'ভেবেছিলাম কখনোই ক্যামেরার সামনে আসবো না'

প্রকাশ: ২৬ জানুয়ারি ২২ । ১৭:২৪ | আপডেট: ২৬ জানুয়ারি ২২ । ২০:১৮

অনলাইন ডেস্ক

বেশকিছু দিন ধরে জনপ্রিয় অভিনেত্রী পপির কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। গুঞ্জন ছিল, বিয়ে করে সংসারী হয়েছেন ‘এই মন তোমাকে দিলাম’ ছবির এই নায়িকা। এমনকি তার সন্তান হওয়ার খবরও গণমাধ্যমে আসে।

বুধবার দুপুরে পপির সাড়ে ৫ মিনিটের একটি ভিডিও ক্লিপ ছড়িয়ে যায় চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টদের বিভিন্ন গ্রুপে। সেখানে ব্যক্তিগত বিষয়ে কিছু না বললেও আসন্ন শিল্পী সমিতির নির্বাচন নিয়ে কথা বলতে দেখা যায় পপিকে।

ভিডিও বার্তায় পপি গত দুই মেয়াদে ক্ষমতায় থাকা শিল্পী সমিতির একজনকে ইঙ্গিত করে কিছু অভিযোগ তুলে ধরেন। তবে তিনি সরাসরি কারো নাম বলেননি।

পপি বলেন, 'ভেবেছিলাম আর কখনোই ক্যামেরার সামনে আসবো না। কিন্তু একজন শিল্পী হিসেবে এবং নিজের কিছু দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে আজকে কিছু কথা না বললেই নয়'।

পপি বলেন, 'দীর্ঘ ২৬ বছর ইন্ডাস্ট্রিতে সুনামের সাথে কাজ করার চেষ্টা করেছি। তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছি। আজকে অনেক কষ্ট নিয়ে কথাগুলো বলছি, আজ আমি কোথায়! আমি আছি আপনাদের মাঝেই, হয়তো ভাগ্য থাকলে আবারও ফিরবো।'

‘কুলি’ ছবির এই নায়িকা বলেন, 'বর্তমান শিল্পী সমিতির একটি মাত্র লোকের কারণে, তার পলিটিক্স এবং অনেক রকম অসহযোগিতার কারণে আমাকে বার বার অপমানিত হতে হয়েছে। শুধু আমি না, আমার মতো রিয়াজ, ফেরদৌস, পূর্ণিমা, নিপুণও অপমানিত হয়েছেন। আমাদেরকে ব্যবহার করে যে এই চেয়ারটিতে বসেছে- সেখানে বসেই বিভিন্ন রকমের অপকর্মের চেষ্টা করেছে। কিন্তু আমরা গুটি কয়েক তাতে সায় দেইনি। যার কারণে আজকে আমি ভিক্টিম। আমার মতো শিল্পীকে সদস্য পদ বাতিলের জন্য চিঠি দেওয়া হয়েছে। এতো বছর কাজ করার পর এমন আচরণ একটা শিল্পীর জন্য কতোটুকু অপমানের- সেটা আমি বুঝতে পারি। ১৮৪ জন শিল্পীও এই কষ্টটা বুঝতে পারবে।'

পপি আরও বলেন, 'এসব কারণে চলচ্চিত্র থেকে নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছি। আমার কাছে সদস্য পদ বাতিলের চিঠিটা এখনও আছে। ওই চিঠিটা যখনই পেয়েছি, তখনই সিদ্ধান্ত নিয়েছি- এই নোংরামির মধ্যে আর আমি যাব না। ভেবেছি, কখনো যদি পরিবেশ ভালো হয়- তখনই চলচ্চিত্রে ফিরবো।'

বক্তের শেষ পর্যায়ে হাত জোর করে পপি চলচ্চিত্র শিল্পীদের উদ্দেশে বলেন, 'আমরা যে ভুলটা করেছি, দয়া করে আপনারা সেই ভুলটা করবেন না। চলচ্চিত্র বাঁচলেই আমরা বাঁচবো। আমরা পরিবর্তন চাই, কাজ চাই। সেজন্য আমার কাছে মনে হয়েছে, আমাদের পরীক্ষিত সৈনিক কাঞ্চন ভাই, নিপুণ, রিয়াজদের একটা সুযোগ দেওয়া উচিত। ভালো কাজের জন্য। তারা অন্তত শিল্পীর মূল্যায়ন করবে।'

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com