শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নতুন শপথবাক্য মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী: আ স ম রব

প্রকাশ: ২২ জানুয়ারি ২২ । ২০:২৩ | আপডেট: ২২ জানুয়ারি ২২ । ২১:৩৬

সমকাল প্রতিবেদক

আ স ম আবদুর রব- ফাইল ছবি

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব বলেছেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নতুন শপথবাক্য পাঠ সংক্রান্ত সরকারি নির্দেশনায় স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের ঐতিহাসিক সত্যকে অস্বীকার করা হয়েছে। এটা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। অবিলম্বে এ নির্দেশনা প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, সরকারের ইচ্ছামাফিক কোনো প্রেস নোট বা সার্কুলারে বাঙালির সুদীর্ঘ সংগ্রামের ইতিহাস রচিত হতে পারে না।

শনিবার এক বিবৃতিতে তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ নিরবচ্ছিন্ন সংগ্রামের ফসল। স্বাধীনতা অর্জনের চূড়ান্ত লড়াইয়ে অর্থাৎ সশস্ত্র মুক্তি সংগ্রামে বঙ্গবন্ধুর অনুপস্থিতিতে ঐতিহাসিক বাস্তবতায় তাজউদ্দীন আহমদের নেতৃত্বাধীন প্রবাসী সরকার নেতৃত্ব দিয়েছে। এই সত্য এবং অন্যদের ঐতিহাসিক অবদানকে অস্বীকার করে একরৈখিক ভুল ইতিহাস উপস্থাপন করে তরুণ শিক্ষার্থীদের বিভ্রান্তির শিকলে আবদ্ধ করা ন্যায়সঙ্গত নয়।

তিনি বলেন, 'সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর অনুপস্থিতিতে বঙ্গবন্ধুর নামেই আমরা যুদ্ধ করেছি, মুজিব বাহিনী বা বিএলএফ গঠন করেছি। স্বাধীনতা ও মুক্তি সংগ্রামের দীর্ঘ লড়াইয়ে যার যা অবদান এবং আত্মত্যাগ রয়েছে তা স্বীকার না করলে বঙ্গবন্ধুর মর্যাদা বিনষ্ট ও প্রশ্নবিদ্ধ হয়। সবাইকে অস্বীকারের সরকারি সংস্কৃতি কোনোক্রমেই ঐতিহাসিকতাকে ন্যায্যতা দেয় না।'

আ স ম রব বলেন, দলগতভাবে আওয়ামী লীগের যা আদর্শ তা জাতির জন্য বাধ্যতামূলক হতে পারে না। শপথ পাঠে দলীয় আদর্শ গ্রহণের বাধ্যবাধকতা সৃষ্টি আধুনিক গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে বিরল, এমনকি রাজতন্ত্রেও নেই।

তিনি বলেন, দেশে বিভিন্ন পদে অবস্থানরত দায়িত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা অহরহ শপথ ভঙ্গ করছেন। ফলে কোমলমতি শিশুদের শপথ গ্রহণের মতো উচ্চ মাত্রার বিষয় সংযোজন করে শপথকে খেলো বিষয়ে পরিণত করা হচ্ছে। এতে শিশুদের আত্মমর্যাদা প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে বিঘ্ন সৃষ্টি হবে এবং নৈতিক দায়বদ্ধতা বিনষ্ট হবে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com