বরের আগেই কনের বাড়িতে ইউএনও

প্রকাশ: ২৬ নভেম্বর ২১ । ১৮:৩৫ | আপডেট: ২৬ নভেম্বর ২১ । ১৮:৩৫

নাসিরনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি

নবম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর বাল্যবিয়ে আটকে দিয়েছেন ইউএনও ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হালিমা খাতুন। ছবি: সমকাল

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলার ফান্দাউক ইউনিয়নের ফান্দাউক গ্রামে শুক্রবার নবম শ্রেণির এক শিক্ষার্থীর বাল্যবিয়ে আটকে দিয়েছেন ইউএনও ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হালিমা খাতুন পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ফান্দাউক গ্রামের এক নবম শ্রেণির ছাত্রীর সঙ্গে হবিগঞ্জ জেলার দুবাই প্রবাসী পাত্রের বিয়ের দিন ধার্য ছিল। খবর পেয়ে কনের বাড়িতে বরযাত্রী উপস্থিত হওয়ার আগেই নাসিরনগর ইউএনও ভ্রাম্যমাণ আদালত নিয়ে বিয়ে বাড়িতে উপস্থিত হন। পরে কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে দেখা যায় ওই শিক্ষার্থী স্থানীয় একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নবম শ্রেণির ছাত্রী। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত ২০১৭ সালের ৮ ধারায় কনের পিতাকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করার পাশাপাশি ওই শিক্ষার্থীকে ১৮ বছরের আগে বিয়ে দেবেন না মর্মে মুচলেকা আদায় করেন।

ইউএনও হালিমা খাতুন বলেন, বাল্যবিয়ের খবর পেয়ে কনের বাড়িতে উপস্থিত হই। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে অপ্রাপ্ত বয়স্ক মেয়ের বিয়ের আয়োজন করায় কনের বাবাকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা ও মুচলেকা আদায় করা হয়।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com