বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশে নেতারা

খালেদা জিয়াকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেবেন না

প্রকাশ: ৩০ নভেম্বর ২১ । ২২:১৭ | আপডেট: ৩০ নভেম্বর ২১ । ২২:১৭

অনলাইন ডেস্ক

চট্টগ্রাম নগরীর বাকলিয়ায় কেভি কনভেনশন হলের মাঠে বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন- সমকাল

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর দাবিতে মঙ্গলবার সারাদেশে বিভাগীয় সমাবেশ করেছে বিএনপি। এসব সমাবেশে দলের কেন্দ্রীয় নেতারা বলেন, প্রতিহিংসার কারণে খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজা দেওয়া হয়েছে। আজ তিনি মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন। তাকে হত্যার পরিকল্পনা করেছে সরকার। এ জন্য তাকে বিদেশে নিয়ে চিকিৎসার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না। সরকারকে উদ্দেশ করে তারা আরও বলেন, খালেদা জিয়াকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেবেন না। তার চিকিৎসা নিয়ে ঠাট্টা করার দুঃসাহস দেখাবেন না। খালেদা জিয়ার কিছু হলে দেশে যে পরিস্থিতি তৈরি হবে তা থামানো যাবে না।

বিকেলে চট্টগ্রাম নগরীর বাকলিয়ায় কেভি কনভেনশন হলের মাঠে বিভাগীয় সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম, চট্টগ্রাম নগর বিএনপির আহ্বায়ক ডা. শাহাদাত হোসেন, সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর প্রমুখ।

ড. খন্দকার মোশাররফ বলেন, খালেদা জিয়া বিদেশে গিয়ে চিকিৎসা করতে পারবেন না- এই শর্তে তার সাজা অস্থায়ীভাবে স্থগিত করা হয়েছে। এই শর্ত মানবাধিকারবিরোধী শর্ত; মানুষের মৌলিক অধিকারকে খর্ব করার শর্ত।

খুলনা নগরীর কে ডি ঘোষ রোডের দলীয় কার্যালয় চত্বরে আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। বিশেষ অতিথি ছিলেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই চন্দ্র রায় ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মশিউর রহমান। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন খুলনা মহানগর বিএনপির সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু। বক্তব্য দেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সৈয়দ মেহেদী রুমী, দলের তথ্যবিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল, সহসাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিত ও জয়ন্ত কুমার কুণ্ডু, খুলনা জেলা বিএনপির সভাপতি শফিকুল আলম মনা, সাধারণ সম্পাদক আমীর এজাজ খান, মহানগর সাধারণ সম্পাদক মো. মনিরুজ্জামান মনি প্রমুখ।

এদিকে ফরিদপুর প্রেস ক্লাবের হলরুমে বিভাগীয় সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। ফরিদপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ ইসলাম রিংকুর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য দেন সাবেক চিফ হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুক, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জহুরুল শাহাজাদা মিয়া, সাবেক এমপি ইয়াসমিন আরা হক ও খন্দকার নাসিরুল ইসলাম, মহিলা দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নায়াব ইউসুফ আহমেদ প্রমুখ।

রাজশাহী নগরীর মালোপাড়ায় বিএনপির মহানগর কার্যালয়ের সামনে বিভাগীয় সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান। মহানগর বিএনপির সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু, সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, কেন্দ্রীয় সদস্য নাদিম মোস্তফা, সহসাংগঠনিক সম্পাদক শাহীন শওকত, কেন্দ্রীয় সদস্য আবু সাঈদ চাঁদ, আবু বাক্কার সিদ্দিক প্রমুখ।

সিলেট নগরীর ঐতিহ্যবাহী রেজিস্ট্রারি মাঠে বিভাগীয় সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী। সিলেট মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুল কাইয়ুম জালালী পংকির সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন ও যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেল। আরও বক্তব্য দেন সিলেট জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কামরুল হুদা জায়গীরদার, জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মিজানুর রহমান চৌধুরী, বিএনপির সিলেট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. সাখাওয়াত হোসেন জীবন প্রমুখ।

রংপুর নগরীর গ্র্যান্ড হোটেল মোড় এলাকায় আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু। রংপুর মহানগর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সামসুজ্জামান সামুর সভাপতিত্বে প্রধান বক্তা ছিলেন দলের কেন্দ্রীয় কমিটির রংপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুল হাবীব দুলু। বিশেষ অতিথি ছিলেন রংপুর বিভাগীয় সহসাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল খালেক, যুবদল কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি রুহুল আমিন আকিল প্রমুখ।

ময়মনসিংহ নগরীর নতুন বাজারের দলীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। মহানগর বিএনপির সভাপতি অধ্যাপক এ কে এম শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য দেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স প্রমুখ।

এদিকে মঙ্গলবার বরিশালে বিভাগীয় সমাবেশ হয়নি। সমাবেশের প্রধান অতিথি দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস অসুস্থ থাকায় তা পিছিয়ে ৩ ডিসেম্বর দিন নির্ধারণ করা হয়েছে বলে বরিশাল মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব মীর জাহিদুল কবির জানিয়েছেন।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com