কেপটাউনে ফুরফুরে মেজাজে মুমিনুলরা

প্রকাশ: ২২ মার্চ ২২ । ১০:২৫ | আপডেট: ২২ মার্চ ২২ । ১০:৩৩

ক্রীড়া প্রতিবেদক

গ্যারি কারস্টেনের ক্লাসে মুমিনুল

কয়েক মাস ধরেই বেশ আত্মবিশ্বাস নিয়েই কথা বলেন মুমিনুল হক। নিউজিল্যান্ডের মাটিতে টেস্ট জয়ের পর থেকে এই মানসিক পরিবর্তন তার। একটি মাত্র টেস্ট জয় অধিনায়কের মধ্যে এই বিশ্বাস তৈরি করে দিয়েছে, বিশ্বের যে কোনো দেশেই জিততে পারবেন তারা।

মুমিনুলের বিশ্বাসের ভিতটা আরও গাঢ় হয়েছে সেঞ্চুরিয়ানে তামিম ইকবালরা ঐতিহাসিক ওয়ানডে ম্যাচ জেতায়। সে বিশ্বাস থেকেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জয়ের স্বপ্ন দেখছেন বাঁহাতি এ ব্যাটার। কেপটাউনের ক্যাম্প থেকে ফোনে জানান, প্রক্রিয়া ঠিক রেখে সেশন ধরে সেরা ক্রিকেট খেলা গেলে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্টেও ইতিহাস রচনা করতে পারবেন তারা।

টেস্ট দলটা ভালো একটা কাঠামো পেয়েছে। ব্যাটিং ও বোলিং দুই জায়গাতেই উন্নতি হয়েছে। তবে পেস বোলিং ইউনিট গড়ে ওঠায় ভালো করার সম্ভাবনা বেড়ে গেছে। টেস্ট দলেরও লক্ষ্য থাকবে বিশেষ কিছু নিয়ে দেশে ফেরার

ওয়ানডে ও টেস্ট দলের খেলোয়াড়রা একই সঙ্গে গেছেন দক্ষিণ আফ্রিকায়। বিশ্বকাপ সুপার লিগের সিরিজ খেলতে তামিমরা জোহানেসবার্গে থেকে গেলেও মুমিনুলরা কন্ডিশনিং ক্যাম্প করতে পাড়ি জমান কেপটাউনে। সেখানে গ্যারি কারস্টেনের একাডেমিতে ১০ দিন ধরে নিবিড় অনুশীলন করছেন টেস্ট ক্রিকেটাররা।

ব্যাটিং কোচ জেমি সিডন্সের তত্ত্বাবধানে ক্যাম্প পরিচালিত হলেও গ্যারি কারস্টেন দুই দিন টিপস দেন ব্যাটারদের। মুমিনুল একান্তে কিছুটা সময় চেয়ে নিয়েছিলেন ভারতের বিশ্বকাপজয়ী এই কোচের কাছ থেকে। কন্ডিশনিং ক্যাম্প নিয়ে টেস্ট অধিনায়ক বলেন, 'খুব ভালো একটা ক্যাম্প হলো। গ্যারি প্রথমে দুই দিন ছিলেন। শেষে এক দিন দেখবেন। আর পুরো সময়জুড়ে জেমির সঙ্গে ছিলেন রায়ান কুক। কারস্টেনের একাডেমিতেই কাজ করেন তিনি। সব মিলিয়ে ভালো একটি ক্যাম্প হয়েছে। ম্যাচে গিয়ে স্কিল প্রয়োগ করতে পারলে ভালো কিছু হবে।'

বাংলাদেশের টেস্ট দলের শক্তির জায়গা বোলিং। তিনজন পেস বোলার দারুণ ছন্দে আছেন। তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম ও এবাদত হোসেনের সঙ্গে মেহেদী হাসান মিরাজ জ্বলে উঠলে প্রতিপক্ষের ২০ উইকেট নেওয়া সম্ভব মনে করেন মুমিনুল, 'টেস্ট দলটা ভালো একটা কাঠামো পেয়েছে। ব্যাটিং এবং বোলিং দুই জায়গাতেই উন্নতি হয়েছে। তবে পেস বোলিং ইউনিট গড়ে ওঠায় ভালো করার সম্ভাবনা বেড়ে গেছে। টেস্ট দলেরও লক্ষ্য থাকবে বিশেষ কিছু নিয়ে দেশে ফেরার।' 

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের এই সিরিজে বাংলাদেশের বিপক্ষে সেরা দল খেলাতে পারছে না দক্ষিণ আফ্রিকা। আইপিএল খেলার জন্য তাদের ছয়জন ক্রিকেটার টেস্ট থেকে ছুটি নিয়েছেন। এই সুযোগটা কাজে লাগাতে চান মুমিনুল। কাল শেষ হচ্ছে কেপটাউনের কন্ডিশনিং ক্যাম্প এবং জোহানেসবার্গের শেষ ওয়ানডে ম্যাচ। এরপর পুরো দল মিলিত হবে ডারবানে প্রথম টেস্টের ভেন্যুতে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com