ফিলিপাইনে টাইফুনের তাণ্ডবে মৃত্যু বেড়ে ৩৭৫

প্রকাশ: ২১ ডিসেম্বর ২১ । ০৮:৫২ | আপডেট: ২১ ডিসেম্বর ২১ । ০৮:৫২

অনলাইন ডেস্ক

উদ্ধার অভিযান, ছবি: রয়টার্স

ফিলিপাইনের মধ্য ও দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশগুলোতে সুপার টাইফুন রাইয়ের আঘাতে মৃত্যু সংখ্যা বেড়ে অন্তত ৩৭৫ জনে দাঁড়িয়েছে। সোমবার উদ্ধার অভিযানে নিয়োজিত দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী এ তথ্য জানিয়েছে।

স্থানীয় পুলিশের তথ্যানুযায়ী, এ বছরের সবচেয়ে শক্তিশালী ও অন্যতম প্রাণঘাতী এ টাইফুনে অন্তত ৫০০ জন আহত হয়েছেন এবং এখনও ৫৬ জন নিখোঁজ রয়েছেন। খবর রয়টার্সের

বৃহস্পতিবার ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৯৫ কিলোমিটার গতির বাতাস নিয়ে সাগর থেকে দ্বীপপুঞ্জটির স্থলভাগে আঘাত হানে রাই। এ তাণ্ডবে অসংখ্য ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে অন্তত পাঁচ লাখ মানুষ বাস্তুচ্যুত হন, বিদ্যুৎ ও যোগাযোগ লাইনগুলো বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে।

বহু গাছ ও বিদ্যুতের খুঁটি উপড়ে যায়, প্লাবিত হয় বহু গ্রাম। বেশ কয়েকটি বন্দর অচল হয়ে পড়ে, বাতিল হয় শতাধিক ফ্লাইট। বিভিন্ন অঞ্চলে করোনার গণটিকাদান কর্মসূচিও স্থগিত রাখতে বাধ্য হয় কর্তৃপক্ষ।


পুলিশের মুখপাত্র রডেরিক আলবা জানান, দুর্যোগ কবলিত এলাকাগুলোতে ত্রাণ তৎপরতা ও শৃঙ্খলা নিশ্চিত করতে বিপুল সংখ্যত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশ মৃত্যুর যে সংখ্যা উল্লেখ করেছে, তা দেশটির জাতীয় দুর্যোগ সংস্থার রেকর্ড করা ৫৮ মৃত্যু থেকে অনেক বেশি। সংস্থাটি জানিয়েছে, তারা ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলো থেকে আসা প্রতিবেদনগুলো যাচাই করে দেখছে।

এছাড়া পুলিশ যাদের মৃত্যুর কথা জানিয়েছে ,তাদের অর্ধেকেরও বেশি বোহোল প্রদেশের ভিসাইয়াস এলাকার। ফিলিপাইনের সবচেয়ে জনপ্রিয় অনেকগুলো পর্যটন গন্তব্যের অবস্থান এ প্রদেশে।

ক্ষয়ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে দুর্যোগ কবলিত এলাকাগুলোর জন্য চার কোটি মার্কিন ডলারের সমপরিমাণ অর্থ ছাড় করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তে।

ফিলিপাইনে প্রায়ই শক্তিশালী ঝড় হয়। বছরে গড়ে ২০টি ঝড় আঘাত হানে দেশটিতে। চলতি বছর দ্বীপপুঞ্জটিতে আঘাত হানা ১৫তম টাইফুন রাই।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com