প্রতিদ্বন্দ্বিতা যেন প্রতিহিংসায় রূপ না নেয়: ইসি কমিশনার কবিতা খানম

প্রকাশ: ১৩ ডিসেম্বর ২১ । ০১:১৯ | আপডেট: ১৩ ডিসেম্বর ২১ । ০১:১৯

নওগাঁ প্রতিনিধি

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিশৃঙ্খলা করলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার (ইসি) কবিতা খানম।

তিনি বলেন, ‘মারামারি কোনো দিনই কাম্য নয়। মারামারি হলে কেউ না কেউ আহত কিংবা নিহত হয়। কারও পরিবার নিঃস্ব হোক জনপ্রতিনিধি হিসেবে কেউ চাইবে না। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা যেন প্রতিহিংসায় রূপ না নেয় সেভাবে আচরণ করুন। নির্বাচনে কোনো প্রকার বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের ছাড় দেওয়া হবে না। দেখা হবে না সে কোন দলের। নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে সব ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। নির্বাচনের আগে, নির্বাচনের দিন ও পরের দুই দিন নির্বাচনী এলাকায় ম্যাজিষ্ট্রেট, র‌্যাব, বিজিবি, পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন থাকবে। নির্বাচনী আচরণ বিধি মেনে চলতে হবে সবাইকে।’

রোববার রাতে নওগাঁ জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে চতুর্থ ধাপে অনুষ্ঠিতব্য ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আত্রাই, মহাদেবপুর ও ধামইরহাট উপজেলার প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী চেয়ারম্যান প্রার্থীদের সঙ্গে মতবিনিময়সভায় তিনি এসব কথা বলেন। 

প্রার্থীদের সহনশীল আচরণ করার আহ্বান জানিয়ে কবিতা খানম বলেন, ‘যখন কোনো কিছুতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয় সেখানে জয়-পরাজয় থাকে। জয়ের আশা যেমন করবেন, আবার পরাজিত হলে সেটা মেনে নেওয়ারও মানসিকতা থাকতে হবে। অসহিষ্ণু হলে বিশৃঙ্খলা বাড়বে। আপনারা নিজেদেরকে আইনের মধ্যে রাখুন। আচরণবিধি মেনে প্রচারণা চালাতে হবে।’ 

ভোটের পরিবেশ সুষ্ঠু রাখতে প্রার্থীদের সহযোগিতা কামনা করে তিনি আরও বলেন, ‘পাল্টাপাল্টি অভিযোগ না করে, ভোটের পরিবেশ যাতে সুষ্ঠু থাকে, প্রত্যেকে যাতে প্রচার-প্রচারণায় অংশ নিতে পারে, সেইটা মেনে চলেন। নিজেদের বিরুদ্ধে অভিযোগ না করে ভোটারদের আকর্ষণ করুন। আপনাদের পক্ষে যাতে ভোট দেন সেইভাবে প্রচারণা চালান। কাউকে জোর করে ভোট নিতে পারবেন না। তাদের মন জয় করে ভোট নিতে হবে। আপনারা ভোটারদের বলেন, পরিবেশ সুষ্ঠু থাকবে আপনারা ভোটকেন্দ্রে আসুন। শুধু নির্বাচন কমিশন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নয়, আপনারাও দ্বায়িত্বশীলতার পরিচয় দিন’

নির্বাচন পরিচালনার দায়িত্বে থাকা সরকারি কর্মকর্তাদের উদ্দেশে কবিতা খানম বলেন, ‘কেউ আচরণবিধি লঙ্ঘন করে প্রচার-প্রচারণা চালালে, আপনারা প্রার্থীকে একজন প্রার্থী গণ্য করবেন। তার অন্য কোনো পরিচয় থাকবে না। আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগের সত্যতা থাকলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবেন। প্রত্যেক প্রার্থী একই ধরণের আইনের সেবা পাবেন। ভোটের আগে বিশৃঙ্খল পরিবেশ সৃষ্টি হোক এটা আমরা চাই না।’

তিনি বলেন, ‘নির্বাচনে যেন লেভেল-প্লেইং ফিল্ড নিশ্চিত থাকে, সেটা নিশ্চিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কাজ করবে।’  

জেলা প্রশাসক হারুন-অর-রশীদের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, নির্বাচন কমিশনের জাতীয় পরিচয়পত্র অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবুল কাশেম মো. ফজলুল কাদের, পুলিশ সুপার আব্দুল মান্নান মিয়া, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মাহমুদ হাসান প্রমুখ।

আগামী ২৬ ডিসেম্বর নওগাঁর মহাদেবপুর, ধামইরহাট ও আত্রাই উপজেলার ২৬টি ইউনিয়নে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com