সরকার মানুষকে গুম করে উন্নয়নের বুলি শোনাচ্ছে, বিএনপির সমাবেশে নেতারা

প্রকাশ: ১২ জানুয়ারি ২২ । ২১:৫৫ | আপডেট: ১২ জানুয়ারি ২২ । ২১:৫৫

সমকাল ডেস্ক

খুলনায় বিএনপির সমাবেশ বক্তব্য রাখেন দলটির কেন্দ্রীয় নেতারা -সমকাল

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে উন্নত চিকিৎসার দাবিতে বুধবার ছয় সাংগঠনিক জেলায় আয়োজিত সমাবেশে দলের নেতারা বলেছেন, বর্তমান সরকার গণতন্ত্রকে হত্যা করছে। দেশে এখন আইনের শাসন, গণতন্ত্র ও মানবাধিকার নেই। এটা এখন আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত। এ সরকার মানুষকে গুম করে উন্নয়নের বুলি শোনাচ্ছে।

এদিকে চট্টগ্রামের সমাবেশে বিএনপির এক সাবেক সাংসদকে দলের এক কর্মী লাঞ্ছিত করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ নিয়ে হট্টগোলে মঞ্চ ভেঙে পড়ে। রাজশাহীতে সমাবেশেও হট্টগোল হয়েছে। এসব সমাবেশ ঘিরে বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করে প্রশাসন। 

চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, রংপুর ও চাঁদপুরে এদিন সমাবেশ হয়। তবে কোথাও কোথাও পুলিশি বাধার অভিযোগ করেছে বিএনপি। ব্যুরো, অফিস ও প্রতিনিধিদের খবর :

চট্টগ্রামে মঞ্চ ভাঙল, সাবেক সাংসদ লাঞ্ছিত: চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির সমাবেশে চট্টগ্রাম-১৩ (আনোয়ারা-কর্ণফুলী) আসনের তিনবারের সাবেক সাংসদ ও বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য সরওয়ার জামাল নিজামকে লাঞ্ছিত করেছে দলের এক কর্মী। এ সময় অনুষ্ঠানের মঞ্চ ভেঙে পড়ে। চট্টগ্রামের কর্ণফুলী উপজেলার সিডিএ আবাসিক এলাকা মাঠে অনুষ্ঠিত সভায় মঞ্চের পেছনে আনোয়ারা-কর্ণফুলী আসনের বিএনপির দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বক্তব্য দেওয়ার সময় আনোয়ারা উপজেলা বিএনপির কর্মী ফারুক মঞ্চে বসা সরওয়ার জামাল নিজামের ওপর হামলা চালায়। এ সময় তার শার্ট ও গেঞ্জি ছিঁড়ে ফেলা হয়। নিজাম বাঁচাও, বাঁচাও বললে নেতাকর্মীরা এগিয়ে এসে তাকে গাড়িতে তুলে দেন। এ সময় নেতাকর্মীদের ধাক্কাধাক্কিতে হঠাৎ মঞ্চ ভেঙে পড়ে। তবে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বক্তব্য দেওয়া বন্ধ করেননি।

তিনি বলেন, কিছুতেই জনগণকে আটকে রাখা যাবে না। এত লোকের সমাবেশ মঞ্চ তো ভাঙবেই। ১৪৪ ধারার দিন শেষ হয়ে গেছে। দফায় দফায় অনুমতি নিয়ে জনসভার দিন শেষ হয়ে গেছে। দেশের মানুষ আজ ঐক্যবদ্ধ। তিনি বলেন, ঘুঘুর ফাঁদ দক্ষিণ চট্টগ্রাম থেকে উন্মোচন করা হবে। ফাঁদ অনেক বসিয়েছেন। এখন আর বসানোর সময় নেই। আমরা খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই না, আমরা খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আনব।

তার আগে জনসভায় নিজাম বক্তব্য দেওয়ার সময় নেতাকর্মীরা ভুয়া-ভুয়া বলে স্লোগান দেন। কর্ণফুলী উপজেলা বিএনপির সভাপতি মামুন মিয়া সমকালকে বলেন, দীর্ঘদিন ধরে তিনি নেতাকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ না রাখায় নেতাকর্মীরা ক্ষুব্ধ।

সভায় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক, কেন্দ্রীয় যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নিরব, দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি জাফরুল ইসলাম চৌধুরী, বিএনপির চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান শামীম, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব আবুল হাশেম প্রমুখ বক্তব্য দেন।

'গণতন্ত্রহীনতা এখন আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত': চাঁদপুর শহরের নতুনবাজারের মুনিরা ভবনের মাঠে সমাবেশে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, খালেদা জিয়াকে বানোয়াট মামলা ও ফরমায়েশি রায়ে সাজা দেওয়া হয়েছে। এই সাজা আমরা অবৈধ মনে করি। তাই অবিলম্বে তার পূর্ণ মুক্তি দাবি করছি।

চাঁদপুর জেলা বিএনপির সভাপতি শেখ ফরিদ আহমেদ মানিকের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহ্বায়ক মনির চৌধুরীর পরিচালনায় সভায় বক্তব্য দেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি আব্দুস সালাম, বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, বিএনপি নির্বাহী কমিটির কুমিল্লা বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক মিয়া প্রমুখ। বিএনপি নেতাকর্মীরা বিভিন্ন দাবিসংবলিত ব্যানার-ফেস্টুন নিয়ে সমাবেশে হাজির হন।

রাজশাহীতে বিএনপির সমাবেশের একাংশ -সমকাল

রাজশাহীতে জুতা নিক্ষেপের অভিযোগ: অভিমানী নেতাদের মঞ্চে না ওঠা, জুতা নিক্ষেপ ও দফায় দফা হট্টগোলের মধ্য দিয়ে রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার শিবপুরে বিএনপির সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শিবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে সমাবেশে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু প্রমুখ বক্তব্য দেন। দীর্ঘদিন পর খোলা মাঠে সমাবেশে নেতাকর্মীদের ঢল নামে।

এ সময় অভিমান ও দ্বন্দ্বের জেরে মঞ্চে না উঠে সমর্থকদের নিয়ে মাঠে বসে ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির বন ও পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক রাজশাহী মহানগর বিএনপির সদ্য সাবেক সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল এবং কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-ত্রাণবিষয়ক ও মহানগর বিএনপির সদ্য সাবেক সাধারণ সম্পাদক শফিকুল হক মিলন। তাদের মঞ্চে আসার জন্য অসংখ্যবার নাম ঘোষণা দিলেও তারা মাঠেই অবস্থান নেন। এক পর্যায়ে বক্তব্য দেওয়ার জন্য শফিকুল হক মিলন মঞ্চে উঠলে সামনে বসে থাকা বিএনপির নেতাকর্মীরা তাকে উদ্দেশ করে স্যান্ডেল ছুড়ে মারেন। এ সময় হট্টগোল ও হাতাহাতি শুরু হয়। এছাড়াও সমাবেশে দফায় দফায় হাতাহাতি ও হট্টগোল হয়।

নেতাকর্মীরা জানান, মহানগর বিএনপির সভাপতি পদ থেকে বুলবুল ও সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে মিলনকে সম্প্রতি অব্যাহতি দিয়ে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। বিষয়টি মানতে পারেননি তারা। তবে বুলবুল বলেন, কোনো ক্ষোভ থেকে নয়, নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে মাঠে ছিলাম। মঞ্চে খুব ভিড় ছিল বলে মঞ্চে ওঠিনি। জেলা বিএনপির আহ্বায়ক ও সমাবেশের সভাপতি আবু সাঈদ চাঁদ বলেন, স্যান্ডেল ছোড়ার কোনো ঘটনা তিনি দেখেননি।

বক্তৃতায় রিজভী বলেন, বর্তমান সরকার দেশের মানুষ ও বিরোধী মতকে গুম করে মেট্রোরেল দেখায়, ফ্লাইওভার দেখায়, উন্নয়নের বুলি শোনায়। সমাবেশে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু ও বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুও বক্তব্য দেন।

'কাফনের কাপড় পরে মাঠে নামতে হবে': সিলেট শহরতলির টুকেরবাজারে সমাবেশে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু নেতকর্মীদের উদ্দেশে বলেছেন, 'প্রতীকী কাফনের কাপড় পরলে চলবে না, প্রকৃত কাফনের কাপড় পরতে হবে। আন্দোলন করতে হবে, গুলি খেতে হবে। আমরা সামনের সারিতে থাকব, আপনারা পেছনে থাকবেন তবেই মুক্তি মিলবে খালেদা জিয়ার।'

জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কামরুল হুদা জায়গীরদারের সভাপতিত্বে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির, স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা সুলতান সালাহ উদ্দিন টুকু, সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, বিএনপি নেতা ইশরাক হোসেন, নিখোঁজ বিএনপি নেতা ইলিয়াসপত্নী তাহসিনা রুশদীর লুনা, বিএনপি নেতা ফরহাদ চৌধুরী শামীম, আবদুল আহাদ খান জামাল, তারেক কালাম প্রমুখ বক্তব্য দেন।

খুলনায় পুলিশি বাধার অভিযোগ: খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার গুটুদিয়া মাঠে সমাবেশে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, 'এখন আমরা যে যুদ্ধ করছি, এই যুদ্ধ ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য যুদ্ধ নয়। এই যুদ্ধ রাষ্ট্র মেরামতের যুদ্ধ, গণতন্ত্র ফেরত আনার যুদ্ধ। এই যুদ্ধটা একটি দুর্নীতিমুক্ত ও সম্মানজনক জাতি বিশ্বের দরবারে উপহার দেওয়ার যুদ্ধ। আমরা মানুষের ভোটাধিকারের জন্য যুদ্ধ করছি, নিজেরা ভোট পাওয়ার জন্য নয়।' তিনি বলেন, 'দেশের মালিক জনগণ, কোনো রাজনৈতিক দল নয়।' তিনি বলেন, পৈতৃক সূত্রে কেউ দেশের ওয়ারিশ না। পৈতৃক সূত্রে কেউ দেশের মালিক হয়েছেন- এ ধারণাটা পরিহার করতে হবে।

খুলনা জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আমীর এজাজ খানের সভাপতিত্বে এতে আরও বক্তব্য দেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মশিউর রহমান, বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা আজিজুল বারী হেলাল, বিএনপির খুলনা বিভাগীয় ভারপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক অনিন্দ্য ইসলাম অমিত, মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক শফিকুল আলম মনা প্রমুখ। বিএনপি নেতারা অভিযোগ করেন, সমাবেশে পথে পথে পুলিশ নেতাকর্মীদের বাধা দিয়েছে। বাস আটকে দিয়েছে। তারপরও জনস্রোত ঠেকাতে পারেনি।

'আ'লীগের টিকিটিও খুঁজে পাওয়া যাবে না': রংপুরের বুড়িরহাট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সমাবেশ বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেছেন, খালেদা জিয়ার কিছু হলে দেশের মাটিতে আওয়ামী লীগের টিকিটি খুঁজে পাওয়া যাবে না। তিনি বলেন, বাংলাদেশকে মাফিয়া টাইটেল দেওয়া হয়েছে। মাফিয়ারা দেশ চালাচ্ছে। এদেশে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়া হয় না। সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজের মাফিয়া ভাইকে মুক্তি দেওয়া হয়।

জেলা বিএনপির সভাপতি সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে সমাবেশে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যক্ষ আসাদুল হাবীব দুলু, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন নবী খান সোহেল প্রমুখ বক্তব্য দেন।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com