ঢাকা টেস্টে জয়খরা কাটাতে চায় বাংলাদেশ

প্রকাশ: ০৩ ডিসেম্বর ২১ । ১৯:৩৫ | আপডেট: ০৩ ডিসেম্বর ২১ । ১৯:৩৫

স্পোর্টস ডেস্ক

ঢাকা টেস্টের আগে উজ্জীবিত বাংলাদেশ। ছবি-বিসিবি

দুই ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে আগামীকাল শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে পাকিস্তানের মুখোমুখি হবে স্বাগতিক বাংলাদেশ। এই টেস্টে ইনজুরি থেকে সেরে ওঠা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে পাবে বাংলাদেশ। আইসিসি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের নতুন আসরে চট্টগ্রামে সিরিজের প্রথম টেস্ট আট উইকেটে হেরেছে বাংলাদেশ। 

প্রথম টেস্টে লিটন, মুশফিক এবং তাইজুল ভালো করলেও সফরকারীদের বিরুদ্ধে বড় পরাজয় এড়াতে পারেনি। তবে ইনজুরির কারণে প্রথম টেস্ট মিস করা সাকিব আল হাসানকে দ্বিতীয় টেস্টে পাচ্ছে বাংলাদেশ। ফলে এই টেস্ট জিতে সিরিজ ড্র করতে চায় বাংলাদেশ। 

চট্টগ্রামে ম্যাচের প্রথম ইনিংস টেস্ট ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরির দেখা পান লিটন দাস। মুশফিকুর রহিম করেন ৯১ রান। দু'জনের ব্যাটিংয়ের সাথে বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম ১১৬ রানের বিনিময়ে সাত উইকেট শিকার করেন। কিন্তু প্রথম ইনিংসে তাদের ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স দলের কোন উপকারে আসেনি। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যটাররা ব্যর্থ হওয়ায় সহজ জয় পায় পাকিস্তান। প্রথম ইনিংসে লিড পেলেও ম্যাচ জয়ের আত্নবিশ্বাসে ঘাটতি ছিল টাইগারদের। মুশফিক-লিটন ও তাইজুল ছাড়া স্বাগতিক দলের ব্যাটিং-বোলিংয়ে ঘাটতি ছিলো চোখে পড়ার মত। যে কারণে সাকিবের অনুপস্থিতি ব্যাপকভাবে ফুটে উঠে।

চট্টগ্রাম টেস্টে টপ অর্ডার ব্যাটারদের পারফরম্যান্স বড় ক্ষতি করে বাংলাদেশের। প্রথম ইনিংসে ৪৯ রানে এবং দ্বিতীয় ইনিংসে ৩৯ রানে ৪ উইকেট হারায়  বাংলাদেশ। সুবিধাজনক অবস্থানে থাকার পরও এটাই ছিল বাংলাদেশের হারের পেছনে প্রধান কারণ। অধিনায়ক মুমিনুল হকের মতে, তার ও টপ অর্ডারেরও ব্যর্থতাও এটির অংশ ছিলো।

মুমিনুল জানান, বাংলাদেশ যদি সবকিছু ঠিকঠাক করতে না পারে, তাহলে টেস্ট সিরিজে তাদের কামব্যাক করার কোনো উপায় নেই। দ্বিতীয় টেস্টে ভালো পারফরম্যান্সের জন্য প্রথম ম্যাচের ভূলগুলো সংশোধন করতে আগ্রহী দল।

সাকিব ছাড়াও ঢাকা টেস্টে পেসার তাসকিন আহমেদের সার্ভিস পাচ্ছে বাংলাদেশ। চট্টগ্রাম টেস্টে তাসকিনের পেসকে মিস করেছিলো দল। পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে ডান হাতের ইনজুরিতে পড়ায়  শেষ মুর্হূতে টেস্ট দল থেকে বাদ পড়েন তাসকিন।

সাকিব ও তাসকিনের দলে ফেরার অর্থ হলো, একাদশে বেশ কিছু পরিবর্তন আনতে হবে বাংলাদেশকে। দুই ইনিংসে ব্যর্থ ওপেনার সাইফ হাসান অসুস্থতার কারণে দল থেকে বাদ পড়েছেন। বাংলাদেশ ইতোমধ্যেই টি-টোয়েন্টি স্পেশালিস্ট নাইম শেখকে দলে ডেকেছে। আছেন নতুন মুখ মাহমুদুল হাসান জয়ও । ইনিংস শুরু করার সামর্থ্য তার আছে। তাই দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে মূলত তিনটি পরিবর্তন আনতে হবে বাংলাদেশকে।

পাকিস্তানের বিপক্ষে ১০টি টেস্ট খেলেছে বাংলাদেশ। সবগুলোই জিতেছে পাকিস্তান। এরমধ্যে ১টি টেস্ট ড্র হয়। সর্বশেষ ২০১৫ সালে বাংলাদেশ সফরে দ্বিপাক্ষীক সিরিজে  একটি টেস্ট ড্র হয়েছিলো।

বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত ১২২টি টেস্ট খেলেছে, জিতেছে ১৪টিতে, হেরেছে ৯২টিতে। এরমধ্যে ৪৩টি ম্যাচে ইনিংস ব্যবধানে হারে। বাকী ১৬ টেস্ট ড্র করেছে।

ঢাকা টেস্টের জন্য বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ: 

সাদমান ইসলাম, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, লিটন কুমার দাস, ইয়াসির আলী, মেহেদি হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, ইবাদত হোসেন।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com