ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ শিক্ষকের বিরুদ্ধে

প্রকাশ: ২৫ জানুয়ারি ২২ । ০০:০০ | আপডেট: ২৫ জানুয়ারি ২২ । ০১:৫২ | প্রিন্ট সংস্করণ

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি

নড়াইলের লোহাগড়ায় মাদ্রাসার এক ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে শিক্ষকের বিরুদ্ধে। নিহত আরিফ বিল্লাহ (৯) উপজেলার ইতনা ইউনিয়নের লংকারচর গ্রামের নূর ইসলামের ছেলে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে সোমবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে।

অভিযুক্ত শিক্ষকের নাম হাফেজ আব্দুল্লাহ। তিনি উপজেলার শালনগর ইউনিয়নের মণ্ডলবাগ আকতার হোসেন এতিমখানা ও রহমানিয়া মাদ্রাসার শিক্ষক। আরিফ বিল্লাহকে ওই মাদ্রাসার হাফেজি শাখায় ৯ মাস আগে ভর্তি করা হয়। কিছুদিন আগে মাদ্রাসার এক ছাত্রের ২০০ টাকা চুরি হয়। বিষয়টি সে শিক্ষকদের জানায়। গত সোমবার শিক্ষক আব্দুল্লাহ রাত ১১টার দিকে সব ছাত্রকে ঘুম থেকে ডেকে তুলে মেঝেতে বসিয়ে লাঠি দিয়ে পিটাতে থাকেন। এ সময় আরিফ বিল্লাহ গুরুতর আহত হয়। সে অসুস্থ থাকায় কয়েকদিন লজিং বাড়িতে না গিয়ে মাদ্রাসায় শুয়ে থাকে। শুক্রবার সকালে ওই গ্রামের লজিং বাড়ির মালিক হাফিজারের স্ত্রী মাদ্রাসায় গিয়ে আরিফকে অসুস্থ দেখে বাড়িতে নিয়ে আসেন এবং বিষয়টি তার মা-বাবাকে জানান। সন্ধ্যায় তাকে লজিং বাড়ি থেকে ফুপু রুনা খানম লাহুড়িয়ায় নিজ বাড়িতে নিয়ে স্থানীয় কবিরাজের মাধ্যমে চিকিৎসা দেন। সেখানে রোববার রাত ৮টার দিকে আরিফ মারা যায়। তার বাবা নূর ইসলাম অভিযুক্ত শিক্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।

শিক্ষক আব্দুল্লাহ ও বড় হুজুর আশরাফ আলীর সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি। লোহাগড়া থানার ওসি শেখ আবু হেনা মিলন বলেন, রোববার রাতে আরিফের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। তবে শরীরে আঘাতের কোনো চিহ্ন পাওয়া যায়নি।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com