সন্তান অতিরিক্ত চঞ্চল? সামলাতে কী করবেন

প্রকাশ: ০৭ এপ্রিল ২২ । ১০:২১ | আপডেট: ০৭ এপ্রিল ২২ । ১০:২১

অনলাইন ডেস্ক

প্রতীকী ছবি

শিশুদের সাধারণ দুষ্টুমি সামাল দিতেই  অনেক বাবা-মাকে নাজেহাল হতে হয়।  তার ওপর সন্তান যদি হাইপার অ্যাক্টিভ অর্থাত্‍ চঞ্চল হয়, তা হলে অভিভাবকদের বিড়ম্বনার শেষ থাকে না। হাইপার অ্যাক্টিভ বা অতিরিক্ত চঞ্চল শিশুদের মস্তিষ্ক সব সময় স্থির থাকে না। কোনও একটি স্থানে কয়েক মিনিটের চেয়ে বেশি বসেও তাকে না তারা। এমন শিশুকে সামলাতে নাজেহাল হয়ে যান বাবা মা ও পরিবারের অন্য সদস্যরা। বিশেষজ্ঞদের মতে, এদের সামলানো কঠিন হলেও অসম্ভব নয়। এজন্য কিছু টিপস অনুসরণ প্রয়োজন। যেমন-

​শক্তির সঠিক ব্য়বহার: ছোট শিশুদের এমন কিছু ক্রিয়াকলাপের সঙ্গে জড়িয়ে রাখুন, যাতে তাদের শারীরিক শক্তি সঠিক পথে সঞ্চালিত হতে পারে। প্রয়োজনে তাদের নাচ, গান, দৌড়ঝাপ, বাস্কেটবল, ক্রিকেট, সাঁতার কাটা ইত্যাদিতে ভর্তি করে দিন। নিউরোবিক্স বা মেন্টাল অ্যারোবিক্স মস্তিষ্ককে উৎসাহিত করে, মনোযোগ বৃদ্ধি করতে ও বেশি সতর্ক করতে সাহায্য করবে। বল বাউন্স করানো, বোর্ড গেমস, ধাঁধা সমাধান করানোর মতো খেলা তাদের শক্তিকে সঠিক পথে চালনা করবে।

মন শান্ত করতে মিউজিক
: নানা শারীরিক সমস্যার সমাধানে মিউজিক থেরাপি ব্যবহার করা হচ্ছে। শিশুদের অতিরিক্ত চঞ্চল মনকে শান্ত করার জন্য হাল্কা, মেডিটেটিভ অথবা ক্লাসিকাল সঙ্গীত শোনাতে পারেন। এ ধরনের সঙ্গীত চঞ্চল মস্তিষ্ককে শান্ত করে। তবে ভারী মেটাল বা হার্ড রক মিউজিক শোনাবেন না। এতে শিশুদের ওপর এর বিপরীত প্রভাব পড়বে। আবার কোনও মিউজিক ইনস্ট্রুমেন্টের প্রতি সন্তানের ঝোঁক থাকলে, তা শেখাতে পারেন।

​গ্যাজেটের ব্যবহার কমানো : টিভি, প্লে স্টেশন, ভিডিও গেম, মোবাইল ফোন বা কম্পিউটার হাইপার অ্যাক্টিভিটিকে বাড়িয়ে দিতে পারে। কার্টুন ও ভিডিও গেমসে উত্তেজনা, তীব্র শব্দ, গাঢ় রঙ ব্যবহার করা হয়। এগুলি শিশুদের আচরণকে প্রভাবিত করে ভুল পথে নিয়ে যেতে পারে। এর ফলে তাদের হাইপার অ্যাক্টিভিটি বৃদ্ধি পায়। তাই গ্যাজেটের ব্যবহার সীমিত করে তাদের প্রকৃতির সঙ্গে সময় কাটাতে উদ্বুদ্ধ করুন। এতে তাদের মন শান্ত হবে।

​সঠিক খাদ্যাভ্যাস : খাদ্যাভ্যাসও শিশুদের স্বভাবকে প্রভাবিত করে। শিশুদের খাওয়া-দাওয়ার ওপর বিশেষ নজর দিতে হবে। বিশেষ করে মধ্যাহ্নভোজে ও রাতের খাবার মিশুর মস্তিষ্ককে সরাসরি প্রভাবিত করে। অধিক শর্করাযুক্ত খাবার খাওয়ার ফলে তাদের চঞ্চলতা বৃদ্ধি পায়। এয়ারেটেড ড্রিঙ্কস, জাঙ্ক ফুড, পিৎজা-বার্গারস আইসক্রিম যথাসম্ভব কম খাওয়ান।

​নিয়মিত ম্যাসাজ : মোলায়েম শারীরিক স্পর্শ ও ভালোবাসাপূর্ণ শব্দ এন্ডোর্ফিন্সকে উত্তেজিত করার কার্যকরী উপায়। হাইপার অ্যাক্টিভ সন্তানকে শান্ত করার জন্য তাদের ভালোবেসে ডেকে তাদের মাথা, চোখ, হাত, পা ও পিঠে হাল্কা ম্যাসাজ করুন। এর ফলে তারা স্বস্তি পাবে ও আনন্দ অনুভব করবে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৭১৪০৮০৩৭৮ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com