রামপুরায় মাঝরা‌তে হাজা‌রো মানুষ কোথা থে‌কে এলো, প্রশ্ন কা‌দেরের

প্রকাশ: ০৪ ডিসেম্বর ২১ । ১৪:৫৯ | আপডেট: ০৪ ডিসেম্বর ২১ । ১৪:৫৯

সমকাল প্রতি‌বেদক

ওবায়দুল কাদের -ফাইল ছবি

রামপুরায় অনাবিল পরিবহনের বাসের চাপায় শিক্ষার্থী মাঈনউদ্দিন দুর্জয় নিহত হওয়ার ১০-১২ মিনিটের মধ্যে হাজার হাজার মানুষ কোথা থেকে এসে বাস ভাঙচুর করল, বাসে আগুন দিল- এ প্রশ্ন তু‌লে‌ছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় মানিক মিয়া এভিনিউয়ে সড়ক নিরাপত্তা ও গণসচেতনতামূলক কর্মসূচিতে তিনি ব‌লেন, 'কারা ফেসবু‌কে ভি‌ডিও দিল, কারা লাইভ করল, এসব প্রশ্ন আস‌ছে।' 

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কা‌দের বলেন, ''সড়ক নিরাপদ করতে কর্মতৎপরতা চলমান রয়েছে। সড়ক পরিবহন আইন করা হয়েছে। মহাসড়কে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদসহ শৃঙ্খলা ফেরাতে 'মহাসড়ক বিল' পাস করা হয়েছে। সড়ক নিরাপদ করতে একটি কর্মসূচিতে বিশ্ব ব্যাংক সহায়তা করছে।''

মন্ত্রী আরও ব‌লেন, 'বিআরটিএর যতো জনবল দরকার তা নেই। তারপরও চেষ্টা করে যাচ্ছি।'

ওবায়দুল কা‌দের ব‌লে‌ছেন, 'সড়কে দুর্ঘটনা কাম্য নয়, দুঃখজনক। রামপুরায় দুর্ঘটনার পর বিভিন্ন অভিযোগ উঠেছে, প্রশ্ন উঠেছে। দুর্ঘটনার ১০-১২ মিনিট পর হাজার হাজার মানুষ কোথা থেকে এলো? এত রাতে দুর্ঘটনার খবর ১০-১২ মিনিটের মধ্যে কীভাবে ছড়াল! বিভিন্ন প্রশ্ন থাকার পরও দুর্ঘটনা এড়াতে উদ্যোগ নেওয়া হ‌য়ে‌ছে। শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়ার দা‌বি মে‌নে নেওয়া হ‌য়ে‌ছে।' 

গণসচেতনতা সৃ‌ষ্টি ক‌রে সড়‌কে দুর্ঘটনা হ্রা‌সের উদ্যোগ হি‌সে‌বে শনিবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে রাজধানীর মানিক মিয়া এভিনিউ, কলাবাগান মাঠ সংলগ্ন রাস্তা এবং কাকলি পুলিশ বক্স সংলগ্ন রাস্তায় একযোগে সড়ক নিরাপত্তামূলক রোড শো শুরু হয়। এ সময় স্টিকার ও লিফলেট বিতরণ করা হয়। 

সড়ক পরিবহন সচিব মো. নজরুল ইসলাম, বিআরটিএর চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ মজুমদারসহ উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা এ সময় উপ‌স্থিত ছি‌লেন।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com