সাইদা গাফফার হত্যা: আসামি আনোয়ারুল তিনদিনের রিমান্ডে

প্রকাশ: ১৫ জানুয়ারি ২২ । ১৭:২৪ | আপডেট: ১৫ জানুয়ারি ২২ । ১৭:৫৬

গাজীপুর প্রতিনিধি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পুষ্টি ও খাদ্য বিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক সাইদা গাফফার

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পুষ্টি ও খাদ্য বিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক সাইদা গাফফারকে অপহরণ ও হত্যা মামলার আসামি আনোয়ারুল ইসলামকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনদিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত। শনিবার বিকাল চারটায় আসামিকে গাজীপুর চিফ মেট্রোপলিটন আদালতে নেওয়া হয়। 

পুলিশ তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। বিচারক মেহেদী পাভেল সুইট তিনদিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেন। 

গাজীপুর মহানগর পুলিশের উপকমিশনার (অপরাধ) জাকির হাসান সমকালকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 


এর আগে শুক্রবার সকালে কাশিমপুর থানার দক্ষিণ পানিশাইল এলাকা থেকে সাইদা গাফফারের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত সাইদা গাফফার প্রফেসর কিবরিয়াউল খালেকের স্ত্রী।

পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার আনোয়ারুল ইসলাম (জ্যাকেট ও নীল প্যান্ট পরিহিত, ডান থেকে দ্বিতীয়) 

এ ঘটনায় পুলিশ আনোয়ারুল ইসলামকে (২৫) গাইবান্ধা থেকে গ্রেপ্তার করে। আনোয়ার প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার দায় শিকার করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। আনোয়ার গাইবান্ধা জেলার সাদুল্লাপুর থানার বুজর্গ জামালপুর গ্রামের বাসিন্দা। নিহতের বাড়িতে রাজমিস্ত্রির কাজ করতো। হত্যার ঘটনায় নিহতের ছেলে ইফতেখার বিন জহির বাদী হয়ে একটি মামলা করেছেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, সাইদা গাফফার গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ১ নম্বর ওয়ার্ড এলাকার দক্ষিণ পানিশাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক এলাকায় একটি বাড়ি নির্মাণ করছিলেন। তিনি বুধবার সকালে পানিশাইল এলাকার নির্মাণাধীন ওই বাড়ির কাজ দেখতে আসার পর নিখোঁজ হন। এ ঘটনায় তার মেয়ে সাহিদা আফরিন কাশিমপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। 

এদিকে শুক্রবার সকালে ওই আবাসন এলাকায় ঝোপঝাড়ের মধ্যে নিহতের মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেন। পরে পুলিশ দুপুরের দিকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে।

পুলিশ জানায়,গত বুধবার দুপুরের দিকে নিহত সাইদা গাফফার তার বাড়ির কাজ দেখতে গেলে রাজমিস্ত্রি তার হাতে মালামাল কেনার জন্য মোটা অংকের টাকা দেখতে পান। এ সময় ওই টাকা আনোয়ার ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় সাইদা গাফফার চিৎকার করলে তাকে আঘাত করা হয়। তিনি মাটিতে পড়ে যাওয়ার পর তার গলা টিপে ধরে আঘাত করা হয় শরীরের বিভিন্ন জায়গায়। এরপর রাতে মরদেহ ঝোপের মধ্যে ফেলে রাখে হত্যাকারী।

পুলিশের ধারণা, নিহতের কাছ থেকে টাকা  ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে ব্যর্থ হওয়ার পর তাকে হত্যা করে টাকা ও সঙ্গে থাকা অলংকার লুট করে নেওয়া হয়।

কাশিমপুর থানার উপ পরিদর্শক দীপঙ্কর রায় জানান, অভিযান চালিয়ে হত্যাকাণ্ডের মূল আসামি আনোয়ারুলকে গাইবান্ধা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

কাশিমপুর থানার ওসি মাহবুব এ খোদা জানান, এ ঘটনায় নিহতের ছেলে ইফতেখার বিন জহির বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন। 


© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com