ফোরজি সেবায় অপারেটরদের মান সন্তোষজনক নয়: বিটিআরসি চেয়ারম্যান

প্রকাশ: ০৯ ডিসেম্বর ২১ । ১৮:৪৪ | আপডেট: ০৯ ডিসেম্বর ২১ । ১৮:৪৪

সমকাল প্রতিবেদক

ফোরজি সেবায় কোনো অপারেটরেরই সেবার মান ‘সন্তোষজনক নয়’ বলে জানিয়েছেন বিটিআরসির চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার। সম্প্রতি বিটিআরসির পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে এমন তথ্যই জানা গেছে।  

তিনি বলেন, ‘ফোরজি সেবায় এখন পর্যন্ত গুণগত মান পুরোপুরি নিশ্চিত হয়নি। এ বিষয়টি বিটিআরসিরও নজরে আছে। বিটিআরসি এরই মধ্যে ২২৭টি উপজেলায় ১২ হাজার ৮০০ কিলোমিটার এলাকায় মোবাইল অপারেটরতের সেবার গুণগত মান পরীক্ষা করেছে। পরীক্ষায় কোনো অপারেটরেই সন্তোষজনক সেবার মান পাওয়া যায়নি। সবচেয়ে বেশি কল ড্রপ পাওয়া গেছে গ্রামীণফোনের ক্ষেত্রে।’

বেসরকারি মোবাইল ফোন অপারেটরদের জন্য আগামী মার্চ মাসে বেতার তরঙ্গ নিলাম হবে। ২৩০০ মেগাহার্টজ, ২৬০০ মেগাহার্টজ এবং ৩৫০০ মেগাহার্টজ ব্যান্ডে এ নিলাম হবে।

বিটিআরসির চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার সাংবাদিকদের এ তথ্য দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি খাতের সাংবাদিকদের সংগঠন টিআরএনবির সদস্যদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ তথ্য দেন। 

মত বিনিময় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বিটিআরসি'র কমিশনার প্রকৌশলী মহীউদ্দিন আহমেদ, আবু সাঈদ দিলজার হোসাইন এবং এ কে এম শহীদুজ্জামান, টিআরএনবির সভাপতি রাশেদ মেহেদী এবং সাধারন সম্পাদক সমীর কুমার দে। 

অনুষ্ঠানে বিটিআরসির বিভিন্ন বিভাগের মহাপরিচালকরা উপস্থিত ছিলেন এবং সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।

বিটিআরসির চেয়ারম্যান জানান, আগামী ১২ ডিসেম্বরের মধ্যে রাষ্ট্রায়াত্ত মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিটক পরীক্ষামূলক ফাইভজি চালু করছে। আর বেসরকারি মোবাইল ফোন অপারেটরদের জন্য আগামী মার্চ মাসে বেতার তরঙ্গ নিলাম হবে। ২৩০০ মেগাহার্টজ, ২৬০০ মেগাহার্টজ এবং ৩৫০০ মেগাহার্টজ ব্যান্ডে এ নিলাম হবে। এর মধ্যে ২৩০০ মেগাহার্টজে ব্যান্ডে ৬৫ মেগাহার্টজ, ২৬০০ মেগাহার্টজ ব্যান্ডে ১০০ মেগাহার্টজ এবং ৩৫০০ মেগাহার্টজ ব্যান্ডে ৪০০ মেগাহার্টজ পরিমাণ বেতার তরঙ্গ বরাদ্দ দেওয়া হবে। 

শ্যাম সুন্দর জানান, এখন পর্যন্ত নিলামে বরাদ্দের ক্ষেত্রে মোবাইল অপারেটরদের জন্য ভিত্তি মূল্য নির্ধারণ করা হয়নি। 

তিনি বলেন, ‘কল ড্রপের বড় দুটি কারণ হচ্ছে গ্রাহকের তুলনায় অপর্যাপ্ত বেতার তরঙ্গ এবং বিটিএস টু বিটিএস ফাইবার অপটিক কেবল সংযোগের পরিমাণ অত্যন্ত কম থাকা। ফাইভজির জন্য বেতার তরঙ্গ নিলাম হলে অপারেটরদের বেতার তরঙ্গ সক্ষমতা বাড়বে। এর ফলে তখন ফোরজির সেবার মানও আরও উন্নত হবে। এছাড়া এনটিটিএন অপারেটরদের সঙ্গে মোবাইল অপারেটরদের দূরত্ব কমিয়ে মোবাইল টেলিযোগাযোগ সেবায় ফাইবার অপটিক কেবল সংযোগের পমিাণ বাড়াতেও প্রচেষ্টা চলছে। এছাড়া গুণমত মান নিশ্চিত করার জন্য বিটিআরসি নিয়মিত ড্রাইভ টেস্ট বা গুণমত মান পরীক্ষা করছে।’ 

বিটিআরসি চেয়ারম্যান জানান, পরীক্ষায় প্রাপ্ত ফলাফল অনুযায়ী অপারেটরদের ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দেওয়া হচ্ছে। একই সঙ্গে টিএমএস বা টেলি মনিটরিং সার্ভিস চালু করা হয়েছে। এর মাধ্যমে এখন থেকে মোবাইল অপারেটররা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কি পরিমাণ ভয়েস কল সেবা দিচ্ছে, কি পরিমাণ ইন্টারনেট প্যাকেজ সেবা দিচ্ছে, তা নিজস্ব প্রযুক্তিতেই বিটিআরসি জানতে পারবে। ফলে সেবার গুণমত মান বৃদ্ধি ছাড়াও অপারেটরদের রাজস্ব ফাঁকি দেওয়ারও কোনো সুযোগ থাকবে না। 

গ্রাহকদের সুবিধার্থে এখন থেকে কোনো অপারেটর ৮৫টির বেশি প্যাকেজ নির্ধারণ করতে পারবে না, এমন নির্দেশনাও ক’দিনের মধ্যে জারি করা হবে।

ফেসবুক থেকে আপত্তিকর কনটেন্ট সরানোর বিষয়েও কথা হয় বিটিআরসির চেয়ারম্যানের সঙ্গে।

তিনি বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে সরাসরি কনটেন্ট অপসারণের প্রযুক্তি বর্তমানে কোনো দেশেরই নেই। প্রতিটি দেশকেই ফেসবুক কিংবা গুগলের মত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যমে আপত্তিকর কনটেন্ট সরাতে হয়। তবে সরাসরি কনটেন্ট সরানোর দু একটি প্রযুক্তি এরই মধ্যে উদ্ভাবিত হয়েছে, এমন তথ্যও বিটিআরসির কাছে এসেছে। বিটিআরসি সেগুলোর সন্ধান করছে। যত দ্রুত সংগ্রহ করা সম্ভব হবে বিটিআরসি তা সংগ্রহ করবে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com