ওমিক্রনের সব মিউটেশনের বিরুদ্ধে অ্যান্টিবডি তৈরির ওষুধ কার্যকর: গবেষণা

প্রকাশ: ০৭ ডিসেম্বর ২১ । ১৯:৩২ | আপডেট: ০৭ ডিসেম্বর ২১ । ১৯:৩২

অনলাইন ডেস্ক

ব্রিটিশ ওষুধ তৈরিকারী প্রতিষ্ঠান গ্ল্যাক্সোস্মিথক্লাইন (জিএসকে) বলেছে, মার্কিন সহযোগী প্রতিষ্ঠান ভির বায়োটেকনোলজির সঙ্গে মিলে তাদের উদ্ভাবিত অ্যান্টিবডিভিত্তিক কোভিড-১৯ চিকিৎসায় ব্যবহৃত ওষুধ করোনার নতুন ধরন ওমিক্রনের সবগুলো মিউটেশনের বিরুদ্ধে কাজ করে। মঙ্গলবার ওমিক্রন নিয়ে প্রাথমিক পর্যায়ে করা একটি গবেষণায় পাওয়া নতুন তথ্যের বরাতে এই দাবি করেছে জিএসকে। 

গবেষণাপত্রটি এখনো কোনো পিয়ার-রিভিউ মেডিকেল জার্নালে প্রকাশিত হয়নি। ওই তথ্যের বরাতে জিএসকে এক বিবৃতিতে বলেছে, প্রতিষ্ঠান দুটির ‘সোট্রোভিম্যাব’ ওষুধটি স্পাইক প্রোটনে হওয়া ওমিক্রনের ৩৭টি মিউটেশনের বিরুদ্ধে কাজ করে। খবর রয়টার্সের।

গত সপ্তাতে অন্য আরেকটি প্রি-ক্লিনিক্যাল ডেটায় দেখা যায়, এই ওষুধটি ওমিক্রনের প্রধান মিউটেশনের বিরুদ্ধে কাজ করেছে। করোনাভাইরাসের সারফেসের স্পাইক প্রোটনকে আবদ্ধ করতে ওষুধটি তৈরি করা হয়েছিল। কিন্তু ওমিক্রনে দেখা গেছে স্পাইক প্রোটনে অস্বাভাবিকভাবে অনেকবার মিউটেশন ঘটেছে। 

জিএসকের প্রধান সায়েন্টিফিক অফিসার হ্যাল ব্যারন বলেন, ওই প্রি-ক্লিনিক্যাল ডেটা আমাদের মনোক্লোন্যাল অ্যান্টিবডি নতুন ধরন ওমিক্রন এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) এখন পর্যন্ত শনাক্ত করা উদ্বেগজনক অন্যান্য ধরনের বিরুদ্ধেও কার্যকরের সম্ভাব্যতা প্রমাণ করেছে। 



© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com