ফের পিছিয়েছে ওসি প্রদীপ দম্পতির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন

প্রকাশ: ০৬ ডিসেম্বর ২১ । ১৮:৪৭ | আপডেট: ০৬ ডিসেম্বর ২১ । ১৮:৫৪

চট্টগ্রাম ব্যুরো

প্রদীপ দম্পতি। ফাইল ছবি।

দুর্নীতি মামলায় টেকনাফ থানার বহিষ্কৃত ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও তার স্ত্রী চুমকির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন ফের পিছিয়েছে। সোমবার চট্টগ্রাম বিভাগীয় বিশেষ জজ মুন্সী আবদুল মজিদের আদালত এ সংক্রান্ত শুনানি পেছানোর আদেশ দেন। এর আগে ২১ নভেম্বর অভিযোগ গঠনের শুনানির দিন থাকলেও প্রথমবারের মতো তা পিছিয়ে যায়।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পিপি অ্যাডভোকেট মাহমুদুল হক মাহমুদ বলেন, আসামি প্রদীপ ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠন পিছিয়েছে। সোমবার অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যা মামলায় প্রদীপের কক্সবাজারে হাজিরা থাকায় এখানে উপস্থিত হতে পারেননি। তাই আদালত আগামী ১৫ ডিসেম্বর শুনানির জন্য নতুন তারিখ নির্ধারণ করেছেন।

এর আগে গত ২৬ জুলাই দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয় চট্টগ্রাম-২ এর সহকারী পরিচালক মো. রিয়াজ উদ্দিন অভিযোগপত্র দাখিল করেন। গত ১ সেপ্টেম্বর অভিযোগপত্রের ওপর শুনানি হয়েছিল। গত ২৯ জুন দুপুরে চট্টগ্রাম সিনিয়র স্পেশাল জজ ও মহানগর দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমানের আদালত আসামি প্রদীপের অবৈধ সম্পদ দেখভালের দায়িত্ব কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসককে দেন।

গত ২০ সেপ্টেম্বর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও দুদকের সহকারী পরিচালক মো. রিয়াজ উদ্দিনের করা আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে চট্টগ্রাম মহানগর সিনিয়র স্পেশাল দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমানের আদালত প্রদীপ ও তার স্ত্রী চুমকির বিরুদ্ধে দুদকের করা অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলাটির এজাহারে উল্লেখ থাকা সম্পদ ক্রোকের নির্দেশ দেন।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ২৩ আগস্ট দুদকের পরিচালক মো. রিয়াজ উদ্দিন বাদী হয়ে প্রদীপের অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করেন। মামলায় প্রদীপের সঙ্গে তার স্ত্রী চুমকিকেও আসামি করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে তিন কোটি ৯৫ লাখ ৫ হাজার ৬৩৫ টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন, সম্পদের তথ্য গোপন ও মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগ আনা হয়েছে। 


© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com