তা নির্বাহী প্রকৌশলীকে সামাল দেন এবং আক্রান্ত কর্মকর্তাকে কক্ষ থেকে সরিয়ে নেন।

গত মঙ্গলবার বিকেলে রাজবাড়ীর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলীর কক্ষে এ ঘটনা ঘটে। আক্রান্ত কর্মকর্তা হলেন, উপসহকারী প্রকৌশলী মো. রনি। তিনি বুধবার দুপুরে ঘটনার সিসি ক্যামেরার ফুটেজসহ পাউবোর মহাপরিচালকের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন এবং এর সুষ্ঠু বিচার চেয়েছেন।

পাউবো সূত্র জানায়, বুধবার বিকেলে নির্বাহী প্রকৌশলী আবদুল আহাদকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। উপসচিব (প্রশাসন) সৈয়দ মাহবুবুল হকের সই করা এ সংক্রান্ত আদেশে বলা হয়, অসদাচরণ ও চাকরির শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে আবদুল আহাদকে সাময়িক বরখাস্ত করে প্রশিক্ষণ ও মানবসম্পদ উন্নয়ন বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলীর দপ্তরে সংযুক্ত করা হয়েছে।

মহাপরিচালকের কাছে দেওয়া অভিযোগে রনি বলেছেন, মঙ্গলবার দুপুর ১টার দিকে তাকে ও গোয়ালন্দ পশুর শাখার উপসহকারী প্রকৌশলী মো. ইকবাল সরদারকে কিছু নথিপত্রসহ দাপ্তরিক কাজে প্রধান প্রকৌশলীর দপ্তরে যেতে বলেন নির্বাহী প্রকৌশলী আবদুল আহাদ। দপ্তরের একটি গাড়ি নিয়ে যেতে বললেও ওই দিন তারা কোনো গাড়ি পাননি। গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্র হওয়ায় এগুলো নিয়ে বাসে না গিয়ে পরদিন (বুধবার) দপ্তরের গাড়িতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তারা।

বিষয়টি জানতে পেরে রনিকে সহকারী প্রকৌশলী আশরাফুল আলমের মাধ্যমে মঙ্গলবার বিকেলে ডেকে পাঠান। রনি মঙ্গলবার বিকেল ৫টা ২০ মিনিটের দিকে নির্বাহী প্রকৌশলীর কক্ষে যান। সেখানে যাওয়ার পর নির্বাহী প্রকৌশলী আবদুল আহাদ ‘তুই-তোকারি’ করে রনিকে ধাক্কা দিয়ে চেয়ার থেকে ফেলে দেন। এরপর বুকের ওপর পা দিয়ে চেপে ধরেন এবং গলাটিপে ধরে শ্বাসরোধে হত্যার চেষ্টা করেন। একইসঙ্গে জবাই করার হুমকি দেন বলেও লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেন রনি।

নির্বাহী প্রকৌশলী আবদুল আহাদ বলেন, নদী ভাঙনসহ নানা ঝামেলার মধ্যে রয়েছি। এরমধ্যে তারা নিজ নিজ দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করেন না। রনি অনেক দিন ধরে আমার নির্দেশনা মানেন না। আমার কক্ষে কথা বলার একপর্যায়ে আমি টেম্পার ধরে রাখতে পারিনি। এ কারণে তাকে গালাগাল ও শারীরিকভাবে আঘাত করেছি। যা আমার ঠিক হয়নি। আমি ভুল স্বীকার করছি।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com