ভাগ্নের বিয়েতে বস্তাভর্তি রুপি উপহার তিন মামার

প্রকাশ: ২৭ নভেম্বর ২১ । ১৩:৩১ | আপডেট: ২৭ নভেম্বর ২১ । ১৩:৩১

অনলাইন ডেস্ক

বিয়ের অনুষ্ঠানকে ঘিরে নানা দেশে বিভিন্ন ধরনের রীতি প্রচলিত আছে। বিয়ের উপহার নিয়েও আছে নানা প্রচলন। ভারতের রাজস্থানে বিয়ের উৎসবের অন্যতম রীতি হচ্ছে 'মায়রা'।  ভাগ্নে বা ভাগ্নির বিয়েতে মামা তার বোনের ছেলেমেয়েকে মায়রা দেন। এর অর্থ হলো মামারা ভাগ্নে-ভাগ্নিকে কাপড়চোপড় এবং যা কিছু বোনের পরিবারের জন্য ভালো তাই উপহার দেন। রাজস্থানের নাগাউর জেলা আবার মায়রার জন্য আলাদাভাবে বিখ্যাত। সম্প্রতি সেখানকার দেশওয়ার গ্রামে দেখা গেল চমকে দেওয়া এক কাণ্ড। ভাগ্নের বিয়েতে বস্তাভর্তি রুপি নিয়ে হাজির হলেন তিন মামা। সেই টাকা গুনতে সময় লাগলো টানা তিন ঘণ্টা।

ভারতীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মায়রা উৎসবের জন্য কৃষক পরিবারটি গত আড়াই বছর ধরেই টাকা জমাচ্ছিলেন। ভাগ্নের বিয়ের দিন সেই টাকা = বস্তায় নিয়ে বিয়ের আসরে হাজির হন তিন মামা। বস্তার সব টাকাই ছিল ১০ রুপির নোট। সেখানে মোট ছিল ৬ লাখ ১৫ হাজার রুপি। এই টাকা গুনতে ৩ ঘণ্টারও বেশি সময় লেগে যায় সবার। মায়রা দানের এই ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সামাজিক মাধ্যম।

নাগাউর জেলার দেশবাল গ্রামের বাসিন্দা সিপু দেবী।  ওইদিন সিপু দেবীর ছেলে হিম্মতরামের বিয়ে ছিল। হিম্মতের বিয়েতে সিপু দেবীকে চমকে দেওয়া মায়রা দান করেছেন তার তিন ভাই ডোগানার নিবাসী রামনিবাস জাট, কানারাম জাট এবং শোতানরাম জাট। জানা গেছে, তিন মামার মায়রা ৬ লাখ ১৫ হাজার রুপি তিন ঘণ্টা ধরে গোনেন ৮ জন।

রাজস্থানে, ভাগ্নে বা ভাগ্নের বিয়েতে, মামা তার বোনের মাইরা পূরণ করেন। এই ঐতিহ্য বহু শতাব্দী ধরে চলে আসছে। মুঘল শাসনামলে, নারীরা 'মায়রা' উৎসবে লোকগানও করতেন।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com