রাজশাহীতে শিশুকে অতিরিক্ত ডোজ, চার স্বাস্থ্যকর্মীকে শোকজ

প্রকাশ: ০৯ জানুয়ারি ২২ । ২৩:৩৩ | আপডেট: ০৯ জানুয়ারি ২২ । ২৩:৩৭

রাজশাহী ব্যুরো

রাজশাহীর নিউ কলোনি এলাকার ইপিআই কেন্দ্রে ১০ মাস বয়সী এক শিশুকে টিকার অতিরিক্ত ডোজ প্রয়োগের ঘটনায় চার স্বাস্থ্যকর্মীকে শোকজ করেছে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) স্বাস্থ্য বিভাগ।  

শিশুটির পরিবার জানায়, রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় নগরের ছোট বনগ্রাম এলাকার শেখ রাসেল শিশুপার্কের পাশে আরবান ক্লিনিকে সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচির (ইপিআই) আওতায় সুমাইয়া খাতুন নামের ওই শিশুকে টিকা দিতে নিয়ে গিয়েছিলেন তার মা মৌসুমী। সুমাইয়া নগরের নিউ কলোনি এলাকার সাদ্দাম হোসেনের মেয়ে। সুমাইয়াকে আগেই তিন ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছিল।

সাদ্দাম হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, টিকার কার্ড দেখে আমি বুঝতে পারি, তাকে ভুল করে অতিরিক্ত টিকার ডোজ দেওয়া হয়েছে। তখনই আমি ওই টিকাকেন্দ্রে যাই। কিন্তু স্বাস্থ্যকর্মীরা আমাকে পাত্তা দিচ্ছিলেন না। পরে আমি বাধ্য হয়ে তিনি ৯৯৯–এ ফোন করে পুলিশ ডাকি। 

এ ঘটনায় চার স্বাস্থ্যকর্মীকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) স্বাস্থ্য বিভাগে। তারা হলেন, রাসিকের স্বাস্থ্য বিভাগের মাঠকর্মী জোসনা, শিল্পী, তহমিনা ও সুপারভাইজার আজাহার আলী। 

খবর পেয়ে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল হক আসেন। তাদের সামনে স্বাস্থ্যকর্মীরা স্বীকার করেন যে ভুল করে টিকার ডাবল ডোজ দিয়ে ফেলেছেন।

সুমাইয়ার বাবা সাদ্দাম হোসেন জানান, সুমাইয়াকে গত বছরের ২৩ জুন ইপিআইয়ের টিকার তৃতীয় ডোজ দেওয়া হয়েছিল। গত ১২ ডিসেম্বর চতুর্থ ডোজ দেওয়ার কথা ছিল। তখন রাজশাহীতে না থাকায় টিকা দেওয়া হয়নি। বুধবার শিশুকে নিয়ে যাওয়া হলে অতিরিক্ত টিকা দেওয়া হয়। এখন সুমাইয়ার গায়ে জ্বর এসেছে বলেও তিনি জানান।

টিকা প্রদান কর্মসূচির সুপারভাইজার আজাহার আলী বলেন, ঘটনার সময় তিনি কেন্দ্রে ছিলেন না। তবে স্বাস্থ্যকর্মী রেজিস্টার ও ট্যাব না দেখে বাচ্চাটিকে ভুল করে টিকা দিয়েছেন বলে তিনি শুনেছেন। বিকেলে শিশুটিকে দেখে আসেন রাসিকের চিকিৎসক সরকার বনি। তিনি এ বিষয়ে কথা বলতে চাননি।

রাসিকের ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তৌহিদুল হক বলেন, রাসিকের চিকিৎসা কর্মকর্তা সরকার বনি শিশুটিকে দেখে এসে জানিয়েছেন তার সমস্যা হবে না। তবে এ ঘটনায় তাৎক্ষণিকভাবে চারজনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

রাজশাহী সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা এফ এ এম আঞ্জুমান আরা বেগম বলেন, ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে। আপাতত চারজনকে কারণ দর্শানোর চিঠি দেওয়া হয়েছে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৭১৪০৮০৩৭৮ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com