কোভিডে চিকিৎসায় বিঘ্ন, ম্যালেরিয়ায় বাড়তি ৪৭ হাজার মানুষের মৃত্যু: ডব্লিউএইচও

প্রকাশ: ০৬ ডিসেম্বর ২১ । ১৮:০৩ | আপডেট: ০৬ ডিসেম্বর ২১ । ১৮:০৩

অনলাইন ডেস্ক

করোনা মহামারির কারণে বিশ্বব্যাপী ম্যালেরিয়ার চিকিৎসা ব্যাহত হয়েছে। ছবি: বিবিসি অনলাইন।

কোভিড-১৯ মহামারির কারণে ম্যালেরিয়া প্রতিরোধ ও চিকিৎসা সেবা ব্যাহত হয়েছে। আর এতে বিশ্বব্যাপী ২০২০ সালে ৪৭ হাজারের বেশি মানুষ ম্যালেরিয়ায় মারা গেছেন বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

ম্যালেরিয়া সংক্রান্ত বার্ষিক প্রতিবেদনে ডব্লিউএইচও বলেছে, ২০১৯ সালের তুলনায় ২০২০ সালে ম্যালেরিয়ায় ১৪ মিলিয়ন বেশি মানুষ আক্রান্ত ও ৬৯ হাজার বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। খবর বিবিসি অনলাইনের। 

করোনায় বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্য ব্যবস্থা বিপর্যস্ত হয়েছে এবং স্বাস্থ্যসেবায় বাড়তি চাপ তৈরি করেছে। যেসব দেশে ম্যালেরিয়া রোগ স্থানীয় বা সব সময় থাকে সেসব দেশের রোগীরা লকডাউন বা করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে দেওয়া বিভিন্ন বিধিনিষেধের কবলে পড়ে। কারণ লকডাউনে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা থাকায় প্রয়োজনের সময় মশারি বা ম্যালেরিয়ার চিকিৎসা নিতে সঠিক সময়ে হাসপাতালে যেতে পারেননি। 

সংস্থাটি বলছে, ২০২০ সালে মোট মৃত্যুর এক তৃতীয়াংশ বা বাড়তি ৪৭ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে মহামারি সংশ্লিষ্ট কারণে চিকিৎসা সেবা বিঘ্ন হয়ে। তবে সোমবারের প্রকাশিত প্রতিবেদনের সবটুকুই হতাশাজনক নয়। কারণ সংস্থাটি ২০২০ সালে আফ্রিকায় ম্যালেরিয়ায় মৃত্যুর পরিমাণ দ্বিগুণ হতে পারে বলে আশঙ্কা করেছিল। তবে কয়েকটি দেশ জরুরি ভিত্তিতে পদক্ষেপ নেওয়ায় তা ঠেকানো সম্ভব হয়েছে। যদিও দীর্ঘদিন চলা ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর প্রবণতা এখনো আশঙ্কজনক। ২০১৭ সালের পর ম্যালেরিয়া নির্মূল কার্যক্রম স্থবির হয়ে আছে। কারণ উল্লেখযোগ্য কমে আসার পরও ২০১০ সাল থেকে দীর্ঘ সাত বছর ম্যালেরিয়ায়  আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা একই রয়ে গেছে।    

এখন আবার করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ছে এবং তাতে আবারও ম্যালেরিয়ার চিকিৎসায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হচ্ছে। তাই ডব্লিউএইচও দেশগুলোর সরকারের প্রতি ম্যালেরিয়াবিরোধী কার্যক্রম জোরদারের আহ্বান জানিয়েছে। 


© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com