খালেদা জিয়ার আবার রক্তক্ষরণ হলে তিনি বাঁচবেন না: মির্জা ফখরুল

প্রকাশ: ০৩ ডিসেম্বর ২১ । ১৩:২৯ | আপডেট: ০৩ ডিসেম্বর ২১ । ১৭:০৬

সমকাল প্রতিবেদক

‘লিভার সিরোসিসে’ আক্রান্ত সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানো তার ‘নাগরিক অধিকার’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। 

তিনি বলেন, ‘আমরা চাচ্ছি, দেশনেত্রীকে বিদেশে পাঠানোর সুযোগ দেন। তার চিকিৎসা করার সুযোগ দেন। এটা কোনো দয়ামায়া,মহানুভবতা বা মানবিক ব্যাপার নয়। এটা তার  নাগরিক অধিকার।’

আদালতের রায়ে ১৭ বছর কারাদণ্ডে দণ্ডিত খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসা নেওয়ার সুযোগ নেই- সরকারের শীর্ষ মন্ত্রীরা এমন মন্তব্য করলে তার জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আপনারা বলছেন, তিনি সাজাপ্রাপ্ত। কিন্তু সাজাপ্রাপ্ত হলেও তিনি তো দেশের নাগরিক। তার তো অধিকার আছে চিকিৎসা করার।’ 

সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কারামুক্তি ও বিদেশে সুচিকিৎসার দাবিতে জাতীয়তাবাদী কৃষক দলের উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধনে শুক্রবার সকালে এসব কথা বলেন তিনি। 

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘দেশনেত্রীকে মিথ্যা মামলা দিয়ে, তিলে তিলে, অত্যন্ত সচেতনভাবে হত্যা করা হচ্ছে। এ কথা বারবার বলেছি। পৃথিবীর অন্যান্য দেশগুলো জানে।  আমাদের দেশে অন্যান্য রাজনৈতিক দল, বিভিন্ন সংগঠন, বুদ্ধিজীবী সবাই বলছেন, কেউ বাকি নেই...সবাই বলছেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে বাইরে চিকিৎসা করার সুযোগ দেন।’

খালেদা জিয়াকে দেশের বাইরে নিয়ে চিকিৎসা করার যৌক্তিকতা তুলে ধরে তিনি বলেন, তার রক্তক্ষরণ হচ্ছে। লিভার সিরোসিস অত্যন্ত মারাত্মক রোগ। এদেশে তার যথাযথ চিকিৎসা নাই। এটা যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও জার্মানিতে হয়। তার যদি আবার রক্তক্ষরণ হয় তবে তিনি বাঁচবেন না। তাই আমাদের দাবি, তাকে বিদেশে নিয়ে চিকিৎসার সুযোগ দেওয়া হোক।’

খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক সংগ্রামের কথা তুলে ধরে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আমরা বিশ্বাস করি, এটা প্রমাণিত যে, খালেদা জিয়া ও গণতন্ত্র অবিচ্ছেদ্য। এটা আলাদা করা যায় না। এদেশে কজন নেতা আছেন, যারা কারাগারে থেকে, হাসপাতালে থেকে দেশের জন্য সংগ্রাম করছেন। খালেদা জিয়া মাথা নুয়াননি। তিনি মানুষের অধিকারের জন্য সংগ্রাম করছেন। তাই তার অধিকার হচ্ছে চিকিৎসা পাওয়ার। আমাদের অধিকার হচ্ছে, ভোটের অধিকার ফিরে পাওয়ার, গণতন্ত্র ফিরে পাওয়ার।’

গণতন্ত্র বাঁচাতে না পারলে দেশ অস্তিত্ব সঙ্কটে পড়বে বলেও মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল। 

তিনি বলেন,‘আজকে যদি খালেদা জিয়াকে সরকার বিদেশে না পাঠায়, যদি আমরা গণতন্ত্রকে রক্ষা করতে না পারি তাহলে এ দেশের অস্তিত্ব বিলুপ্ত হয়ে যাবে।’

গণতন্ত্র রক্ষার আন্দোলনে তরুণদের শরিক হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমাদের দায়িত্ব হল, আজ আমাদের জেগে উঠতে হবে। দুরাত্মা, দুঃশাসনকে পরাজিত করে সত্যিকার অর্ধে ন্যায়,সত্য সুন্দর ও মুক্ত গণতন্ত্রের রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে হবে।’

কৃষক দলের সভাপতি কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবুলের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নীরব, সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।


© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com