অনৈতিক সম্পর্কে বাধা দেওয়ায় স্ত্রী-সন্তানকে হত্যা

প্রকাশ: ১১ জানুয়ারি ২২ । ২০:৫৫ | আপডেট: ১১ জানুয়ারি ২২ । ২২:০২

সমকাল প্রতিবেদক

সোলেমান হোসেন অনৈতিক সম্পর্কে জড়ানোয় পরিবারে অশান্তি সৃষ্টি হয়।

খাগড়াছড়ির রামগড়ের সোলেমান হোসেন অনৈতিক সম্পর্কে জড়ানোয় পরিবারে অশান্তি সৃষ্টি হয়। এতে বাধা দেন স্ত্রী খালেদা আক্তার পিংকি। শেষ পর্যন্ত ‘পথের কাঁটা’ সরাতে সোলেমান স্ত্রী ও শিশুসন্তানকে খুন করেন।

মঙ্গলবার রাজধানীর মালিবাগে সিআইডি কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে সোলেমানকে গ্রেপ্তারের তথ্য দেন কর্মকর্তারা। পরে তার বরাতে বিশেষ পুলিশ সুপার মুক্তা ধর জানান, সোলেমান স্ত্রী ও সন্তানকে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন। গাজীপুরের চান্দনা চৌরাস্তা এলাকার একটি টেক্সটাইল মিলে অপারেটর হিসেবে কাজ করতেন তিনি। সেখানে থাকতেই পিংকির সঙ্গে তার বিয়ে হয়। বিয়ের পর গ্রামে ফিরে রাজমিস্ত্রির কাজ শুরু করেন। তাদের সংসার ভালোভাবে চললেও সম্প্রতি এক নারীর সঙ্গে তার সম্পর্ক গড়ে ওঠায় অশান্তি সৃষ্টি হয়।

এর আগে গত সোমবার রাতে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ-সিআইডি হবিগঞ্জের চুনারুঘাট থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে। গত ৩০ ডিসেম্বর খাগড়াছড়িতে এই খুনের পর পালিয়ে গিয়েছিলেন সোলেমান। মরদেহ উদ্ধারের পর ৩ জানুয়ারি ঘটনাটি জানাজানি হয়।

সিআইডি জানায়, সোলেমানের সঙ্গে পিংকির ২০১৩ সালে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। তাদের দুই সন্তান ফারিয়া সুলতানা (৫) ও চার মাস বয়সী সালমা আক্তার জান্নাত। বিয়ের পর দাম্পত্য জীবন সুখে কাটলেও হঠাৎ করে সোলেমান অনৈতিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। শেষ পর্যন্ত স্ত্রী ও চার মাসের সন্তানকে গলা কেটে হত্যা করে কম্বলে পেঁচিয়ে ঘরের মধ্যে রেখে পালিয়ে গিয়েছিলেন।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com