১০ সমর্থককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ, অভিযোগ তৈমূরের

প্রকাশ: ১৫ জানুয়ারি ২২ । ১৯:১০ | আপডেট: ১৫ জানুয়ারি ২২ । ১৯:৩৭

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলনে তৈমূর আলম খন্দকার

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার দাবি করেছেন, তাকে সমর্থনকারী ১০ জন নেতাকর্মী ও নির্বাচনী এজেন্টকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শুক্রবার রাত থেকে এ পর্যন্ত ১০ জন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি। শনিবার সন্ধ্যায় মাসদাইরের মজলুম মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।  

তৈমূর আলম খন্দকার বলেছেন, যাদের কাছে আমাদের অভিযোগ করার কথা তারাই নির্বাচনকে কলুষিত করছে এবং সুষ্ঠু পরিবেশে বাধা সৃষ্টি করছে। আমার বাসার সিসিটিভি ফুটেজ চেক করেন এবং যাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে তাদের দেখেন। দেখবেন তাদের বেছে বেছে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আদালত থেকে আমি কাগজ নিয়ে এসেছি। গত বছরের হেফাজতের মামলায় তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এখন দেখা যায় ছাত্রলীগও হেফাজতের মামলার আসামি, হিন্দুও হেফাজতের মামলার আসামি। মানে হিন্দুরাও হেফাজত করে।

তিনি বলেন, যারা আমার নির্বাচনের নানা কাজের দায়িত্বে আছে তাদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। সকলকেই হেফাজতের মামলায় গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। এ পরিস্থিতিতে ডিসি এসপি বলে আমি অভিযোগ করিনি। এখানে সই করা কাগজ আছে আমার কাছে।

এদিকে গ্রেপ্তাকৃতদের সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করেছে পুলিশ। তারা হলো, মো. মমতাজ মিয়া, মো. জামাল, মো. গিয়াসউদ্দিন প্রধান, আহসান হোসেন ভূইয়া, মনির হোসেন, আহসানউল্লাহ, কাজী জসিম উদ্দিন, মো. বোরহান উদ্দিন, আবু তাহের, জয়দেব চন্দ্র মন্ডল। 

এ বিষয়ে নারায়ণগ‌ঞ্জের পুলিশ সুপার জানান, আমরা কারও পক্ষ বা বিপক্ষে না। যাদের বিরুদ্ধে মামলা রয়েছে আমরা শুধু তাদেরই গ্রেপ্তার করেছি।

প্রসঙ্গত,  গত কয়েকদিন ধরেই নেতাকর্মীদের ধরপাকড়ের অভিযোগ করে আসছিলেন তিনি। 

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com