দ. আফ্রিকা-ফেরত ৭ প্রবাসীর বাড়িতে লাল নিশান

প্রকাশ: ৩০ নভেম্বর ২১ । ১৯:০৮ | আপডেট: ৩০ নভেম্বর ২১ । ১৯:৫৪

নিজস্ব প্রতিবেদক, ব্রাহ্মণবাড়িয়া: কসবা ও বাঞ্ছারামপুর প্রতিনিধি

কসবায় দক্ষিণ আফ্রিকা ফেরত এক প্রবাসীর বাড়িতে লাল নিশান।

দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত হওয়া করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন ঠেকাতে দেশটি থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আসা সাত প্রবাসীর বাড়িতে সতর্কতামূলক লাল নিশান টানিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। এছাড়া প্রত্যেককে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি ওই সব প্রবাসীর বাড়িতে হোম কোয়ারেন্টাইন লেখা যুক্ত স্টিকারও ঝুলিয়েছে প্রশাসন। 

মঙ্গলবার পুলিশের সহায়তায় স্বাস্থ্য বিভাগের লোকজন প্রবাসীদের বাড়িতে লাল নিশান, স্টিকার ঝুলানো এবং তাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠায়। এর আগে  সোমবার সন্ধ্যায় জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির এক জরুরি সভায় নিশান টানানো ও হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়েছিল। 

জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ওই জরুরি সভায় উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনিসুর রহমান, সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ একরাম উল্লাহ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল-মামুন সরকার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি রিয়াজউদ্দিন জামি প্রমুখ।

বাঞ্ছারামপুরে দক্ষিণ আফ্রিকা  থেকে আসা প্রবাসীর বাড়িতে লাশ নিশান।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে জানানো হয়, সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে সাত প্রবাসী ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নিজ বাড়িতে ফিরেছেন। এদের মধ্যে কসবা উপজেলায় পাঁচ জন, নবীনগর উপজেলায় একজন ও বাঞ্ছারামপুরে একজন রয়েছেন। মঙ্গলবার তাদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে সিভিল সার্জন মোহাম্মদ একরাম উল্লাহ বলেন, সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে সাত জন প্রবাসী তাদের নিজ বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া ফিরেছেন। এদের মধ্যে কসবা উপজেলার সৈয়দাবাদ গ্রামের দু’জন, খাড়েরা গ্রামের তিন জন, নবীনগর উপজেলার শিকানিকা গ্রামের একজন ও বাঞ্ছারামপুর উপজেলার থোল্লাকান্দি গ্রামের একজন রয়েছেন। মঙ্গলবার সকালে ওইসব প্রবাসীদেরকে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করে তাদের বাড়িতে স্টিকার লাগানো হয়েছে। এছাড়াও সংক্রমণ ঠেকাতে আখাউড়া স্থলবন্দরে স্ক্রিনিং জোরদার করা হয়েছে।

দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আসা এক প্রবাসীর বাড়িতে লাল নিশান। 

উল্লেখ্য, গত সপ্তাহের মাঝামাঝিতে দক্ষিণ আফ্রিকায় করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রন শনাক্ত হয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে এই ধরনটি খুব উচ্চ সংক্রামক। আর শনাক্তের পর থেকে বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন দেশ ওমিক্রন যেন ছড়িয়ে না পড়তে পারে সেজন্য কঠোর বিধি-নিষেধ আরোপ করছে। কোনো কোনো দেশ দক্ষিণ আফ্রিকাসহ এর আশপাশের কয়েকটি দেশের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছে। 

বাংলাদেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ও দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে বিমান যোগাযোগ স্থগিত করেছে। আর সতর্কতার অংশ হিসেবে যারা ইতোমধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে দেশে এসেছেন তাদের বাড়ি শনাক্ত করে লাল নিশান টানানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। যদিও মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক জানিয়েছেন, আফ্রিকা থেকে দেশে আসা ২৪০ জনের কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com