১০ মাসে স্বামীর হাতে খুন ১৯৭ নারী: আসক

প্রকাশ: ২৬ নভেম্বর ২১ । ২০:২৮ | আপডেট: ২৬ নভেম্বর ২১ । ২০:২৮

সমকাল প্রতিবেদক

চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে অক্টোবর পর্যন্ত ১০ মাসে স্বামীর হাতে খুন হয়েছেন ১৯৭ জন নারী। পারিবারিক সহিংসতার কারণে আত্মহত্যা করেছেন ১২৮ নারী। এছাড়া, ধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক হাজার ১৭৮ জন নারী। 

আইন ও সালিশ কেন্দ্রের (আসক) এক পরিসংখ্যানে এ তথ্য জানা যায়।

বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবস উপলক্ষে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এসব তথ্য জানিয়েছে সংস্থাটি।

বিবৃতিতে বলা হয়, ধর্ষণের শিকার ১ হাজার ১৭৮ নারীর মধ্যে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হন ২২০ জন। ধর্ষণের পর হত্যা করা হয় ৪৩ নারীকে। ধর্ষণচেষ্টার ঘটনা ঘটে ২৭৬টি এবং আত্মহত্যা করেছেন ৮ নারী।

আসকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, বিগত ১০ মাসে যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন ১১৬ নারী, যার মধ্যে আত্মহত্যা করেছেন ১০ জন নারী। যৌতুককে কেন্দ্র করে শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন ১০১ নারী। নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে ৬৩ জনকে। অ্যাসিড নিক্ষেপের শিকার হয়েছেন ২০ জন।

বিবৃতিতে সংস্থাটির কর্মকর্তারা বলেন, সহিংসতার এমন চিত্রের বিপরীতে আমরা প্রত্যক্ষ করি খুব কমসংখ্যক ঘটনার ক্ষেত্রে মামলা হচ্ছে, বিচার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে এবং ন্যায়বিচার পাওয়া গেছে। নারীর প্রতি সহিংসতার এমন চিত্রের মূল কারণ বৈষম্য ও পুরুষতান্ত্রিক মানসিকতা। দেশের নানা ক্ষেত্রে উন্নয়ন ঘটলেও এই মানসিকতা বাংলাদেশের সমাজে এখনও ভয়ানক মাত্রায় রয়ে গেছে। এছাড়াও, বিদ্যমান আইন ও বিচারিক কাঠামো এখনও নারীবান্ধব নয় এবং নারীর জন্য সহজগম্য নয়। এসব কাঠামো নারীর অধিকারের প্রতি সংবেদনশীল না হওয়ায় নারীরা আইনের আশ্রয় নেওয়ার ক্ষেত্রে বাধা পান, নিরুৎসাহিত হন।

নারী নির্যাতন প্রতিরোধ দিবসে নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধে ও ন্যায়বিচার সুনিশ্চিত করতে আসক 'ভুক্তভোগী ও সাক্ষী সুরক্ষা আইন' প্রণয়নের দাবি জানায়।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com