ডিআরআরএর সভায় বক্তারা

কর্মসংস্থান করতে হবে প্রতিবন্ধীদের

প্রকাশ: ২৬ ডিসেম্বর ২১ । ২০:৩১ | আপডেট: ২৬ ডিসেম্বর ২১ । ২০:৩১

সমকাল প্রতিবেদক

সরকারি হিসাবে দেশে ২০ লাখ প্রতিবন্ধী রয়েছেন। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসাবে এই সংখ্যা এক কোটি ৮০ হাজার। এই বিশাল জনগোষ্ঠীর ৬৯ শতাংশেরই বয়স ১৫ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে। তবে তাদের মধ্যে কাজের সঙ্গে যুক্ত আছেন মাত্র ২ শতাংশ প্রতিবন্ধী ব্যক্তি। এই জনগোষ্ঠীর একটি বড় অংশেরই কর্মসংস্থান না হওয়ায় দেশের জিডিপিতে প্রতিবছর ১ দশমিক ১৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার যুক্ত হচ্ছে না।

রোববার রাজধানীর মহাখালীর ব্র্যাক সেন্টারে ডিজঅ্যাবল রিহ্যাবিলিটেশন অ্যান্ড রিসার্চ অ্যাসোসিয়েশন (ডিআরআরএ) আয়োজিত এক সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন। তারা বলেন, প্রতিবন্ধীদের কাজে নিয়োগ করার উপযোগী মানসিক সচেতনতাও সমাজে বাড়ছে না। এ অবস্থায় তাই বার্ষিক ক্ষতি পুষিয়ে নিতে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য শুধু কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করলে হবে না, পাশাপাশি প্রয়োজন প্রাতিষ্ঠানিক ও সামাজিক প্রতিবন্ধকতা দূর করা।

সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন জাতীয় শ্রমিক নেতা মো. আবুল হোসেন, বিজিএমইএ পরিচালক হারুন উর রশীদ, সাধারণ বীমা করপোরেশন ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ শাহরিয়ার আহসান, এসএমই ফাউন্ডেশনের ডিএমডি মো. সালাউদ্দিন মাহমুদ প্রমুখ।

আলোচকরা বলেন, শিল্পসম্মত উন্নত দেশ গড়ার প্রত্যয়ে ২০৪১ সালকে টার্গেট করা হয়েছে। পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর উন্নয়ন ছাড়া এ গৌরব অর্জন সম্ভব নয়। তাই উন্নয়নের মূলধারায় প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সম্পৃক্ত করতে হবে। তারা বলেন, দীর্ঘদিন ধরে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের উন্নয়নে ডিআরআরএ কাজ করছে। আগামীতেও এ কাজ অব্যাহত থাকবে। 'গার্মেন্ট সেক্টর' একক এমপ্লয়মেন্ট খাত। এখানে রাজধানীর আশপাশের চার হাজার কারখানায় হেলপার পদে চাকরি দিয়ে চার হাজারের মতো প্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে চাকরি দেওয়া হবে।

সভায় অভিমত জানাতে গিয়ে প্রতিবন্ধী ব্যক্তি উজ্জ্বল হোসেন, খুকু, শান্তা ও আশরাফ বলেন, কাজের সুযোগ দিলে তারা সুস্থ ও স্বাভাবিক মানুষের চেয়েও ভালো কাজ করতে পারবেন। অথচ সেই সুযোগ মিলছে না। ডিআরআরএর সহযোগিতায় অনেক প্রতিবন্ধী কিশোর-কিশোরী কলেজের সীমানা পেরোলেও করোনাকালে আর্থিক সংকটের কারণে অনেকের লেখাপড়াই থমকে গেছে। পড়াশোনা শেষ করার নিশ্চয়তা চান তারা।

ডিআরআরএ অ্যাডভাইজার স্বপ্না রেজার সঞ্চালনায় সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন কেরানীগঞ্জ হিউম্যান রিসোর্সেস ডেভেলপমেন্ট সোসাইটির প্রধান নির্বাহী সৈয়দা শামীমা সুলতানা, মানবিক সাহায্য সংস্থার আব্দুল হালিম, খন্দকার রেবেকা সানিয়া, হারুনুর রশীদ প্রমুখ।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com