চলতি অর্থবছরে বিদেশ যাবেন ১০ লাখ কর্মী: প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী

প্রকাশ: ৩০ ডিসেম্বর ২১ । ২০:২১ | আপডেট: ৩০ ডিসেম্বর ২১ । ২০:৪০

সমকাল প্রতিবেদক

মহাখালীর ব্র্যাক সেন্টারে ব্র্যাক মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড বিতরণ অনুষ্ঠানে পুরস্কারপ্রাপ্ত সাংবাদিকদের মাঝে প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ইমরান আহমদ - সমকাল

করোনার আঘাত কাটিয়ে বৈদেশিক কর্মসংস্থান ঘুরে দাঁড়াচ্ছে বলে জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ইমরান আহমদ। তিনি বলেছেন, ২০২০-২০২১ অর্থবছরে মাত্র দুই লাখ ৩১ হাজার কর্মী বিদেশ গেছেন। চলতি অর্থবছরের জুলাই থেকে অক্টোবরে দুই লাখ ৫২ হাজার, নভেম্বরে এক লাখ পাঁচ হাজার এবং ২৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত রেকর্ড এক লাখ ২৪ হাজার কর্মী চাকরি নিয়ে বিদেশে গেছেন। আগামী জুন নাগাদ ৯ লাখের বেশি কর্মীকে বিদেশে পাঠানো যাবে। মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার খুললে সংখ্যাটি ১০ লাখ ছাড়াবে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর মহাখালীতে ব্র্যাক সেন্টারে 'ষষ্ঠ ব্র্যাক মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড' বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এ বছর ১৭ জন সাংবাদিক বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পেয়েছেন। সংবাদপত্র ক্যাটাগরিতে প্রথম স্থান অর্জন করেছেন সমকালের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রাজীব আহাম্মদ। মন্ত্রী পুরস্কার জয়ীদের হাতে পদক, পুরস্কারের অর্থমূল্যের চেক ও সনদপত্র তুলে দেন। ঢাকাস্থ ডেনমার্ক দূতাবাসের সহযোগিতায় পুরস্কার দিয়েছে ব্র্যাকের অভিবাসন কর্মসূচি।

সমঝোতা স্মারক সইয়ের মাধ্যমে খুলতে যাওয়া মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে কর্মী পাঠানোর কাজ 'সিন্ডিকেটে'র হাতে যাওয়ার অভিযোগকে গুজব বলে আখ্যা দিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ইমরান আহমদ। তিনি 'সিন্ডিকেটে' সম্মতি দিয়েছেন বলে যে অভিযোগ করা হচ্ছে তা নাকচ করে বলেছেন, 'আমার মাথায় সিন্ডিকেট নেই।'

বাংলাদেশে না হলেও মালয়েশিয়ায় আগের মতো সিন্ডিকেট হতে পারে বলে যে আশঙ্কা রয়েছে- সে সম্পর্কে মন্ত্রী বলেন, 'অনেকেই বলছে মালয়েশিয়ায় সিন্ডিকেট হবে কি না। আমি মালয়েশিয়ার মন্ত্রী না। ওরা সিন্ডিকেট করুক। আমি বাংলাদেশের মন্ত্রী। আমি দেখব বাংলাদেশের কর্মীর স্বার্থ রক্ষা হচ্ছে কী না।'

ইমরান আহমদ জানান, জানুয়ারিতে বাংলাদেশ সফরে আসবেন মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্র এবং মানবসম্পদমন্ত্রী। তাদের এই সফরে সবকিছু ঠিক হবে, কর্মী যাওয়া শুরু হবে। আগামী আট-দশ মাসের মধ্যে রেমিট্যান্সও বাড়বে বলে আশাবাদী মন্ত্রী।

সঠিক তথ্য তুলে ধরার আহ্বান জানিয়ে ইমরান আহমদ বলেছেন, 'বিদেশে যে মহিলা কর্মীরা নির্যাতিত হন, সবসময় সব তথ্য ঠিক থাকে না। কিছু না কিছু এদিক সেদিক হয়।' সমালোচনাকে স্বাগত জানিয়ে মন্ত্রী বলেছেন, সাংবাদিকদের কাছে শুধু সমালোচনা নয়, কী করলে প্রবাসী কর্মীদের ভালো হবে, সেই দিশাও দিতে হবে সংবাদে।

বিএমইটির মহাপরিচালক শহীদুল আলম বলেছেন, 'স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে প্রায় সাড়ে ১০ লাখ প্রবাসীকে করোনার টিকা দেওয়া হয়েছে। বুস্টার ডোজ ছাড়া নতুন বছরে কেউ সৌদি আরব যেতে পারবে না। বিদেশগামীদের বুস্টার ডোজ কীভাবে দেওয়া যায়- সেই খোঁজ করা হচ্ছে। বিমানবন্দরে প্রবাসী হয়রানি বন্ধে রেমিট্যান্স প্রেরণকারীদের ভিন্ন রঙের পাসপোর্ট দেওয়া যায় কী না- সে চিন্তাও চলছে।'

অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন ব্র্যাকের নির্বাহী পরিচালক আসিফ সালেহ, সিনিয়র ডিরেক্টর কেএএম মোর্শেদ এবং অভিবাসন কর্মসূচির প্রধান শরিফুল হাসান।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৭১৪০৮০৩৭৮ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com