চট্টগ্রামে রেলক্রসিংয়ে দুর্ঘটনা:অটোরিকশাকে ধাক্কা দেওয়া বাস চালক গ্রেপ্তার

প্রকাশ: ০৯ ডিসেম্বর ২১ । ১৯:৩৬ | আপডেট: ০৯ ডিসেম্বর ২১ । ১৯:৩৬

চট্টগ্রাম ব্যুরো

বাস চালক শহীদুল আলম। ছবি-সংগৃহীত

চট্টগ্রাম নগরে রেলক্রসিংয়ে ডেমু ট্রেনের সঙ্গে তিন গাড়ির সংঘর্ষের ঘটনায় বাস চালক শহীদুল আলমকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। 

বৃহস্পতিবার সকালে মিরসরাই উপজেলার সাহেরখালী এলাকার বেড়িবাঁধ এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার শহীদুল আলম একই উপজেলার পশ্চিম খইয়াছড়া গ্রামের মৃত ওবাইদুল হকের ছেলে।

গত ৪ ডিসেম্বর শনিবার সকালে নগরের জাকির হোসেন সড়কে ঝাউতলা রেলক্রসিং এলাকায় ডেমু ট্রেনের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় বাস, অটোরিকশা ও টেম্পোর। এতে ট্রাফিক পুলিশের এক কনস্টেবলসহ তিনজন মারা যান।

র‌্যাব জানিয়েছে, ট্রেন যাওয়ার সময় রেললাইনের কাছে দাঁড়িয়ে থাকা সিএনজি অটোরিকশাকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয় শহীদুলের বাস। এতে অটোরিকশাটি ছিটকে গিয়ে ট্রেনের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। একইসঙ্গে একটি হিউম্যান হলারের সঙ্গেও ট্রেনের ধাক্কা লাগে।

র‌্যাবের সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট নিয়াজ মোহাম্মদ চপল জানান, দুর্ঘটনার পর থেকেই পালিয়ে ছিলেন বাস চালক শহীদুল। প্রথমে সে পালিয়ে ঢাকায় যায়। সেখানে কয়েকদিন থাকার পর মিরসরাইয়ে সাহেরখালী উপকূলীয় এলাকায় তার আত্মীয়ের বাড়িতে আত্মগোপনে ছিলেন। তার গতিবিধি নজরদারিতে রেখে বৃহস্পতিবার ভোরে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গত শনিবার নাজিরহাট থেকে ডেমু ট্রেনটি চট্টগ্রাম স্টেশনের দিকে যাচ্ছিল। ট্রেনটি রেলক্রসিং অতিক্রম করার সময় এক পাশের লোহার বার ফেলা ছিল। অপর পাশ ছিল খোলা। এ সময় জিইসি মোড় থেকে আসা দ্রুতগামী একটি বাস দাঁড়িয়ে থাকা একটি অটোরিকশা ও একটি টেম্পোকে ধাক্কা দিলে  ট্রেনের ওপর আছড়ে পড়ে। এতে তিনজনের মৃত্যু হয়। আহত হয় আটজন। 

দুর্ঘটনার পর বাসচালককে মূল আসামি করে মামলা হয়। তবে ঘটনার পর থেকে বাসচালক পালিয়ে যায়। গত রোববার ক্রসিংয়ের গেটম্যান আলমগীর ভুঁঈয়াকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।


© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com